একই নাম ও লেবেল সেঁটে ‘গুরুদেব জর্দা’ বাজারজাত করছে তিন প্রতিষ্ঠান!

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৫ নভেম্বর ২০১৯, ১২:৩৯ | অনলাইন সংস্করণ

জর্দা
একই নাম ও লেভেল লাগিয়ে তিন প্রতিষ্ঠান চালাচ্ছে গুরুদেব জর্দা। ছবি: যুগান্তর

কিশোরগঞ্জের হাটবাজারে একই নাম ও লেবেলে তিন ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানের গুরুদেব জর্দার অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। আসল-নকল বুঝতে না পারার সুযোগে একটি নকল এবং অপর একটি অজ্ঞাত পরিচয়ের ভুয়া ব্যক্তি প্রতিষ্ঠান গুরুদেব জর্দা বাজারজাত করে আসছে।

সম্প্রতি মানব দেহের জন্য ক্ষতিকর কেমিক্যাল দিয়ে তৈরি জর্দার তালিকায় গুরুদেব জর্দার নাম দেখে নড়েচড়ে বেসেছেন ব্যবসায়ী সমাজ এবং আসল গুরুদেব জর্দা কোম্পানি।

ব্যবসায়ীদের সহায়তায় আসল গুরুদেব জর্দার মালিক কারা তা জানতে যুগান্তরের পক্ষ থেকে বিশেষ অনুসন্ধান চালানো হয়। এতে বেরিয়ে আসে অবিশ্বাস্য নানা তথ্য।

অনুসন্ধানে জানা যায়, আসল গুরুদেব জর্দার মালিক কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার স্বপন কেমিক্যাল ওয়ার্কসের স্বত্বাধিকারী স্বপন সাহার অনুরূপ ছবি ও লেবেল ব্যবহার করে রংপুরের হারাগাছ উপজেলার মানিক কেমিক্যাল ওয়ার্কসের স্বত্বাধিকারী মানিক এবং স্বপন কেমিক্যাল ওয়ার্কসের দুই বছর আগের লেবেল ব্যবহার করে অজ্ঞাত পরিচয়ের অপর ব্যক্তি প্রতিষ্ঠান অবিকল নকল গুরুদেব জর্দা বাজারজাত করেছেন।

কিশোরগঞ্জ শহরের স্টেশন রোড এলাকার জর্দা ও পান দোকানী প্রদীপ সরকার যুগান্তরকে বলেন, আসল গুরুদেব জর্দার মোড়কে নকল ও ভেজাল গুরুদেব জর্দা এমনভাবে বাজারে এসেছে যে, দেখে সহজে বুঝে উঠা খুবই মুশকিল। সম্প্রতি পত্রপত্রিকায় মান নিয়ে লেখালেখি শুরু হওয়ায় এবং আসল গুরুদেব জর্দার মালিক আমাদেরকে আসল নকল ও ভেজাল ধরিয়ে দেয়ায় আমরা বুঝতে পেরেছি।

আসল গুরুদেব জর্দার মালিক স্বপন সাহার অভিযোগ, এ দুই নকল ও ভুয়া ব্যক্তি প্রতিষ্ঠান গুরুদেব জর্দার ইমেজ কাজে লাগিয়ে ক্ষতিকর রাসায়নিক ব্যবহার করে নিম্নমানের জর্দা বাজারজাত করে দেদার অনৈতিক মুনাফা লুঠছে। আর এ ঘটনায় আসল গুরুদেব জর্দার সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে। তিনি এ ঘটনা তদন্তপূর্বক জড়িতদের আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, হাকীমপুরী, শাহজাদী, রতন জর্দাসহ দেশের ২২টি প্রতিষ্ঠানের জর্দা, গুল ও খয়েরে বিষাক্ত হেভি কেমিক্যাল লেড, ক্যাডমিয়াম, ক্রোমিয়াম পেয়েছে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ (বিএফএসএ), যা মানবদেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।এসব নিয়মিত সেবনে ক্যান্সারসহ বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্তের মারাত্মক ঝুঁকি রয়েছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি। গত ৩১ অক্টোবর বিএফএসএ’র পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×