‘ক্রিকেট আর ভদ্রলোকের খেলা নেই’

  স্পোর্টস ডেস্ক ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩:২৯ | অনলাইন সংস্করণ

ফাইনালের সেই ঘটনা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন কপিল

দক্ষিণ আফ্রিকায় সদ্য অনুষ্ঠিত যুব ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচের শেষে বাংলাদেশ ও ভারত দলের খেলোয়াড়দের বিবাদে জড়ানোর ঘটনা নিয়ে ভারতীয় বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক কপিল দেব বলেছেন, ‘ক্রিকেট এখন আর আর ভদ্রলোকের খেলা নেই। ম্যাচ হেরে যাওয়ার পর মাঠে হাতাহাতি করার ঘটনাও ঘটে এখন ক্রিকেটে।’

বাংলাদেশের পতাকা ছেড়ার ঘটনায় ভারতীয় তরুণ ক্রিকেটারদের শাস্তি চেয়েছেন তিনি। এ জন্য ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) কাছে আর্জি জানিয়েছেন।

শুধু তাই নয়, এসব তরুণ ক্রিকেটারদের আদব শেখাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বিসিসিআই আহ্বান জানিয়েছেন কপিল।

ক্রিকেট নিয়ে আলোচিত এক অনুষ্ঠানে বৃহস্পতিবার কপিল ক্ষোভ ঝাড়েন, ‘কে বলেছে ক্রিকেট ভদ্রলোকের খেলা? ক্রিকেট আর ভদ্রলোকের খেলা নেই, আমরা যখন খেলতাম তখন ছিল।’

তিনি বলেন, ভারতীয় যেসব ক্রিকেটার মাঠে এ রকম অসদাচরণ করেছেন, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেখতে চাই আমি। আশা করি, বিসিসিআই কঠোর পদক্ষেপ নেবে।

এর ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, ‘ওইদিন ভারতীয় ক্রিকেটাররা যা করেছে তা অগ্রহণযোগ্য ও অমার্জনীয়। আগ্রাসী মনোভাবকে আমি স্বাগত জানাই। কিন্তু হতে হবে খেলায়। খেলার বাইরে নয়। ওদের জোধাতে হবে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের হেয় করার খেলাকে ক্রিকেট বলে না। তাই এই বয়স থেকেই বিধ্বংসী মানসিকতা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।’

কপিল যোগ করেন, ‘ওদের মধ্যে সেদিন যা হয়েছে তা ক্রিকেটের জন্য ভয়ংকর। ক্রিকেট বোর্ডের উচিত কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করে এমন দৃষ্টান্ত উপস্থাপন করা যেন আগামী দিনে এমন ঘটনা আর না ঘটে।’

উল্লেখ্য, গত ৯ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ আফ্রিকার পোচেফস্ট্রুমে ফাইনালে জিতে প্রথম বিশ্বকাপ জয়ে বুনো উল্লাসে মেতে ওঠেন টাইগাররা। মাঠের বাইরের ক্রিকেটাররাও এতে যোগ দেন। এ সময় মাঠে বাগবিতণ্ডা ও হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন ভারত ও বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার।

এ ঘটনায় বাংলাদেশের তৌহিদ হৃদয়, শামিম হোসেন ও রাকিবুল হাসান এবং ভারতের আকাশ সিং ও রবি বিষ্ণোইকে শাস্তি দিয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা (আইসিসি)।

ঘটনাপ্রবাহ : যুব বিশ্বকাপ ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×