পিছু হটতে নারাজ চীন, ‘যুদ্ধ প্রস্তুতির’ নির্দেশ ভারতের
jugantor
পিছু হটতে নারাজ চীন, ‘যুদ্ধ প্রস্তুতির’ নির্দেশ ভারতের

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৯ আগস্ট ২০২০, ২০:৪৩:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

চীনের সঙ্গে ‘যুদ্ধ প্রস্তুতির’ নির্দেশ ভারতের
ছবি: সংগৃহীত

লাদাখের প্যাংগং লেকের সীমান্ত নিয়ে সামরিক ও কূটনৈতিক স্তরে দফায় দফায় মিটিংয়েও কোনো সমাধানে আসতে পারেনি চীন ও ভারত। 

নিজেদের অবস্থান থেকে একবিন্দুও পিছু হটতে রাজি নয় চীনের সেনাবাহিনী। ভূখণ্ড ছাড়বে না বলে ঘোষণা দিয়েছে ভারতও। 

এই পরিস্থিতিতে শনিবার ভারতীয় সেনা কমান্ডারদের ‘যুদ্ধ প্রস্তুতি’র নির্দেশ দিলেন সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। খবর এএনআইয়ের। 

ভারতের দাবি, দেপসাঙের ওপারে ১৫ হাজার সেনা, ট্যাংক, কামান মোতায়েন করেছে চীন। চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির এই আচরণে ক্ষুব্ধ ভারত। সে কারণেই এবার ভারতীয় সেনা কমান্ডারদের ‘যুদ্ধের প্রস্তুতি’ নিয়ে রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। 

পরিস্থিতি মোকাবেলায় ইতিমধ্যে পূর্ব লাদাখে প্রায় চল্লিশ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে দিল্লি। ভারতের এমন শক্ত পদক্ষেপেও কাবু হচ্ছে না চীন। উল্টো সিকিম, হিমাচল, উত্তরাখণ্ড, অরুণাচলেও সেনা অবস্থান জোরদার করছে চীন। 

প্রায় তিন মাস ধরে ভারত-চীনের মধ্যে উত্তেজনা চলছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডে ঘাঁটি গেড়েছে চীন। বার বার তাদের সঙ্গে আলোচনা করেও এ বিষয়ে এখনও কোনো সমাধানে পৌঁছানো সম্ভব হয়নি। 

গালওয়ান, হটস্প্রিং, ফিঙ্গার পয়েন্ট ফোর থেকে সেনা সরালেও ভারতীয় ভূখণ্ডের প্যাংগং, দেপসাঙে এখনও ঘাঁটি গেড়ে বসে আছে চীনা সেনারা। সে কারণেই ভারতীয় সেনাদেরকে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে।

সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর পরিস্থিতি সরেজমিন খতিয়ে দেখতে গত কয়েকদিনে সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে লাদাখ থেকে আসাম পর্যন্ত প্রতিটি এলাকায় গেছেন। সেখানে কর্তব্যরত সেনা কমান্ডারদের সঙ্গে তিনি বৈঠক করেছেন। 

চীনের সঙ্গে সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন। সব ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় ভারতীয় সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।
 

পিছু হটতে নারাজ চীন, ‘যুদ্ধ প্রস্তুতির’ নির্দেশ ভারতের

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৯ আগস্ট ২০২০, ০৮:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
চীনের সঙ্গে ‘যুদ্ধ প্রস্তুতির’ নির্দেশ ভারতের
ছবি: সংগৃহীত

লাদাখের প্যাংগং লেকের সীমান্ত নিয়ে সামরিক ও কূটনৈতিক স্তরে দফায় দফায় মিটিংয়েও কোনো সমাধানে আসতে পারেনি চীন ও ভারত।

নিজেদের অবস্থান থেকে একবিন্দুও পিছু হটতে রাজি নয় চীনের সেনাবাহিনী। ভূখণ্ড ছাড়বে না বলে ঘোষণা দিয়েছে ভারতও।

এই পরিস্থিতিতে শনিবার ভারতীয় সেনা কমান্ডারদের ‘যুদ্ধ প্রস্তুতি’র নির্দেশ দিলেন সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। খবর এএনআইয়ের।

ভারতের দাবি, দেপসাঙের ওপারে ১৫ হাজার সেনা, ট্যাংক, কামান মোতায়েন করেছে চীন। চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির এই আচরণে ক্ষুব্ধ ভারত। সে কারণেই এবার ভারতীয় সেনা কমান্ডারদের ‘যুদ্ধের প্রস্তুতি’ নিয়ে রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

পরিস্থিতি মোকাবেলায় ইতিমধ্যে পূর্ব লাদাখে প্রায় চল্লিশ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে দিল্লি। ভারতের এমন শক্ত পদক্ষেপেও কাবু হচ্ছে না চীন। উল্টো সিকিম, হিমাচল, উত্তরাখণ্ড, অরুণাচলেও সেনা অবস্থান জোরদার করছে চীন।

প্রায় তিন মাস ধরে ভারত-চীনের মধ্যে উত্তেজনা চলছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডে ঘাঁটি গেড়েছে চীন। বার বার তাদের সঙ্গে আলোচনা করেও এ বিষয়ে এখনও কোনো সমাধানে পৌঁছানো সম্ভব হয়নি।

গালওয়ান, হটস্প্রিং, ফিঙ্গার পয়েন্ট ফোর থেকে সেনা সরালেও ভারতীয় ভূখণ্ডের প্যাংগং, দেপসাঙে এখনও ঘাঁটি গেড়ে বসে আছে চীনা সেনারা। সে কারণেই ভারতীয় সেনাদেরকে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে।

সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর পরিস্থিতি সরেজমিন খতিয়ে দেখতে গত কয়েকদিনে সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে লাদাখ থেকে আসাম পর্যন্ত প্রতিটি এলাকায় গেছেন। সেখানে কর্তব্যরত সেনা কমান্ডারদের সঙ্গে তিনি বৈঠক করেছেন।

চীনের সঙ্গে সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন। সব ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় ভারতীয় সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

 

ঘটনাপ্রবাহ : সীমান্তে চীন-ভারত উত্তেজনা