সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়ের সমান অধিকার
jugantor
ভারতীয় সুপ্রিমকোর্টের রায়
সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়ের সমান অধিকার

  যুগান্তর ডেস্ক  

১১ আগস্ট ২০২০, ২১:০১:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়ের
প্রতীকি ছবি

সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়ের সমান অধিকার বিষয়ে ঐতিহাসিক রায় দিয়েছে ভারতের সুপ্রিমকোর্ট।  এখন থেকে হিন্দু বাবার সম্পত্তিতে ছেলে ও মেয়েদের সমানাধিকার থাকবে বলে জানিয়েছে আদালত।  

মঙ্গলবার বিচারপতি অরুণ মিশ্রের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ এ রায় দেয় বলে হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে। 
২০০৫ সালের সংশোধিত এই আইন অনুযায়ী বাবার সম্পত্তিতে সব নারী হিন্দু আইন অনুযায়ী সমার অধিকার পাবে। 

রায় দেয়ার আগে বিচারপতিরা বলেন, কন্যা সন্তান চিরকালই কন্যা সন্তান হয়েই থাকেন।  নারীর জন্ম যখনই হোক, ২০০৫ সালের সংশোধিত এই আইন অনুযায়ী বাবার সম্পত্তিতে নারীর অধিকার সমান।

রায় শেষে বিচারপতি অরুণ মিশ্র বলেন, ‘এক মেয়ে সারাজীবনের।  একবার যে মেয়ে (হয়), সে সারাজীবনের মেয়ে। 

রায়ে বলা হয়, ২০০৫ সালের হিন্দু উত্তরাধিকারী (সংশোধিত) আইন মোতাবেক অভিভাবকের সম্পত্তিতে মেয়েদের স্বীকৃত অধিকার থাকবে। অর্থাৎ সম্পত্তিতে ছেলেদের যা অধিকার, মেয়েরাও সেই অধিকার ভোগ করবেন। 

বাবা যদি সেই সংশোধনী প্রণয়নের আগে মারা যান, তাহলেও ছেলে ও মেয়েদের সমানাধিকার প্রযোজ্য হবে।

ভারতীয় সুপ্রিমকোর্টের এমন ব্যাখ্যাকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে।  কারণ আগে একাধিক মামলায় শীর্ষ আদালত রায় দিয়েছিল, ২০০৫ সালের ৫ সেপ্টেম্বর যদি বাবা এবং মেয়ে দু’জনেই জীবিত থাকেন, তবেই বাবার সম্পত্তিতে মেয়ের স্বীকৃত অধিকার থাকবে।   

মঙ্গলবারের রায়ে একবারে স্পষ্টভাবে জানানো হয়েছে, হিন্দু-সাকসেশন অ্যাক্ট সংশোধন হওয়ার পরে মেয়েদের এই আইনি অধিকার নিশ্চিত রয়েছে। তবে সংশোধনের সময় বাবা বেঁচে থাকলে বা না থাকলেও সব মেয়েদেরই এই সুবিধা পাওয়ার অধিকার রয়েছে। 
 

ভারতীয় সুপ্রিমকোর্টের রায়

সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়ের সমান অধিকার

 যুগান্তর ডেস্ক 
১১ আগস্ট ২০২০, ০৯:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়ের
প্রতীকি ছবি

সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়ের সমান অধিকার বিষয়ে ঐতিহাসিক রায় দিয়েছে ভারতের সুপ্রিমকোর্ট। এখন থেকে হিন্দু বাবার সম্পত্তিতে ছেলে ও মেয়েদের সমানাধিকার থাকবে বলে জানিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার বিচারপতি অরুণ মিশ্রের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ এ রায় দেয় বলে হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে।
২০০৫ সালের সংশোধিত এই আইন অনুযায়ী বাবার সম্পত্তিতে সব নারী হিন্দু আইন অনুযায়ী সমার অধিকার পাবে।

রায় দেয়ার আগে বিচারপতিরা বলেন, কন্যা সন্তান চিরকালই কন্যা সন্তান হয়েই থাকেন। নারীর জন্ম যখনই হোক, ২০০৫ সালের সংশোধিত এই আইন অনুযায়ী বাবার সম্পত্তিতে নারীর অধিকার সমান।

রায় শেষে বিচারপতি অরুণ মিশ্র বলেন, ‘এক মেয়ে সারাজীবনের। একবার যে মেয়ে (হয়), সে সারাজীবনের মেয়ে।

রায়ে বলা হয়, ২০০৫ সালের হিন্দু উত্তরাধিকারী (সংশোধিত) আইন মোতাবেক অভিভাবকের সম্পত্তিতে মেয়েদের স্বীকৃত অধিকার থাকবে। অর্থাৎ সম্পত্তিতে ছেলেদের যা অধিকার, মেয়েরাও সেই অধিকার ভোগ করবেন।

বাবা যদি সেই সংশোধনী প্রণয়নের আগে মারা যান, তাহলেও ছেলে ও মেয়েদের সমানাধিকার প্রযোজ্য হবে।

ভারতীয় সুপ্রিমকোর্টের এমন ব্যাখ্যাকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। কারণ আগে একাধিক মামলায় শীর্ষ আদালত রায় দিয়েছিল, ২০০৫ সালের ৫ সেপ্টেম্বর যদি বাবা এবং মেয়ে দু’জনেই জীবিত থাকেন, তবেই বাবার সম্পত্তিতে মেয়ের স্বীকৃত অধিকার থাকবে।

মঙ্গলবারের রায়ে একবারে স্পষ্টভাবে জানানো হয়েছে, হিন্দু-সাকসেশন অ্যাক্ট সংশোধন হওয়ার পরে মেয়েদের এই আইনি অধিকার নিশ্চিত রয়েছে। তবে সংশোধনের সময় বাবা বেঁচে থাকলে বা না থাকলেও সব মেয়েদেরই এই সুবিধা পাওয়ার অধিকার রয়েছে।

 
আরও খবর