বাজানদারের চিকিৎসায় ৯ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড

  যুগান্তর রিপোর্ট ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:০৯ | অনলাইন সংস্করণ

বাজানদারের চিকিৎসায় ৯ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড

আবারও চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ফিরে এসেছেন বৃক্ষমানব হিসেবে পরিচিত আবুল বাজানদার।

রোববার সকাল ১০টায় মা আমেনা বেগমকে সঙ্গে করে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আসেন আবুল বাজানদার। আবুল বাজানদারের চিকিৎসায় মঙ্গলবার ফের নতুন করে নয় সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে।

ঢামেকের বার্ন ইউনিটের প্রধান এবং শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের প্রকল্প পরিচালক প্রফেসার ড. আবুল কালামকে প্রধান করে এ মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

প্রফেসার ড. আবুল কালাম জানান, বাজানদারের চিকিৎসার জন্য নতুন করে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তার চিকিৎসার জন্য আরও কিছু পরীক্ষ-নিরীক্ষা করা হবে। সেই পরীক্ষার রিপোর্টের ভিত্তিতে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

আবুল বাজানদার ২০১৬ সালে তিনি ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি হন। আড়াই বছর হাসপাতালে ছিলেন তিনি। এখানকার চিকিৎসকরা তার হাতে ও পায়ে ২৫টি অস্ত্রোপচার করে।

চিকিৎসার এক পর্যায়ে গত বছরের ২৬ মে তিনি কাউকে কিছু না জানিয়ে হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান। এত অস্ত্রোপচারেও ভালো না হওয়ায় তিনি হতাশ হন। এতে নিরাশ হয়েই তিনি পালিয়ে যান।

তিনি বলেন, ‘আমি ভুল বুঝতে পেরেছি। পালিয়ে যাওয়াটা ঠিক হয়নি। আমি বাঁচতে চাই, সাধারণ মানুষের মতো সুস্থ হয়ে কাজ করতে চাই। আবারও ফিরে এসেছি চিকিৎসার জন্য।’

উল্লেখ্য, আবুল বাজানদার গত ১০ বছর ধরে হাত-পায়ে শেকড়ের মতো গজিয়ে ওঠা বিরল এক জেনেটিক রোগে ভুগছেন। ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে ঢামেক হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয় খরচে তার চিকিৎসা করার নির্দেশ দেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×