বাংলাদেশকে হারিয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন মিসবাহ
jugantor
বাংলাদেশকে হারিয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন মিসবাহ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৪:৩০:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

বড় আশা নিয়ে মিসবাহ-উল হককে প্রধান কোচ এবং নির্বাচক- একসঙ্গে দুই দায়িত্ব দিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। কিন্তু তার নতুন দায়িত্বের শুরুটা একদমই ভালো হয়নি। ঘরের মাঠে দ্বিতীয় সারির দল শ্রীলংকার কাছে ৩-০ এবং পরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ২-০ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারে মিসবাহর দল। ফলে একরকম কোণঠাসা হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বড্ড বেশি প্রয়োজন ছিল জয়ের। অবশেষে মিসবাহর অধীনে কাঙ্ক্ষিত জয় পেয়েছে পাকিস্তান। বাংলাদেশের বিপক্ষে দেশের মাটিতে ২-০ ব্যবধানে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে তারা। হোয়াইটওয়াশের সুযোগও ছিল। তবে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়ায় সেটি হয়ে ওঠেনি। তবে এ সিরিজ জয়ের সুবাদে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণের আইসিসি র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষেই রয়েছে পাক ব্রিগেড। একই সঙ্গে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন মিসবাহ।

বাংলাদেশকে সিরিজ হারানোর পর সংবাদমাধ্যমে মিসবাহ বলেন, সবাই জয়ের জন্য খেলেন। এ জন্য সবসময় চেষ্টা করেন। এ সিরিজ জয় আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কারণ দেয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছিল। এখন আমরা নিঃশ্বাস নেয়ার সুযোগ পেলাম। এখন বসে দেখতে পারব, কোথায় আমাদের ঘাটতি রয়েছে। সেগুলো শুধরে নিজেদের আরও শক্তিশালী করতে পারব।

তিনি বলেন, চাপ কাটিয়ে উঠতে অনেক কিছুর পেছনে ছুটতে হয়। প্রায়ই সবকিছু একসঙ্গে সামাল দেয়া যায় না। তাই এ সিরিজ জয় আমার, দল এবং তরুণ খেলোয়াড়দের জন্য অনেক ভালো হলো। কারণ এখন আমরা স্থির হয়ে বসতে পারব। সামনের চ্যালেঞ্জের দিকে আরও মনোযোগ দিতে পারব।

টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে বর্তমানে শীর্ষেই অবস্থান করছে পাকিস্তান। কিন্তু এ দলটিই ২০১৯ সালে ৯ ম্যাচ খেলে জয় পায় মাত্র একটিতে। সেই দুঃসময় পেছনে ফেলে টাইগারদের বিপক্ষে সিরিজ জয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস পাক কোচ-নির্বাচকের কণ্ঠে। তার মতে, সিরিজ জয়ের মূল কৃতিত্ব বোলারদের।

মিসবাহ বলেন, আমার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল জয়। কারণ  পর পর কিছু ম্যাচ হেরে গিয়েছিলাম আমরা। আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়াটা অনেক বেশি দরকারি ছিল। এর পেছনে মূল কৃতিত্ব অবশ্যই বোলারদের। আমাদের তরুণ পেসাররা দারুণ বোলিং করেছে। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা ভালো করার কোনো সুযোগই পায়নি। সব মিলিয়ে এটি পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্যই ভালো হলো। যেহেতু সামনেই বিশ্বকাপ।

পাশাপাশি দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার শোয়েব মালিক ও মোহাম্মদ হাফিজের প্রশংসা করেছেন পাক কোচ। তিনি বলেন, এ দুজন আমাদের সিরিজ জিততে সহায়তা করেছে। তাদের দলে নেয়ায় অনেক কথা শুনতে হয়েছিল। এখন আর সেটি থাকবে না। সর্বোপরি অভিজ্ঞ ও তরুণদের নিয়ে আমাদের একটি ভারসাম্যপূর্ণ দল গড়ে উঠেছে।

তথ্যসূত্র: নিউজ১৮।

বাংলাদেশকে হারিয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন মিসবাহ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ জানুয়ারি ২০২০, ০২:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বড় আশা নিয়ে মিসবাহ-উল হককে প্রধান কোচ এবং নির্বাচক- একসঙ্গে দুই দায়িত্ব দিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। কিন্তু তার নতুন দায়িত্বের শুরুটা একদমই ভালো হয়নি। ঘরের মাঠে দ্বিতীয় সারির দল শ্রীলংকার কাছে ৩-০ এবং পরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ২-০ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারে মিসবাহর দল। ফলে একরকম কোণঠাসা হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বড্ড বেশি প্রয়োজন ছিল জয়ের। অবশেষে মিসবাহর অধীনে কাঙ্ক্ষিত জয় পেয়েছে পাকিস্তান। বাংলাদেশের বিপক্ষে দেশের মাটিতে ২-০ ব্যবধানে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে তারা। হোয়াইটওয়াশের সুযোগও ছিল। তবে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়ায় সেটি হয়ে ওঠেনি। তবে এ সিরিজ জয়ের সুবাদে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণের আইসিসি র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষেই রয়েছে পাক ব্রিগেড। একই সঙ্গে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন মিসবাহ।

বাংলাদেশকে সিরিজ হারানোর পর সংবাদমাধ্যমে মিসবাহ বলেন, সবাই জয়ের জন্য খেলেন। এ জন্য সবসময় চেষ্টা করেন। এ সিরিজ জয় আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কারণ দেয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছিল। এখন আমরা নিঃশ্বাস নেয়ার সুযোগ পেলাম। এখন বসে দেখতে পারব, কোথায় আমাদের ঘাটতি রয়েছে। সেগুলো শুধরে নিজেদের আরও শক্তিশালী করতে পারব।

তিনি বলেন, চাপ কাটিয়ে উঠতে অনেক কিছুর পেছনে ছুটতে হয়। প্রায়ই সবকিছু একসঙ্গে সামাল দেয়া যায় না। তাই এ সিরিজ জয় আমার, দল এবং তরুণ খেলোয়াড়দের জন্য অনেক ভালো হলো। কারণ এখন আমরা স্থির হয়ে বসতে পারব। সামনের চ্যালেঞ্জের দিকে আরও মনোযোগ দিতে পারব।

টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে বর্তমানে শীর্ষেই অবস্থান করছে পাকিস্তান। কিন্তু এ দলটিই ২০১৯ সালে ৯ ম্যাচ খেলে জয় পায় মাত্র একটিতে। সেই দুঃসময় পেছনে ফেলে টাইগারদের বিপক্ষে সিরিজ জয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস পাক কোচ-নির্বাচকের কণ্ঠে। তার মতে, সিরিজ জয়ের মূল কৃতিত্ব বোলারদের।

মিসবাহ বলেন, আমার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল জয়। কারণ পর পর কিছু ম্যাচ হেরে গিয়েছিলাম আমরা। আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়াটা অনেক বেশি দরকারি ছিল। এর পেছনে মূল কৃতিত্ব অবশ্যই বোলারদের। আমাদের তরুণ পেসাররা দারুণ বোলিং করেছে। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা ভালো করার কোনো সুযোগই পায়নি। সব মিলিয়ে এটি পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্যই ভালো হলো। যেহেতু সামনেই বিশ্বকাপ।

পাশাপাশি দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার শোয়েব মালিক ও মোহাম্মদ হাফিজের প্রশংসা করেছেন পাক কোচ। তিনি বলেন, এ দুজন আমাদের সিরিজ জিততে সহায়তা করেছে। তাদের দলে নেয়ায় অনেক কথা শুনতে হয়েছিল। এখন আর সেটি থাকবে না। সর্বোপরি অভিজ্ঞ ও তরুণদের নিয়ে আমাদের একটি ভারসাম্যপূর্ণ দল গড়ে উঠেছে।

তথ্যসূত্র: নিউজ১৮।