অন্য দেশ হলে শ্রীলংকা সিরিজেই আমাকে বিবেচনা করত: আশরাফুল
jugantor
অন্য দেশ হলে শ্রীলংকা সিরিজেই আমাকে বিবেচনা করত: আশরাফুল

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩:১৯:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ


ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় ক্রিকেট থেকে ছিটকে গেছেন বাংলাদেশ দলের প্রথম সুপারস্টার মোহাম্মদ আশরাফুল।

তবে শাস্তি ভোগ শেষে আবারও জাতীয় দলে ফেরার স্বপ্ন দেখেন এই ক্রিকেটার। এ জন্য শ্রীলংকা সিরিজকে লক্ষ্য রেখে মানসিক প্রস্তুতি সেরে রেখেছিলেন তিনি।

কিন্তু সেই স্বপ্ন, স্বপ্নই রয়ে গেল। আশার ফুল ফুটল না আশরাফুলের। এমনকি অনুশীলন বা প্রাথমিক স্কোয়াডেও ডাক পাননি তিনি।

বিষয়টিতে অনেকটা ক্ষোভের সুরে তিনি জানালেন, শ্রীলংকা সিরিজে তাকে বিবেচনা করা যেত। কিন্তু দেশের ‘ক্রিকেট সংস্কৃতির কারণেই’ তা হয়নি।

এমনটিই মনে করছেন বাংলাদেশ দলের সাবেক এ অধিনায়ক।

নিজের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে বৃহস্পতিবার ভক্তদের সঙ্গে লাইভ প্রশ্নোত্তর পর্বে শ্রীলংকা সিরিজ নিয়ে আলোচনার একপর্যায়ে এভাবে আক্ষেপ ঝরে আশরাফুলের কণ্ঠে।

তিনি বলেন, ‘আমাদের এই কালচারটা হয়নি যে, ৩৬ বছরের কোনো ক্রিকেটারকে নিয়ে চিন্তা করবে। অন্য দেশ হলে শ্রীলংকা সিরিজেই হয়তো আমাকে চিন্তা করত। শ্রীলংকার সঙ্গে আমার পাঁচটা সেঞ্চুরি আছে। আর করোনার কারণে এই ৬-৭ মাস ক্রিকেট খেলা হয়নি। সবাই তো শূন্য থেকেই শুরু করেছে।’

টেস্ট ইতিহাসের সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ান বোঝাতে চাইছেন, শ্রীলংকার বিপক্ষে অতীত রেকর্ড তার কথাই বলছে। আর রানিং পারফরম্যান্সের বিষয়টিও নেই এখানে। এই সিরিজে তাকে নেয়া যেতেই পারে।

এর পর আশরাফুল বলেন, ‘আমাকে হয়তোবা ঘরোয়া ক্রিকেটে এক্সট্রা-অর্ডিনারি পারফরম্যান্স করেই আসতে হবে। সেটির জন্য আমি তৈরি আছি। সবাই দোয়া করবেন যেন আমি সেই জায়গায় সুযোগ পাই। ওই জায়গায় সুযোগ না পেলে আবার কঠিন। সাত বছর জাতীয় দলের বাইরে আমি। তার পরও যেভাবে দেশে এবং দেশের বাইরের মানুষেরা আমাকে এখনও সাপোর্ট করে যাচ্ছেন, আমি নিজেকে খুব ভাগ্যবান মনে করি। আর সে কারণেই এখনও আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি। ’

অন্য দেশ হলে শ্রীলংকা সিরিজেই আমাকে বিবেচনা করত: আশরাফুল

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ


ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় ক্রিকেট থেকে ছিটকে গেছেন বাংলাদেশ দলের প্রথম সুপারস্টার মোহাম্মদ আশরাফুল।

তবে শাস্তি ভোগ শেষে আবারও জাতীয় দলে ফেরার স্বপ্ন দেখেন এই ক্রিকেটার। এ জন্য শ্রীলংকা সিরিজকে লক্ষ্য রেখে মানসিক প্রস্তুতি সেরে রেখেছিলেন তিনি। 

কিন্তু সেই স্বপ্ন, স্বপ্নই রয়ে গেল। আশার ফুল ফুটল না আশরাফুলের।  এমনকি অনুশীলন বা প্রাথমিক স্কোয়াডেও ডাক পাননি তিনি। 

বিষয়টিতে অনেকটা ক্ষোভের সুরে তিনি জানালেন, শ্রীলংকা সিরিজে তাকে বিবেচনা করা যেত। কিন্তু দেশের ‘ক্রিকেট সংস্কৃতির কারণেই’ তা হয়নি।  

এমনটিই মনে করছেন বাংলাদেশ দলের সাবেক এ অধিনায়ক।

নিজের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে বৃহস্পতিবার ভক্তদের সঙ্গে লাইভ প্রশ্নোত্তর পর্বে শ্রীলংকা সিরিজ নিয়ে আলোচনার একপর্যায়ে এভাবে আক্ষেপ ঝরে আশরাফুলের কণ্ঠে।

তিনি বলেন, ‘আমাদের এই কালচারটা হয়নি যে, ৩৬ বছরের কোনো ক্রিকেটারকে নিয়ে চিন্তা করবে। অন্য দেশ হলে শ্রীলংকা সিরিজেই হয়তো আমাকে চিন্তা করত। শ্রীলংকার সঙ্গে আমার পাঁচটা সেঞ্চুরি আছে। আর করোনার কারণে এই ৬-৭ মাস ক্রিকেট খেলা হয়নি। সবাই তো শূন্য থেকেই শুরু করেছে।’

টেস্ট ইতিহাসের সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ান বোঝাতে চাইছেন, শ্রীলংকার বিপক্ষে অতীত রেকর্ড তার কথাই বলছে। আর রানিং পারফরম্যান্সের বিষয়টিও নেই এখানে। এই সিরিজে তাকে নেয়া যেতেই পারে।

এর পর আশরাফুল বলেন, ‘আমাকে হয়তোবা ঘরোয়া ক্রিকেটে এক্সট্রা-অর্ডিনারি পারফরম্যান্স করেই আসতে হবে। সেটির জন্য আমি তৈরি আছি। সবাই দোয়া করবেন যেন আমি সেই জায়গায় সুযোগ পাই। ওই জায়গায় সুযোগ না পেলে আবার কঠিন। সাত বছর জাতীয় দলের বাইরে আমি। তার পরও যেভাবে দেশে এবং দেশের বাইরের মানুষেরা আমাকে এখনও সাপোর্ট করে যাচ্ছেন, আমি নিজেকে খুব ভাগ্যবান মনে করি।  আর সে কারণেই এখনও আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি। ’