চোখে ট্যাটু করে দৃষ্টি হারাচ্ছেন মডেল

  যুগান্তর ডেস্ক ০৪ মার্চ ২০২০, ১২:৩৪:৩৩ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: মেইল অনলাইন

চোখের সাদা অংশে ট্যাটু করতে গিয়ে পুরো অন্ধ হয়ে যেতে বসেছেন এক উঠতি মডেল। ঘটনাটি ঘটেছে পোল্যান্ডের রোকলার এলাকায়। সেখানকার বাসিন্দা আলেক্সান্দ্রা স্যাডোক্সা ঠিক করেন যে, র‌্যাপার পোপেকের মতো চেহারা আনতে তিনি চোখের মধ্যে ট্যাটু করবেন।

পরে চোখের সাদা অংশটি কালো রঙ দিয়ে ট্যাটু করতে যান স্থানীয় এক শিল্পীর কাছে। আইবল ট্যাটুকো স্লেরাল ট্যাটুও বলা হয়।

ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়, ২৫ বছর বয়সী ওই মডেল চোখে ট্যাটু করানোর পর থেকেই চোখে ব্যথার উপক্রম হয়। পিয়োটার এ নামে পরিচিত স্থানীয় এক ট্যাটুশিল্পী তার চোখের ভেতর ট্যাটু করে দেন। ট্যাটুশিল্পী তাকে বলেছিলেন– এই যন্ত্রণা স্বাভাবিক এবং পেইন কিলার খেলেই নাকি ব্যথা কমেও যাবে।

কিন্তু আলেক্সান্দ্রাকে অনিচ্ছাকৃতভাবে মারাত্মক ক্ষতি করায় তিন বছরের কারাদণ্ড হয়েছে ওই ট্যাটুশিল্পীর।

তদন্তে দেখা গেছে, চোখের মণিতে ট্যাটু আঁকতে গিয়ে ওই শিল্পী মারাত্মক ত্রুটি করেছিলেন। তিনি চোখের ট্যাটুর জন্য বডি ইংক ব্যবহার করেছিলেন, যা চোখের সংস্পর্শে আসাই উচিত নয়।

আলেক্সান্দ্রা স্যাডোক্সা তার দৃষ্টিশক্তি ফিরিয়ে আনার জন্য তিনটি পদ্ধতি ব্যবহার করেছেন বলে জানা গেছে। তবে চিকিৎকরা বলছেন যে, ট্যাটুর রঞ্জকটি তার টিস্যুতে পৌঁছে গেছে, ফলে দৃষ্টি ফিরে পাওয়ার আর কোনো আশা নেই।

আলেক্সান্দ্রা বলেন, দুর্ভাগ্যক্রমে আপাতত চিকিৎসকরা আমার দৃষ্টির উন্নতির জন্য খুব একটা আশাবাদী নন। ক্ষতিটা খুব গভীর ও ব্যাপক। আমি আশঙ্কা করছি– আমি সম্পূর্ণ অন্ধ হয়ে যাব।

ওই তরুণীর আইনজীবী বলেন, ওই ট্যাটুশিল্পী এই সুক্ষ্ম প্রক্রিয়া জানতেন না বলে স্পষ্ট প্রমাণ আছে। যে কারণে এই মর্মান্তিক পরিণতি হয়েছে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত