জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সিলেট আ.লীগ নেতা ফারুক, প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ
jugantor
জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সিলেট আ.লীগ নেতা ফারুক, প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ

  জকিগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি  

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:১২:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

গুরুতর অসুস্থ হয়ে সংকটাপন্ন অবস্থায় জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আইসিউতে আছেন জকিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের দুর্দিনের বারবার কারা নির্যাতিত নেতা ফারুক আহমদ।

গত রোববার রাতে ফারুক হঠাৎ বুকে ব্যাথা ও বমি করে জ্ঞান হারান। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সোমবার তাকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সিলেট নগরীর ইবনে সিনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন তার পিত্তথলিতে পাথর হয়েছে দ্রুত অস্ত্রোপাচার করা লাগবে। এরপর মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় অস্ত্রোপাচার করা হয়। অস্ত্রোপাচারের পর ফারুক আহমদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিউতে রাখা হয়।

বুধবার রাত ১১টার দিকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার বিআরবি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ফারুক আহমদের পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন, তিনি সংকটাপন্ন অবস্থায় জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগ করে নিঃস্ব হওয়া ফারুককে বাঁচাতে তার অবুজ ৩ সন্তানসহ পরিবার পরিজন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, ৮৮ সালের দিকে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে অংশগ্রহণের মাধ্যমে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন জকিগঞ্জ পৌর এলাকার আনন্দপুর গ্রামের ফারুক আহমদ। ৯৬ সালে বিএনপি সরকারের এক তরফা নির্বাচন প্রতিহত করতে গিয়ে বিষ্ফোরক মামলায় একটানা ৫ বছর কারাগারে ছিলেন ফারুক। ১/১১ কেটেছিলো ফেরারী হয়ে। ২০০৯ ও ২০১৪ সালে দুর্নীতি বিরোধী অবস্থান নিয়ে জেলহাজতে ছিলেন।

আওয়ামী রাজনীতিতে শেষ করে দিয়েছেন জীবন যৌবন ও সহায় সম্পত্তি। নিঃস্ব হয়েও ছাড়েননি রাজনীতির মাঠ। দলের মধ্যে রয়েছে ক্লিন ইমেজ। রাজনৈতিক জীবনে তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক, জেলা যুবলীগের সদস্য, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক ছিলেন। বিগত পৌরসভা নির্বাচনে অল্প ভোটে মেয়র পদে পরাজিত হন। আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। দলীয় সুযোগ-সুবিধা বঞ্চিত ফারুক আহমদকে সঙ্কটকালে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে নেতাকর্মীরা প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে যোগাযোগ করা হলে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লোকমান উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ফারুক আহমদের অসুস্থতার খোঁজখবর রাখছি।

সিলেট ৫ আসনের সংসদ সদস্য ড. হাফিজ আহমদ মজুমদার এ প্রসঙ্গে বলেন, ফারুক আহমদের উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসকের সঙ্গে কথা হয়েছে। ত্যাগী এই নেতা সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় শুনে কষ্ট লাগছে।

জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে সিলেট আ.লীগ নেতা ফারুক, প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ

 জকিগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:১২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গুরুতর অসুস্থ হয়ে সংকটাপন্ন অবস্থায় জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আইসিউতে আছেন জকিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের দুর্দিনের বারবার কারা নির্যাতিত নেতা ফারুক আহমদ।

গত রোববার রাতে ফারুক হঠাৎ বুকে ব্যাথা ও বমি করে জ্ঞান হারান। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সোমবার তাকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সিলেট নগরীর ইবনে সিনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন তার পিত্তথলিতে পাথর হয়েছে দ্রুত অস্ত্রোপাচার করা লাগবে। এরপর মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় অস্ত্রোপাচার করা হয়। অস্ত্রোপাচারের পর ফারুক আহমদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিউতে রাখা হয়।

বুধবার রাত ১১টার দিকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার বিআরবি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ফারুক আহমদের পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন, তিনি সংকটাপন্ন অবস্থায় জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগ করে নিঃস্ব হওয়া ফারুককে বাঁচাতে তার অবুজ ৩ সন্তানসহ পরিবার পরিজন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, ৮৮ সালের দিকে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে অংশগ্রহণের মাধ্যমে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন জকিগঞ্জ পৌর এলাকার আনন্দপুর গ্রামের ফারুক আহমদ। ৯৬ সালে বিএনপি সরকারের এক তরফা নির্বাচন প্রতিহত করতে গিয়ে বিষ্ফোরক মামলায় একটানা ৫ বছর কারাগারে ছিলেন ফারুক। ১/১১ কেটেছিলো ফেরারী হয়ে। ২০০৯ ও ২০১৪ সালে দুর্নীতি বিরোধী অবস্থান নিয়ে জেলহাজতে ছিলেন। 

আওয়ামী রাজনীতিতে শেষ করে দিয়েছেন জীবন যৌবন ও সহায় সম্পত্তি। নিঃস্ব হয়েও ছাড়েননি রাজনীতির মাঠ। দলের মধ্যে রয়েছে ক্লিন ইমেজ। রাজনৈতিক জীবনে তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক, জেলা যুবলীগের সদস্য, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক ছিলেন। বিগত পৌরসভা নির্বাচনে অল্প ভোটে মেয়র পদে পরাজিত হন। আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। দলীয় সুযোগ-সুবিধা বঞ্চিত ফারুক আহমদকে সঙ্কটকালে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে নেতাকর্মীরা প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে যোগাযোগ করা হলে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লোকমান উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ফারুক আহমদের অসুস্থতার খোঁজখবর রাখছি। 

সিলেট ৫ আসনের সংসদ সদস্য ড. হাফিজ আহমদ মজুমদার এ প্রসঙ্গে বলেন, ফারুক আহমদের উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসকের সঙ্গে কথা হয়েছে। ত্যাগী এই নেতা সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় শুনে কষ্ট লাগছে।