কাশ্মীরের বাসিন্দাদের সংজ্ঞা বদলে দিল মোদি সরকার
jugantor
কাশ্মীরের বাসিন্দাদের সংজ্ঞা বদলে দিল মোদি সরকার

  যুগান্তর ডেস্ক  

০২ এপ্রিল ২০২০, ১৩:০৮:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

কাশ্মীরের বাসিন্দাদের সংজ্ঞা বদলে দিল মোদি সরকার

জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলুপ্ত করে রাজ্যটিকে দুই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার প্রায় সাত মাস পর সেখানকার স্থায়ী বাসিন্দার সংজ্ঞাও বদলে দেয়া হয়েছে।

বুধবার গভীর রাতে একটি প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করেছে নরেন্দ্র মোদির সরকার। তাতে কাশ্মীদের বাসিন্দাদের নতুন পরিচয় দেয়া হয়েছে। খবর আলজাজিরা ও আনন্দবাজার পত্রিকার।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, যারা জম্মু-কাশ্মীরে ১৫ বছর ধরে বসবাস করছেন বা সাত বছর সেখানে পড়াশোনা করে সেখান থেকেই দশম বা দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা দিয়েছেন, তারাই কেবল স্থায়ী বাসিন্দার (ডোমিসাইল) সনদ পেতে পারেন।

কেন্দ্রীয় সরকার, রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা, কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় বা সরকারি গবেষণাগারের যেসব কর্মী জম্মু-কাশ্মীরে কাজ করেছেন, তাদের সন্তানরাও এ সুযোগ পাবেন।

এতে মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ হিমালয় অঞ্চলটির জনমিতির অবস্থান বদলে যাবে বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের। অর্থাৎ রাজ্যটি আর মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ না থাকতে পারে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, শুধু এই স্থায়ী বাসিন্দারাই জম্মু-কাশ্মীর সরকারের নন-গেজেটেড স্তরের লেভেল ফোর পর্যন্ত সব পদে আবেদন করতে পারবেন। লেভেল ফোরের পদের মধ্যে আছে কনস্টেবল, জুনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট।

জম্মু-কাশ্মীর সরকারের বাকি পদগুলোর জন্য সব ভারতীয় নাগরিকই আবেদন করতে পারবেন বলে নতুন এ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে।

কাশ্মীরের বাসিন্দাদের সংজ্ঞা বদলে দিল মোদি সরকার

 যুগান্তর ডেস্ক 
০২ এপ্রিল ২০২০, ০১:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কাশ্মীরের বাসিন্দাদের সংজ্ঞা বদলে দিল মোদি সরকার
ছবি: এএফপি

জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলুপ্ত করে রাজ্যটিকে দুই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার প্রায় সাত মাস পর সেখানকার স্থায়ী বাসিন্দার সংজ্ঞাও বদলে দেয়া হয়েছে।

বুধবার গভীর রাতে একটি প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করেছে নরেন্দ্র মোদির সরকার। তাতে কাশ্মীদের বাসিন্দাদের নতুন পরিচয় দেয়া হয়েছে। খবর আলজাজিরা ও আনন্দবাজার পত্রিকার।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, যারা জম্মু-কাশ্মীরে ১৫ বছর ধরে বসবাস করছেন বা সাত বছর সেখানে পড়াশোনা করে সেখান থেকেই দশম বা দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা দিয়েছেন, তারাই কেবল স্থায়ী বাসিন্দার (ডোমিসাইল) সনদ পেতে পারেন।

কেন্দ্রীয় সরকার, রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা, কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় বা সরকারি গবেষণাগারের যেসব কর্মী জম্মু-কাশ্মীরে কাজ করেছেন, তাদের সন্তানরাও এ সুযোগ পাবেন।

এতে মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ হিমালয় অঞ্চলটির জনমিতির অবস্থান বদলে যাবে বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের। অর্থাৎ রাজ্যটি আর মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ না থাকতে পারে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, শুধু এই স্থায়ী বাসিন্দারাই জম্মু-কাশ্মীর সরকারের নন-গেজেটেড স্তরের লেভেল ফোর পর্যন্ত সব পদে আবেদন করতে পারবেন। লেভেল ফোরের পদের মধ্যে আছে কনস্টেবল, জুনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট।

জম্মু-কাশ্মীর সরকারের বাকি পদগুলোর জন্য সব ভারতীয় নাগরিকই আবেদন করতে পারবেন বলে নতুন এ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে।   

 

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট