ভারত ভাগ হয়ে যাচ্ছে: রাহুল গান্ধী
jugantor
ভারত ভাগ হয়ে যাচ্ছে: রাহুল গান্ধী

  অনলাইন ডেস্ক  

০৫ মার্চ ২০২০, ১০:৫৫:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতের কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেছেন, ‘ভারত ভাগ হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু এতে বিজেপি বা বিরোধীদের কোনো লাভ হচ্ছে না।’

সম্প্রতি দিল্লিতে পাঁচ দিন ধরে চলা উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে এ কথা বলেন রাহুল।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, বুধবার রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে কংগ্রেসের একটি প্রতিনিধি দল দিল্লিতে সিএএবিরোধীদের ওপর সহিংস হামলা ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যায়।

এদিন রাহুলের সঙ্গে ছিলেন কংগ্রেসের আরেক নেতা অধীর চৌধুরী, রণদীপ সিং সুরজেওয়ালাসহ দলটির নেতাকর্মীরা।

সেখানে হিন্দুত্ববাদীদের সহিংসতায় পুড়ে যাওয়া ঘরবসতি, ভাঙচুর ও লুটতরাজের চিহ্ন ও আশ্রয়হীন সংখ্যালঘুদের দেখে ভাষা হারিয়ে ফেলেন রাহুল।


এদিন দিল্লির ব্রিজিপুরি এলাকায় আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত একটি বিদ্যালয়ে গিয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, ‘ঘৃণা ও হিংসা সব ধ্বংস করে দিয়েছে আমাদের। স্কুলে কোমলমতিরাও নিরাপদ নয় ভারতে। আমাদের ভবিষ্যৎকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে এখানে।’

দিল্লিতে হিন্দুত্ববাদীদের তাণ্ডব নিয়ে ঘটনার প্রথম দিন থেকেই সোচ্চার ছিলেন রাহুল।

এ প্রসঙ্গে কংগ্রেস এমপি বলেছিলেন, শন্তিপূর্ণ আন্দোলন গণতন্ত্রের প্রতীক, কিন্তু সহিংসতা কোনোভাবেই বরদাশত করা যায় না।

দিল্লির সেই ঘটনা নিয়ে সংসদেও সরব হয়েছে কংগ্রেস। পুরো ঘটনায় ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দায়ী করছে দলটি।

প্রসঙ্গত উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে ঘটে যাওয়া ওই তাণ্ডবে কমপক্ষে ৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়ে দিল্লির বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৩০০-এরও বেশি।

ভারত ভাগ হয়ে যাচ্ছে: রাহুল গান্ধী

 অনলাইন ডেস্ক 
০৫ মার্চ ২০২০, ১০:৫৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতের কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেছেন, ‘ভারত ভাগ হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু এতে বিজেপি বা বিরোধীদের কোনো লাভ হচ্ছে না।’

সম্প্রতি দিল্লিতে পাঁচ দিন ধরে চলা উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে এ কথা বলেন রাহুল।  

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, বুধবার রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে কংগ্রেসের একটি প্রতিনিধি দল দিল্লিতে সিএএবিরোধীদের ওপর সহিংস হামলা ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যায়।

এদিন রাহুলের সঙ্গে ছিলেন কংগ্রেসের আরেক নেতা অধীর চৌধুরী, রণদীপ সিং সুরজেওয়ালাসহ দলটির নেতাকর্মীরা।
 

সেখানে হিন্দুত্ববাদীদের সহিংসতায় পুড়ে যাওয়া ঘরবসতি, ভাঙচুর ও লুটতরাজের চিহ্ন ও আশ্রয়হীন সংখ্যালঘুদের দেখে ভাষা হারিয়ে ফেলেন রাহুল।


এদিন দিল্লির ব্রিজিপুরি এলাকায় আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত একটি বিদ্যালয়ে গিয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, ‘ঘৃণা ও হিংসা সব ধ্বংস করে দিয়েছে আমাদের। স্কুলে কোমলমতিরাও নিরাপদ নয় ভারতে। আমাদের ভবিষ্যৎকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে এখানে।’
 

দিল্লিতে হিন্দুত্ববাদীদের তাণ্ডব নিয়ে ঘটনার প্রথম দিন থেকেই সোচ্চার ছিলেন রাহুল।

এ প্রসঙ্গে কংগ্রেস এমপি বলেছিলেন, শন্তিপূর্ণ আন্দোলন গণতন্ত্রের প্রতীক, কিন্তু সহিংসতা কোনোভাবেই বরদাশত করা যায় না।  

দিল্লির সেই ঘটনা নিয়ে সংসদেও সরব হয়েছে কংগ্রেস। পুরো ঘটনায় ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দায়ী করছে দলটি।

প্রসঙ্গত উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে ঘটে যাওয়া ওই তাণ্ডবে কমপক্ষে ৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়ে দিল্লির বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৩০০-এরও বেশি।

 

 

 

ঘটনাপ্রবাহ : ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বিতর্ক