নিউইয়র্কে সন্দ্বীপের ‘কলম্বাস’ মারা গেছেন
jugantor
নিউইয়র্কে সন্দ্বীপের ‘কলম্বাস’ মারা গেছেন

  তোফাজ্জল লিটন, নিউইয়র্ক থেকে  

২২ মার্চ ২০২০, ২২:০৫:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

নিউইয়র্কে সন্দ্বীপ উপজেলার ‘কলম্বাস’ হিসেবে খ্যাত আব্দুল হাদী মারা গেছেন ২১ মার্চ শনিবার রাত ১০টায়। তিনি ১০৩ বছর বয়সে নিউমোনিয়া ভুগলেও হার্টঅ্যাটাক করে মারা গেছেন। ব্রুকলিনে তার নিজের বাসায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

লং আইল্যান্ডের ওয়াশিংটন মেমোরিয়ালে তাকে দাফন করা হবে ২৩ মার্চ সোমবার।

সন্দ্বীপ সোসাইটি ইউএসএ’র সভাপতি ও মৃত ব্যক্তির সন্তান আব্দুল হান্নান পান্না বলেন, তিনি গভীর নিউমোনিয়া ভুগছিলেন। অবস্থা খারাপ দেখে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

বসয় বেশি ও অবস্থা অত্যধিক খারাপ বলে হাসপাতাল থেকে তার নিজের বাড়িতে পাঠোনো হয়। পরে তিনি হার্টঅ্যাটাকে মারা গেছেন।

আব্দুল হান্নান পান্না বলেন, তার জানাজার সময় এখনও নির্ধারণ করা হয়নি। যদিও তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন না। এ সময় নানান পরীক্ষা নিরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হয়। আমরা সোমবারে তাঁর দাফন করবো।

তিনি ত্রিশের দশকে সন্দ্বীপ থেকে প্রথম আমেরিকায় এসেছিলেন। তার মাধ্যমে অনেকে এই ভূমিতে পা রাখতে পেরেছেন। পরোপকারী মানুষ হিসেবে তিনি সমাজে সমাদৃত ছিলেন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

নিউইয়র্কে সন্দ্বীপের ‘কলম্বাস’ মারা গেছেন

 তোফাজ্জল লিটন, নিউইয়র্ক থেকে 
২২ মার্চ ২০২০, ১০:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নিউইয়র্কে সন্দ্বীপ উপজেলার ‘কলম্বাস’ হিসেবে খ্যাত আব্দুল হাদী মারা গেছেন ২১ মার্চ শনিবার রাত ১০টায়। তিনি ১০৩ বছর বয়সে নিউমোনিয়া ভুগলেও হার্টঅ্যাটাক করে মারা গেছেন। ব্রুকলিনে তার নিজের বাসায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। 

লং আইল্যান্ডের ওয়াশিংটন মেমোরিয়ালে তাকে দাফন করা হবে ২৩ মার্চ সোমবার। 

সন্দ্বীপ সোসাইটি ইউএসএ’র সভাপতি ও মৃত ব্যক্তির সন্তান আব্দুল হান্নান পান্না বলেন, তিনি গভীর নিউমোনিয়া ভুগছিলেন। অবস্থা খারাপ দেখে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। 

বসয় বেশি ও অবস্থা অত্যধিক খারাপ বলে হাসপাতাল থেকে তার নিজের বাড়িতে পাঠোনো হয়। পরে তিনি হার্টঅ্যাটাকে মারা গেছেন।  

আব্দুল হান্নান পান্না বলেন, তার জানাজার সময় এখনও নির্ধারণ করা হয়নি। যদিও তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন না। এ সময় নানান পরীক্ষা নিরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হয়। আমরা সোমবারে তাঁর দাফন করবো।

তিনি ত্রিশের দশকে সন্দ্বীপ থেকে প্রথম আমেরিকায় এসেছিলেন। তার মাধ্যমে অনেকে এই ভূমিতে পা রাখতে পেরেছেন। পরোপকারী মানুষ হিসেবে তিনি সমাজে সমাদৃত ছিলেন।  

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর