জেলহত্যা দিবসে সরকারি ছুটি ঘোষণার দাবি সোহেল তাজের
jugantor
জেলহত্যা দিবসে সরকারি ছুটি ঘোষণার দাবি সোহেল তাজের

  যুগান্তর রিপোর্ট  

০৪ নভেম্বর ২০১৯, ১০:৫৯:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

জেলহত্যা দিবসে সরকারি ছুটি ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের ছেলে তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ।

রোববার বেলা ১১টার দিকে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ দাবি জানান সাবেক এ স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

সোহলে তাজ লিখেন- ‘তেসরা নভেম্বর জেলহত্যা দিবস রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে সরকারি ছুটির দিন ঘোষণা করা এবং স্কুল-কলেজের পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত করার আহ্বান জানাচ্ছি।

বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী জাতীয় চার নেতার সার্বিক অবদান- ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ছয় দফা, গণঅভ্যুত্থান, সত্তরের নির্বাচন এবং মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাঙালি জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন স্বাধীনতা আগামী প্রজন্মকে অনুপ্রেরণা জোগাবে।

স্কুল-কলেজের পাঠ্যসূচিতে চার নেতার পৃথক এবং বিস্তারিত জীবনী ও অবদান তুলে ধরতে হবে, যাতে করে নতুন প্রজন্ম জানতে পারে যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু তার সঙ্গে রেখেছিলেন যোগ্য ব্যক্তিদের।

যারা তাদের দক্ষতা, যোগ্যতা আর দেশপ্রেম দিয়ে অর্জন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু এবং এ জাতির আস্থা। তেসরা নভেম্বর জেলহত্যা দিবস রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে সরকারি ছুটির দিন ঘোষণা করে বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চার নেতা এবং এই দিনের তাৎপর্য নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরা উচিত।’

জেলহত্যা দিবসে সরকারি ছুটি ঘোষণার দাবি সোহেল তাজের

 যুগান্তর রিপোর্ট 
০৪ নভেম্বর ২০১৯, ১০:৫৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জেলহত্যা দিবসে সরকারি ছুটি ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদের ছেলে তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ।

রোববার বেলা ১১টার দিকে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ দাবি জানান সাবেক এ স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

 সোহলে তাজ লিখেন- ‘তেসরা নভেম্বর জেলহত্যা দিবস রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে সরকারি ছুটির দিন ঘোষণা করা এবং স্কুল-কলেজের পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত করার আহ্বান জানাচ্ছি। 

বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী জাতীয় চার নেতার সার্বিক অবদান- ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ছয় দফা, গণঅভ্যুত্থান, সত্তরের নির্বাচন এবং মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাঙালি জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন স্বাধীনতা আগামী প্রজন্মকে অনুপ্রেরণা জোগাবে। 

স্কুল-কলেজের পাঠ্যসূচিতে চার নেতার পৃথক এবং বিস্তারিত জীবনী ও অবদান তুলে ধরতে হবে, যাতে করে নতুন প্রজন্ম জানতে পারে যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু তার সঙ্গে রেখেছিলেন যোগ্য ব্যক্তিদের। 

যারা তাদের দক্ষতা, যোগ্যতা আর দেশপ্রেম দিয়ে অর্জন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু এবং এ জাতির আস্থা। তেসরা নভেম্বর জেলহত্যা দিবস রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে সরকারি ছুটির দিন ঘোষণা করে বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চার নেতা এবং এই দিনের তাৎপর্য নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরা উচিত।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন