সৌদিতে বিপণিবিতানে থুতু ফেলায় আটক, হতে পারে শিরশ্ছেদ
jugantor
সৌদিতে বিপণিবিতানে থুতু ফেলায় আটক, হতে পারে শিরশ্ছেদ

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৭ মার্চ ২০২০, ১০:৩৮:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

সৌদিতে বিপণিবিতানে থুতু ফেলায় আটক, হতে পারে শিরশ্ছেদ

সৌদি আরবের একটি বিপণিবিতানে ট্রলিতে থুতু ফেলায় এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে শিরশ্ছেদ করা হতে পারে। দেশটির এক কৌঁসুলি এমন তথ্য দিয়েছেন।-খবর গালফ নিউজের।

সৌদির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় হাইলে শপিং ট্রলিতে অজ্ঞাত ওই ব্যক্তি থুতু ফেলেন বলে খবরে বলা হয়েছে। এমন একসময় তিনি এই অপরাধটি করলেন, যখন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে সৌদি সরকার।

সূত্র জানায়, আটকের পর ওই ব্যক্তিকে নির্দিষ্ট দূরত্ব থেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। কিন্তু কী উদ্দেশ্যে তিনি এমনটি করেছেন, তা এখনও পরিষ্কার হওয়া সম্ভব হয়নি।

সৌদি অনলাইন ওয়েবসাইট আজেলের খবরে বলা হয়, ‘বিপণিবিতানে থুতু ফেলা সৌদিতে বড় ধরনের অপরাধ। এ ধরনের কাজ ধর্মীয় ও আইনগতভাবে নিন্দনীয়।’

সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাতে পত্রিকাটি বলছে, তার এই আইন লঙ্ঘনকে সমাজে ইচ্ছাকৃতভাবে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে দেয়া ও জনমনে আতঙ্ক উসকে দেয়ার অপচেষ্টা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। কাজেই এই অপরাধের সাজা হিসেবে ওই ব্যক্তির শিরশ্ছেদও হতে পারে।

উল্লেখ্য, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সৌদিতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। আর দেশটিতে সর্বমোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১২ জনে, যাদের মধ্যে ২৩ চিকিৎসাকর্মীও রয়েছেন।

সৌদিতে বিপণিবিতানে থুতু ফেলায় আটক, হতে পারে শিরশ্ছেদ

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৭ মার্চ ২০২০, ১০:৩৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সৌদিতে বিপণিবিতানে থুতু ফেলায় আটক, হতে পারে শিরশ্ছেদ
ছবি: সংগৃহীত

সৌদি আরবের একটি বিপণিবিতানে ট্রলিতে থুতু ফেলায় এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে শিরশ্ছেদ করা হতে পারে। দেশটির এক কৌঁসুলি এমন তথ্য দিয়েছেন।-খবর গালফ নিউজের।

সৌদির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় হাইলে শপিং ট্রলিতে অজ্ঞাত ওই ব্যক্তি থুতু ফেলেন বলে খবরে বলা হয়েছে। এমন একসময় তিনি এই অপরাধটি করলেন, যখন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে সৌদি সরকার।

সূত্র জানায়, আটকের পর ওই ব্যক্তিকে নির্দিষ্ট দূরত্ব থেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। কিন্তু কী উদ্দেশ্যে তিনি এমনটি করেছেন, তা এখনও পরিষ্কার হওয়া সম্ভব হয়নি।

সৌদি অনলাইন ওয়েবসাইট আজেলের খবরে বলা হয়, ‘বিপণিবিতানে থুতু ফেলা সৌদিতে বড় ধরনের অপরাধ। এ ধরনের কাজ ধর্মীয় ও আইনগতভাবে নিন্দনীয়।’

সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাতে পত্রিকাটি বলছে, তার এই আইন লঙ্ঘনকে সমাজে ইচ্ছাকৃতভাবে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে দেয়া ও জনমনে আতঙ্ক উসকে দেয়ার অপচেষ্টা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। কাজেই এই অপরাধের সাজা হিসেবে ওই ব্যক্তির শিরশ্ছেদও হতে পারে।

উল্লেখ্য, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সৌদিতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। আর দেশটিতে সর্বমোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১২ জনে, যাদের মধ্যে ২৩ চিকিৎসাকর্মীও রয়েছেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস