ভিটিএস সেবা দেয়ার অনুমোদন পেল ইনফোলিংক

  আইটি ডেস্ক ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৫:৫৫:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

গাড়ির গতিবিধি নজরদারি সেবা বা ভেহিক্যাল ট্র্যাকিং সিস্টেম (ভিটিএস) সেবা দেয়ার অনুমোদন পেয়েছে দেশিয় প্রযুক্তি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ইনফোলিংক লিমিটেড।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে আবেদনের প্রেক্ষিতে সম্প্রতি বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এই সেবা পরিচালনার অনুমতি দেয়।

এই বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ইনফোলিংক ট্র্যাকার নামের এই সার্ভিস প্লাটফরম কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স (এআই) প্রযুক্তি ব্যবহার করে গাড়ির অবস্থান বের করার পাশাপাশি গাড়ির এক স্থান থেকে অন্য স্থানের দূরত্ব নিরূপণ, ট্রিপ রিপোর্ট এবং ওভারস্পিড রিপোর্টগুলোও গাড়ির মালিককে সরবরাহ করবে।

নিজেদের ডিভাইস এবং প্লাটফরম সম্পর্কে ইনফোলিংক লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিফ আহমেদ বলেন, আমরা পার্সোনাল ট্র্যাকার আর প্লাগ এন্ড প্লে ডিভাইসগুলো নিয়ে বেশি ফোকাস করছি। আমাদের মনে হয় যেহেতু এই ট্র্যাকিং টেকনোলজি জিনিসটাই আমাদের দেশে নতুন, এখানে ইজি সল্যুশন দিয়ে শুরু করা ভালো। তাছাড়াও অনেকেই তাদের শখের গাড়ির তার কাটা-কাটির ঝামেলাতে যেতে চান না। তাই আমরা সহজেই ব্যবহারযোগ্য প্লাগ এন্ড প্লে ডিভাইসের দিকে বেশি মনযোগী। আমাদের প্লাটফরমের সাহায্যে গাড়ির পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের সাহায্যে যে কোনো কোম্পানি চাইলে খুব কম খরচে তাদের কর্মীদের মনিটর করতে পারবে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের আমদানি করা ডিভাইসগুলোর মান নিয়ন্ত্রণের জন্য নিজস্ব আরএন্ডডি এবং কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স টিম আছে। আমরা প্রতিটা ডিভাইস কিউএ পাস করেই ডেলিভারি করব। এছাড়াও কোনো সমস্যা খুঁজে পেলে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ডিভাইসটি রিপ্লেস করার ব্যবস্থাও থাকবে।

সাকিফ আহমেদ আরো বলেন, ভিটিএস ব্যবসাটা পুরোটাই গ্রাহক সেবা দাতা ব্যবসা। তাই গ্রাহক সন্তুষ্টি ঠিক রাখার জন্য ৩৬৫ দিনই আমারা ২৪/৭ সেবা প্রদানের ব্যবস্থা রেখেছি। আমাদের আইএসপি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান আছে। সারাবছর এই ধরনের গ্রাহকসেবা দিতে পারব আমরা। এছাড়াও আমাদের নিজস্ব কল সেন্টার রয়েছে যেখান থেকে আমরা ২৪ ঘন্টাই ফোনের মাধ্যমে আমাদের সেবা নিশ্চিত করছি।

প্রসঙ্গত, ইনফোলিংক লিমিটেড ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে অংশীদার হতে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু প্রযুক্তিভিত্তিক সেবা প্রদান করে যাচ্ছে। ২০১১ সাল থেকে নিরবিচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সেবার পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটি এবছরেই তাদের আইপি টিভি সেবা চালুর অনুমোদন পেয়েছে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত