২৬ আগস্ট: হাসতে নেই মানা
jugantor
২৬ আগস্ট: হাসতে নেই মানা

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ আগস্ট ২০২০, ০৭:০২:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

* জোকস-১

ডাক্তারের কাছে গিয়ে রফিক দেখল চেম্বারের দরজায় বড় করে লেখা আছে, ‘প্রথমবার ৫০০ টাকা, এরপর ৩০০ টাকা।’ ২০০ টাকা বাঁচাতে সে মনে মনে একটি বুদ্ধি আঁটল।

ডাক্তারের রুমে ঢুকেই বলল, ‘ডাক্তার সাহেব, আবার এলাম। আমার অসুখ তো ভালো হলো না।’ ডাক্তার ভ্রু কুঁচকে তাকালেন। মনোযোগ দিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করলেন। তারপর বললেন, ‘আগে যে ওষুধগুলো দিয়েছিলাম, সেগুলোই চলবে। এবার ঝটপট ৩০০ টাকা দিন।’

* জোকস-২

বহু পুরোনো এক প্রাইভেটকারের নিলাম হচ্ছে। ডাক উঠলো, ১ লাখ, ২ লাখ, ৩ লাখ-
হাশেম: ভাই, এই ভাঙাচুড়া বজরা মার্কা গাড়ির এমন কি বৈশিষ্ট্য আছে যে মানুষ এত দাম কইতাছে?
বিক্রেতা: এই গাড়ি এই পর্যন্ত ১০ বার বিক্রি হইছে। সেই ১০ বারই সে অ্যাকসিডেন্ট করছে। আর প্রতিবারই মালিকের বউরা মারা গেছে।
হাশেম: তাইলে আমি ৪ লাখ দিমু!

* জোকস-৩

আকাশে বিমান উড়ছে। এক যাত্রী হঠাৎ করে ককপিটে ঢুকে পড়ল। তা দেখে পাইলট তো অবাক। পাইলটকে আরও অবাক করে দিয়ে লোকটি পাইলটের হেডফোনটা ছিনিয়ে নিল। তারপর লোকটি বলল, ‘আমরা টাকা দেব আর তুমি এইখানে বইসা কানে হেডফোন লাগাইয়া গান শুনবা!’

* জোকস-৪

বাবুলকে কাঁদতে দেখে বল্টু এগিয়ে গিয়ে বলল-
বল্টু: কী, কাঁদছিস কেন?
বাবুল: বউয়ের দুঃখে!
বল্টু: কেন? কী হয়েছে?
বাবুল: জানিস, আমার বউয়ের অনেক দুঃখ।
বল্টু: কী এমন দুঃখ?
বাবুল: সে আমার উপর রাগ করে বাবার বাড়ি যেতে পারে না।
বল্টু: কেন পারে না?
বাবুল: আমি তো ঘরজামাই।

২৬ আগস্ট: হাসতে নেই মানা

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ আগস্ট ২০২০, ০৭:০২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

* জোকস-১

ডাক্তারের কাছে গিয়ে রফিক দেখল চেম্বারের দরজায় বড় করে লেখা আছে, ‘প্রথমবার ৫০০ টাকা, এরপর ৩০০ টাকা।’ ২০০ টাকা বাঁচাতে সে মনে মনে একটি বুদ্ধি আঁটল।

ডাক্তারের রুমে ঢুকেই বলল, ‘ডাক্তার সাহেব, আবার এলাম। আমার অসুখ তো ভালো হলো না।’ ডাক্তার ভ্রু কুঁচকে তাকালেন। মনোযোগ দিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করলেন। তারপর বললেন, ‘আগে যে ওষুধগুলো দিয়েছিলাম, সেগুলোই চলবে। এবার ঝটপট ৩০০ টাকা দিন।’

* জোকস-২

বহু পুরোনো এক প্রাইভেটকারের নিলাম হচ্ছে। ডাক উঠলো, ১ লাখ, ২ লাখ, ৩ লাখ-
হাশেম: ভাই, এই ভাঙাচুড়া বজরা মার্কা গাড়ির এমন কি বৈশিষ্ট্য আছে যে মানুষ এত দাম কইতাছে?
বিক্রেতা: এই গাড়ি এই পর্যন্ত ১০ বার বিক্রি হইছে। সেই ১০ বারই সে অ্যাকসিডেন্ট করছে। আর প্রতিবারই মালিকের বউরা মারা গেছে।
হাশেম: তাইলে আমি ৪ লাখ দিমু!

* জোকস-৩

আকাশে বিমান উড়ছে। এক যাত্রী হঠাৎ করে ককপিটে ঢুকে পড়ল। তা দেখে পাইলট তো অবাক। পাইলটকে আরও অবাক করে দিয়ে লোকটি পাইলটের হেডফোনটা ছিনিয়ে নিল। তারপর লোকটি বলল, ‘আমরা টাকা দেব আর তুমি এইখানে বইসা কানে হেডফোন লাগাইয়া গান শুনবা!’

* জোকস-৪

বাবুলকে কাঁদতে দেখে বল্টু এগিয়ে গিয়ে বলল-
বল্টু: কী, কাঁদছিস কেন?
বাবুল: বউয়ের দুঃখে!
বল্টু: কেন? কী হয়েছে?
বাবুল: জানিস, আমার বউয়ের অনেক দুঃখ।
বল্টু: কী এমন দুঃখ?
বাবুল: সে আমার উপর রাগ করে বাবার বাড়ি যেতে পারে না।
বল্টু: কেন পারে না?
বাবুল: আমি তো ঘরজামাই।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন