তুরস্কে ৪৫০ বছর আগের হাতে লেখা কুরআনের সন্ধান
jugantor
তুরস্কে ৪৫০ বছর আগের হাতে লেখা কুরআনের সন্ধান

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৫ নভেম্বর ২০২১, ১৪:১৩:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

তুরস্কে ৪৫০ বছর আগের হাতে লেখা কুরআনের সন্ধান

তুরস্কে ৪৫০ বছর আগের হাতে লেখা পবিত্র কুরআন শরিফের একটি কপি পাওয়া গেছে। দেশটির কারাপিনার জেলার কনিয়ায় অবস্থিত ঐতিহাসিক সুলতান সেলিম মসজিদে এটি পাওয়া গেছে।

ডেইলি সাবাহর খবরে বলা হয়, উসমানী সুলতান দ্বিতীয় সেলিম কর্তৃক উপহার দেওয়া এই কুরআন শরিফে ১০ পারা লেখা রয়েছে। সম্প্রতি এটি প্রকাশ্যে এসেছে।

কারাপিনার মুফতি ইউনুস আয়দিন আনাদোলু এজেন্সিকে জানান, পবিত্র কুরআনের হাতে লেখা সংস্করণ আবিষ্কারের ঘটনায় তারা অত্যন্ত আনন্দিত। যে মসজিদ থেকে পবিত্র কুরআনের কপিটি পাওয়া গেছে, ঐতিহাসিক মসজিদটি উসমানী খেলাফতের দ্বিতীয় সেলিম তৈরি করেছিলেন। আমরা হাতে লেখা কুরআনের কপিটি পরীক্ষা করে দেখি, তাতে উসমানী সুলতান দ্বিতীয় সেলিম ও কারানপুরের নাম উল্লেখ আছে।

আঙ্কারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ধর্মতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক মুস্তাফা আসকার বিষয়টি যাচাই-বাছাই করেন।

মুস্তাফা আসকার বলেছেন, ৪৫০ বছর আগে হাতে লেখা কুরআনের কপি খুবই গুরুত্বপূর্ণ নথি। এর পর সুলতান সেলিম মসজিদে তা প্রদর্শনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

পবিত্র কুরআন ৩০ পারা হলেও এখানে শুধু ১০ পারা পাওয়া গেছে। কুরআন শরিফটি খুবই সুন্দরভাবে লেখা রয়েছে।

প্রচ্ছদের ভেতরে ‘তালিক’ লিপিতে তুর্কি ভাষায় লেখা বাক্যের অর্থ, ‘সুলতান সেলিম হান কর্তৃক কারাপিনার শহরে উপহার হিসেবে পাঠানোর জন্য হাতে লেখা।’

তুরস্কে ৪৫০ বছর আগের হাতে লেখা কুরআনের সন্ধান

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৫ নভেম্বর ২০২১, ০২:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
তুরস্কে ৪৫০ বছর আগের হাতে লেখা কুরআনের সন্ধান
ছবি: ডেইলি সাবাহ

তুরস্কে ৪৫০ বছর আগের হাতে লেখা পবিত্র কুরআন শরিফের একটি কপি পাওয়া গেছে। দেশটির কারাপিনার জেলার কনিয়ায় অবস্থিত ঐতিহাসিক সুলতান সেলিম মসজিদে এটি পাওয়া গেছে। 

ডেইলি সাবাহর খবরে বলা হয়, উসমানী সুলতান দ্বিতীয় সেলিম কর্তৃক উপহার দেওয়া এই কুরআন শরিফে ১০ পারা লেখা রয়েছে। সম্প্রতি এটি প্রকাশ্যে এসেছে।

কারাপিনার মুফতি ইউনুস আয়দিন আনাদোলু এজেন্সিকে জানান, পবিত্র কুরআনের হাতে লেখা সংস্করণ আবিষ্কারের ঘটনায় তারা অত্যন্ত আনন্দিত। যে মসজিদ থেকে পবিত্র কুরআনের কপিটি পাওয়া গেছে, ঐতিহাসিক মসজিদটি উসমানী খেলাফতের দ্বিতীয় সেলিম তৈরি করেছিলেন। আমরা হাতে লেখা কুরআনের কপিটি পরীক্ষা করে দেখি, তাতে উসমানী সুলতান দ্বিতীয় সেলিম ও কারানপুরের নাম উল্লেখ আছে। 

আঙ্কারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ধর্মতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক মুস্তাফা আসকার বিষয়টি যাচাই-বাছাই করেন। 

মুস্তাফা আসকার বলেছেন, ৪৫০ বছর আগে হাতে লেখা কুরআনের কপি খুবই গুরুত্বপূর্ণ নথি। এর পর সুলতান সেলিম মসজিদে তা প্রদর্শনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

পবিত্র কুরআন ৩০ পারা হলেও এখানে শুধু ১০ পারা পাওয়া গেছে। কুরআন শরিফটি খুবই সুন্দরভাবে লেখা রয়েছে। 

প্রচ্ছদের ভেতরে ‘তালিক’ লিপিতে তুর্কি ভাষায় লেখা বাক্যের অর্থ, ‘সুলতান সেলিম হান কর্তৃক কারাপিনার শহরে উপহার হিসেবে পাঠানোর জন্য হাতে লেখা।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন