দিল্লির দাঙ্গা নিয়ে বাংলাদেশের বিশিষ্টজনদের উদ্বেগ
jugantor
দিল্লির দাঙ্গা নিয়ে বাংলাদেশের বিশিষ্টজনদের উদ্বেগ

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৩:০৮:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশের ১০ বিশিষ্টজন। ছবি: সংগৃহীত
দেশের ১০ বিশিষ্টজন। ছবি: সংগৃহীত

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের লেখক, অধ্যাপক, সাহিত্যিকসহ বিভিন্ন পেশার শীর্ষস্থানীয়রা। 

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক যৌথ বিবৃতিতে তারা এ উদ্বেগের কথা জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা বন্ধুপ্রতিম পড়শি ও মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সহায়তাকারী পরীক্ষিত বন্ধুরাষ্ট্র ভারতের এহেন দাঙ্গা পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি। একইসঙ্গে এই শঙ্কা প্রকাশ করছি যে, পরিস্থিতি সম্মিলিতভাবে সামাল দিতে না পারলে পার্শ্ববর্তী দেশসমূহে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি হতে পারে, যা এ অঞ্চলের দেশসমূহের শান্তি, গণতন্ত্র, উন্নয়ন ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করবে।

সহিংস পরিস্থিতির দ্রুত অবসানে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে ভারত সরকার ও জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশি লেখক-অধ্যাপক ও সংস্কৃতিকর্মীরা। পাশাপাশি সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প যেন বাংলাদেশে না আসতে পারে, সে জন্য স্বদেশিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশের সংগ্রামী জনগণকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্য সম্মুন্নত রাখতে বিশেষভাবে আহ্বান জানাই। সহিংসতার বিরুদ্ধে সম্প্রীতির সচেতন জাগরণ সব ধর্মান্ধতাকে রুখে দেবে, এ আমাদের বিশ্বাস।

বিবৃতিতে স্বাক্ষরদাতাদের মধ্যে রয়েছেন জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, কলামিস্ট আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী, কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক, অধ্যাপক অনুপম সেন, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি সারোয়ার আলী, মফিদুল হক, জিয়াউদ্দিন তারিক আলী, নাট্যব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, রামেন্দু মজুমদার, মামুনুর রশীদ, নাসির উদ্দীন ইউসুফ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ।

দিল্লির দাঙ্গা নিয়ে বাংলাদেশের বিশিষ্টজনদের উদ্বেগ

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৩:০৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
দেশের ১০ বিশিষ্টজন। ছবি: সংগৃহীত
দেশের ১০ বিশিষ্টজন। ছবি: সংগৃহীত

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের লেখক, অধ্যাপক, সাহিত্যিকসহ বিভিন্ন পেশার শীর্ষস্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক যৌথ বিবৃতিতে তারা এ উদ্বেগের কথা জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা বন্ধুপ্রতিম পড়শি ও মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সহায়তাকারী পরীক্ষিত বন্ধুরাষ্ট্র ভারতের এহেন দাঙ্গা পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি। একইসঙ্গে এই শঙ্কা প্রকাশ করছি যে, পরিস্থিতি সম্মিলিতভাবে সামাল দিতে না পারলে পার্শ্ববর্তী দেশসমূহে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি হতে পারে, যা এ অঞ্চলের দেশসমূহের শান্তি, গণতন্ত্র, উন্নয়ন ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করবে।

সহিংস পরিস্থিতির দ্রুত অবসানে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে ভারত সরকার ও জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশি লেখক-অধ্যাপক ও সংস্কৃতিকর্মীরা। পাশাপাশি সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প যেন বাংলাদেশে না আসতে পারে, সে জন্য স্বদেশিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশের সংগ্রামী জনগণকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্য সম্মুন্নত রাখতে বিশেষভাবে আহ্বান জানাই। সহিংসতার বিরুদ্ধে সম্প্রীতির সচেতন জাগরণ সব ধর্মান্ধতাকে রুখে দেবে, এ আমাদের বিশ্বাস।

বিবৃতিতে স্বাক্ষরদাতাদের মধ্যে রয়েছেন জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, কলামিস্ট আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী, কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক, অধ্যাপক অনুপম সেন, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি সারোয়ার আলী, মফিদুল হক, জিয়াউদ্দিন তারিক আলী, নাট্যব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, রামেন্দু মজুমদার, মামুনুর রশীদ, নাসির উদ্দীন ইউসুফ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বিতর্ক