‘পেঁয়াজ ছাড়া রান্নার পক্ষের লোকেরা একটুও পেঁয়াজ খাওয়া কমাননি’

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ১৩:৩০:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক আসিফ নজরুল। ফাইল ছবি

পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করা যায় বলে যারা প্রোপাগান্ডা চালাচ্ছেন তাদের সমালোচনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক আসিফ নজরুল।

তিনি বলেছেন, পেঁয়াজ ছাড়া রান্নার পক্ষের লোকেরা একটুও পেঁয়াজ খাওয়া কমাননি। বরং পেঁয়াজের কেজি ১ হাজার টাকা হলেও তারা কেনার সামর্থ্য রাখেন।

শুক্রবার বিকালে নিজের ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে ঢাবির এই অধ্যাপক এসব কথা বলেন।

আসিফ নজরুল বলেন, ‘যারা বলছেন পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করা যায়, পেঁয়াজ না খেলে কি, তারা ১০০০ টাকা কেজিতেও পেয়াজ কেনার সামর্থ্য রাখেন। এবং আমি বিশ্বাস করি পেঁয়াজ খাওয়া একটুও কমাননি তারা।

তিনি বলেন, ‘সাধারণ মানুষের জন্য কিছু করার মুরোদ নেই, ইচ্ছাও নাই এদের। কিন্তু মানুষের গায়ে ফোসকা পড়ার মতো কথা বলতে তাদের কোনো কার্পণ্য নেই।’

প্রসঙ্গত পেঁয়াজের দামে লাগাম টানা যাচ্ছে না। ভারত থেকে আমদানি বন্ধ ও দেশে ‘সংকট’র অজুহাত দেখিয়ে গত দেড় মাস ধরে প্রায় প্রতিদিনই বাড়ানো হয়েছে এর দাম।

বিশেষ করে গত দুদিনে দাম বেড়েছে হুহু করে। অস্থির হয়ে উঠেছে রাজধানীসহ সারা দেশের পেঁয়াজের বাজার।

রীতিমতো অধিকাংশ মানুষের ক্রয়সীমার বাইরে চলে গেছে নিত্যদিনের এ পণ্যটি।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর খুচরা বাজারে যে দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি ২০০-২২০ টাকা বিক্রি হয়েছে, শুক্রবার সেটি ছিল ২৪০-২৫০ টাকা। অর্থাৎ ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে কেজিতে বেড়েছে ৩০-৪০ টাকা।

ঘটনাপ্রবাহ : পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত