৮ বছর আগেই একজন লিখেছিলেন, কোবির মৃত্যু হবে হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায়

  স্পোর্টস ডেস্ক ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ১৬:৩৫:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

একি কাকতালীয় নাকি অলৌকিক? আট বছর আগে কীভাবে একজন বলে দেন, যুক্তরাষ্ট্রের বাস্কেটবল খেলোয়াড় কোবি ব্রায়ান্টের মৃত্যু হবে হেলিকপ্টার ভেঙে পড়ে! শেষ পর্যন্ত তা-ই হলো।

গত ২৬ জানুয়ারি সকালে মর্মান্তিক হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত হন কোবি। এর আগে ২০১২ সালের ১৪ নভেম্বর সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে নোসো লেখেন, হেলিকপ্টার ভেঙে পড়ে মারা যাবেন তিনি। স্বভাবতই মার্কিন বাস্কেটবল কিংবদন্তির মৃত্যুর পর পোস্টটি সামনে আসায় সোশ্যাল অ্যাক্টিভিস্টদের গা শিউরে উঠেছে।

ন্যাশনাল বাস্কেটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এনবিএ) বিখ্যাত খেলোয়াড় ছিলেন কোবি। মাত্র ৪১ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। আকস্মিক দুর্ঘটনার দিন কুয়াশাচ্ছন্ন ক্যালিফোর্নিয়ার কালাবাসাসে পাহাড়ের চূড়ায় ধাক্কা খায় তার হেলিকপ্টার। দ্রুত নিচে ভেঙে পড়ে সেটি।

কোবির সঙ্গে ছিলেন নিজের ১৩ বছরের মেয়ে জিয়ানা মারি অনোরে ব্রায়ান্ট, বাস্কেটবল কোচ জন আলতোবেল্লি, তার স্ত্রী কেরি, মেয়ে অ্যালিসাসহ আরো আটজন সঙ্গী। তন্মধ্যে দুজন কিশোরী খেলোয়াড়ও ছিলেন। ভয়াবহ ওই দুর্ঘটনায় সবাই মারা যান।

এ ঘটনায় রোববার সকাল থেকে ক্রীড়াবিশ্বে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। এরই মধ্যে আচমকা সামনে এলো আট বছর আগের সেই টুইট। পোস্টটি দেখে একেকজনের একেকরকম প্রশ্ন জেগেছে।

কীভাবে এমনটা হলো? এটা কি নকল ক্যাপশন? টুইটারের কারসাজি? নাকি সত্যিই এরকমভাবে মিলে গেছে দুটি ঘটনা? এসবের জবাবও একে অপরকে দিয়েছেন সোশ্যাল অ্যাক্টিভিস্টরা।

একজন ব্যাখ্যা করেছেন, টুইটারে কোনো পোস্টের তারিখ কারসাজি করে পিছিয়ে দেয়া যায় না। অত আগের একটি পোস্ট পরবর্তীকালে কোনোভাবে সম্পাদনা করা যায় না।

তা হলে কেমন করে এটি হলো? শেষ পর্যন্ত প্রশ্নটি থেকেই যাচ্ছে।

তথ্যসূত্র:আজকাল।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত