দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়াচ্ছে বিএনপি সিন্ডিকেট: বাহাউদ্দিন নাছিম
jugantor
দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়াচ্ছে বিএনপি সিন্ডিকেট: বাহাউদ্দিন নাছিম

  জবি প্রতিনিধি  

১০ মার্চ ২০২২, ২০:০৫:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে এবং ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের ইস্যুকে কেন্দ্র করে বিএনপিপন্থী কিছু ব্যবসায়ী দ্রব্যমূল্যের বাজারে অস্থিতিশীলতা তৈরি করছে। এ ছাড়া বিএনপি সিন্ডিকেট খাদ্যদ্রব্য মজুদ রেখে বাজারে সংকট সৃষ্টি করার কারণে দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ আয়োজিত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়ামে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, এক শ্রেণির ব্যবসায়ী খাদ্যদ্রব্য মজুদ করে দাম বাড়িয়ে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। বিএনপি-জামায়াত এক শ্রেণির ব্যবসায়ীদের উসকে দিচ্ছে। বিএনপির স্বার্থ বাস্তবায়নের জন্য এক শ্রেণির ব্যবসায়ী খাদদ্রব্য মজুদ করে, মূল্যবৃদ্ধি করে অধিক মুনাফা ও দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে।

এ সময় আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, দেশপ্রেমী ব্যবসায়ী ভাইদের কাছে আমাদের অনুরোধ থাকবে- আপনারা দেশের স্বার্থে, জনগণের স্বার্থে এসব স্বার্থান্বেষী ব্যবসায়ীদের ব্যাপারে সজাগ থাকবেন। সরকার সজাগ থাকবে, বাজার মনিটরিং করবে।

তিনি ছাত্রলীগকে এ বিষয়ে সর্তক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। যাতে করে মানুষের দুঃখ কষ্ট বাড়িয়ে কোনো স্বার্থান্বেষী মহল লাভবান না হতে পারে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক।

বিশেষ অতিথি হিসেবে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, আইন সম্পাদক অ্যাডভোকেট কাজী নজিবুল্লাহ হিরু, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য এবং সম্মানিত অতিথি হিসেবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ বক্তব্য দেন।

আলোচনা সভার সভাপতিত্ব করেন জবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. ইব্রাহিম ফরাজী। সঞ্চালনা করেন শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম আকতার হোসাইন। অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের নেতা ও জবি শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়াচ্ছে বিএনপি সিন্ডিকেট: বাহাউদ্দিন নাছিম

 জবি প্রতিনিধি 
১০ মার্চ ২০২২, ০৮:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে এবং ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের ইস্যুকে কেন্দ্র করে বিএনপিপন্থী কিছু ব্যবসায়ী দ্রব্যমূল্যের বাজারে অস্থিতিশীলতা তৈরি করছে। এ ছাড়া বিএনপি সিন্ডিকেট খাদ্যদ্রব্য মজুদ রেখে বাজারে সংকট সৃষ্টি করার কারণে দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ আয়োজিত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়ামে এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। 

অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, এক শ্রেণির ব্যবসায়ী খাদ্যদ্রব্য মজুদ করে দাম বাড়িয়ে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। বিএনপি-জামায়াত এক শ্রেণির ব্যবসায়ীদের উসকে দিচ্ছে। বিএনপির স্বার্থ বাস্তবায়নের জন্য এক শ্রেণির ব্যবসায়ী খাদদ্রব্য মজুদ করে, মূল্যবৃদ্ধি করে অধিক মুনাফা ও দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। 

এ সময় আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, দেশপ্রেমী ব্যবসায়ী ভাইদের কাছে আমাদের অনুরোধ থাকবে- আপনারা দেশের স্বার্থে, জনগণের স্বার্থে এসব স্বার্থান্বেষী ব্যবসায়ীদের ব্যাপারে সজাগ থাকবেন। সরকার সজাগ থাকবে, বাজার মনিটরিং করবে।

তিনি ছাত্রলীগকে এ বিষয়ে সর্তক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। যাতে করে মানুষের দুঃখ কষ্ট বাড়িয়ে কোনো স্বার্থান্বেষী মহল লাভবান না হতে পারে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক।

বিশেষ অতিথি হিসেবে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, আইন সম্পাদক অ্যাডভোকেট কাজী নজিবুল্লাহ হিরু, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য এবং সম্মানিত অতিথি হিসেবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ বক্তব্য দেন।

আলোচনা সভার সভাপতিত্ব করেন জবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. ইব্রাহিম ফরাজী। সঞ্চালনা করেন শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম আকতার হোসাইন। অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের নেতা ও জবি শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন