তীব্র খরায় জেগে উঠল তিনশ বছরের পুরোনো বাগান
jugantor
তীব্র খরায় জেগে উঠল তিনশ বছরের পুরোনো বাগান

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৫ জুলাই ২০২২, ২২:৪৮:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

সমগ্র ইউরোপজুড়েই চলছে তীব্র দাবদাহ। তাপপ্রবাহের কারণে তাপমাত্রার পারদ সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। জনজীবন হয়ে পড়েছে বিপর্যস্ত। তবে এরই মধ্যে তীব্র খরার কারণে ঘটেছে একটি চমকপ্রদ ঘটনা। যুক্তরাজ্যের চ্যাটসওয়ার্থ হাউসের দক্ষিণ লনের ঘাস খরার কারণে শুকিয়ে যাওয়ায় জেগে উঠেছে তিনশ বছরের পুরোনো একটি বাগান। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

বাগানটিতে রয়েছে গাছপালা লাগানোর আলাদা আলাদা বেড, যা পায়ে চলা পথ দিয়ে সুন্দরভাবে পৃথক করা হয়েছে বলে জানা গেছে। ১৬৯৯ সালে ডিউক অব ডেভনশায়ার এই বাগানটি তৈরি করেছিল। ড্রোন ফুটেজে ১৭ শতকের লনের অবশিষ্টাংশ প্রকাশ করা হয়। ফুটেজে বাগানের উজ্জ্বল অতীতের আভাস পাওয়া গেছে।

স্বাভাবিকভাবেই এই আবিষ্কারে মানুষ ভীষণ অবাক হয়েছে। নেটমাধ্যমে ভাইরালও হয়েছে এই আবিষ্কার।

পিক ডিস্ট্রিক ন্যাশনাল পার্কে পাওয়া গেছে এই বাগান। এটি ডার্বিশায়ারের চ্যাটসওয়ার্থ এস্টেটের বাগানের অংশ। এস্টেটটি ডেভনশায়ার পরিবারের মালিকানাধীন বলে জানা গেছে। এটি গ্রেট পার্টেরে নামে পরিচিত। বাগানটিতে রয়েছে বিভিন্ন জাতের ফুলের বেড।

যুক্তরাজ্যের তাপমাত্রা চরম আকার ধারণ করে আবিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত বাগানটি কয়েক শতাব্দী ধরে ঘাসের নীচে লুকিয়ে ছিল বলে প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে।

তীব্র খরায় জেগে উঠল তিনশ বছরের পুরোনো বাগান

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৫ জুলাই ২০২২, ১০:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সমগ্র ইউরোপজুড়েই চলছে তীব্র দাবদাহ।  তাপপ্রবাহের কারণে তাপমাত্রার পারদ সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। জনজীবন হয়ে পড়েছে বিপর্যস্ত। তবে এরই মধ্যে তীব্র খরার কারণে ঘটেছে একটি চমকপ্রদ ঘটনা। যুক্তরাজ্যের চ্যাটসওয়ার্থ হাউসের দক্ষিণ লনের ঘাস খরার কারণে শুকিয়ে যাওয়ায় জেগে  উঠেছে তিনশ বছরের পুরোনো একটি বাগান। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। 

বাগানটিতে রয়েছে গাছপালা লাগানোর আলাদা আলাদা বেড, যা পায়ে চলা পথ দিয়ে সুন্দরভাবে পৃথক করা হয়েছে বলে জানা গেছে। ১৬৯৯ সালে ডিউক অব ডেভনশায়ার এই বাগানটি তৈরি করেছিল। ড্রোন ফুটেজে ১৭ শতকের লনের অবশিষ্টাংশ প্রকাশ করা হয়। ফুটেজে বাগানের উজ্জ্বল অতীতের আভাস পাওয়া গেছে। 

স্বাভাবিকভাবেই এই আবিষ্কারে মানুষ ভীষণ অবাক হয়েছে। নেটমাধ্যমে ভাইরালও হয়েছে এই আবিষ্কার। 

পিক ডিস্ট্রিক ন্যাশনাল পার্কে পাওয়া গেছে এই বাগান। এটি ডার্বিশায়ারের চ্যাটসওয়ার্থ এস্টেটের বাগানের অংশ। এস্টেটটি ডেভনশায়ার পরিবারের মালিকানাধীন বলে জানা গেছে। এটি গ্রেট পার্টেরে নামে পরিচিত। বাগানটিতে রয়েছে বিভিন্ন জাতের ফুলের বেড।  

যুক্তরাজ্যের তাপমাত্রা চরম আকার ধারণ করে আবিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত বাগানটি কয়েক শতাব্দী ধরে ঘাসের নীচে লুকিয়ে ছিল বলে প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন