করোনার কারণে নিয়ন্ত্রিত অভিনয়ে অপর্ণা
jugantor
করোনার কারণে নিয়ন্ত্রিত অভিনয়ে অপর্ণা

  আনন্দনগর প্রতিবেদক  

২৬ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

অপর্ণা ঘোষ

করোনাভাইরাসের কারণে গত মার্চ মাসের তৃতীয় সপ্তাহ থেকেই কাজ বন্ধ করেছিলেন অপর্ণা ঘোষ। চট্টগাম বেড়ে ওঠা এ অভিনেত্রী রাজধানী ঢাকার বাসায় স্বেচ্ছাবন্দি ছিলেন এতদিন। পরিস্থিতি যতই জটিল হতে থাকে তিনিও ততই পিছিয়ে দিতে থাকেন শুটিংয়ে ফেরার ক্ষণ।

দীর্ঘ চার মাস অপেক্ষার পর সম্প্রতি অভিনয়ে ফিরেছেন। তবে নির্দিষ্ট সময়ের বিরতি দিয়ে তিনটি নাটকের শুটিং শেষ করেছেন। প্রতিটি নাটকই ঈদে প্রচার হবে। নাটকগুলো হল শরাফ আহমেদ জীবনের ‘মেঘের আড়ালে রোদ’, সাগর জাহানের ‘নসু ভিলেন আসল ভিলেন’ এবং শাফায়েত মনসুর রানার ‘প্রেসার কুকার’।

এগুলোতে অভিনয় প্রসঙ্গে অপর্ণা বলেন, ‘আসলে রোজার ঈদের সময় থেকেই কাজের প্রস্তাব পাচ্ছিলাম নিয়মিত; কিন্তু তখন কাজের পরিবেশ সহজ ছিল না। তবে রোজার ঈদের পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ শুরুর ঘোষণা আসার পর মনে কিছুটা আস্থা তৈরি হয়। অনেকেই যখন কাজ শুরু করেন তখন তাদের কাছে থেকে কাজের পরিবেশ সম্পর্কে অবহিত হয়েই স্বল্প পরিসরে অভিনয়ে ফিরেছি। আমারও নিয়মিত কাজ করতে ইচ্ছা করে; কিন্তু সবকিছুর আগে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে জীবন। তাই এটিকে গুরুত্ব দিয়েই সব পরিকল্পনা সাজানোর চেষ্টা করি। ঈদের পর যদি করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হয় তাহলে তখন থেকে আমিও নিয়মিত কাজ করব।’ নাটকের পাশাপাশি সিনেমাতেও নিয়মিত অভিনয় করেন এ অভিনেত্রী। রুমীর পরিচালনায় ‘অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া’ নামের সরকারি অনুদানের সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন চলতি বছরের শুরুর দিকে। লকডাউন শুরু হওয়ার আগে দুই দিন শুটিংও হয়েছিল সিনেমাটির; কিন্তু পরে করোনার কারণে এর কাজ বন্ধ হয়ে যায়।

করোনার কারণে নিয়ন্ত্রিত অভিনয়ে অপর্ণা

 আনন্দনগর প্রতিবেদক 
২৬ জুলাই ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
অপর্ণা ঘোষ
অপর্ণা ঘোষ

করোনাভাইরাসের কারণে গত মার্চ মাসের তৃতীয় সপ্তাহ থেকেই কাজ বন্ধ করেছিলেন অপর্ণা ঘোষ। চট্টগাম বেড়ে ওঠা এ অভিনেত্রী রাজধানী ঢাকার বাসায় স্বেচ্ছাবন্দি ছিলেন এতদিন। পরিস্থিতি যতই জটিল হতে থাকে তিনিও ততই পিছিয়ে দিতে থাকেন শুটিংয়ে ফেরার ক্ষণ।

দীর্ঘ চার মাস অপেক্ষার পর সম্প্রতি অভিনয়ে ফিরেছেন। তবে নির্দিষ্ট সময়ের বিরতি দিয়ে তিনটি নাটকের শুটিং শেষ করেছেন। প্রতিটি নাটকই ঈদে প্রচার হবে। নাটকগুলো হল শরাফ আহমেদ জীবনের ‘মেঘের আড়ালে রোদ’, সাগর জাহানের ‘নসু ভিলেন আসল ভিলেন’ এবং শাফায়েত মনসুর রানার ‘প্রেসার কুকার’।

এগুলোতে অভিনয় প্রসঙ্গে অপর্ণা বলেন, ‘আসলে রোজার ঈদের সময় থেকেই কাজের প্রস্তাব পাচ্ছিলাম নিয়মিত; কিন্তু তখন কাজের পরিবেশ সহজ ছিল না। তবে রোজার ঈদের পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ শুরুর ঘোষণা আসার পর মনে কিছুটা আস্থা তৈরি হয়। অনেকেই যখন কাজ শুরু করেন তখন তাদের কাছে থেকে কাজের পরিবেশ সম্পর্কে অবহিত হয়েই স্বল্প পরিসরে অভিনয়ে ফিরেছি। আমারও নিয়মিত কাজ করতে ইচ্ছা করে; কিন্তু সবকিছুর আগে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে জীবন। তাই এটিকে গুরুত্ব দিয়েই সব পরিকল্পনা সাজানোর চেষ্টা করি। ঈদের পর যদি করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হয় তাহলে তখন থেকে আমিও নিয়মিত কাজ করব।’ নাটকের পাশাপাশি সিনেমাতেও নিয়মিত অভিনয় করেন এ অভিনেত্রী। রুমীর পরিচালনায় ‘অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া’ নামের সরকারি অনুদানের সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন চলতি বছরের শুরুর দিকে। লকডাউন শুরু হওয়ার আগে দুই দিন শুটিংও হয়েছিল সিনেমাটির; কিন্তু পরে করোনার কারণে এর কাজ বন্ধ হয়ে যায়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন