পূর্ণাঙ্গ বিনোদন চ্যানেল হচ্ছে বিটিভি ওয়ার্ল্ড
jugantor
পূর্ণাঙ্গ বিনোদন চ্যানেল হচ্ছে বিটিভি ওয়ার্ল্ড

  সোহেল আহসান  

০৩ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশের জন্ম থেকেই রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল হিসাবে দর্শকের কাছে সমাদৃত হয়ে আসছে বিটিভি। স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলের পথচলা শুরু হওয়ার আগে দেশীয় শিল্প সংস্কৃতি তুলে ধরার একমাত্র টিভি চ্যানেল হিসাবে বিটিভির গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায় রয়েছে।

তখন দেশের বিনোদন কিংবা অন্যান্য বিষয়ে বিটিভির অবদান ছিল সময়োপযোগী। কিন্তু একুশ শতকের শুরুর দিকে যখন বেসরকারি টিভি স্টেশন সম্প্রচারে আসে তখন নিত্য নতুন বিষয়কে মানুষের সামনে তুলে ধরতে শুরু করে এসব চ্যানেল। এ ক্ষেত্রে বিটিভি কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও নিজস্ব স্বকীয়তা বজায় রেখে অনুষ্ঠান প্রচার করতে থাকে চ্যানেলটি।

সময়ের বিবর্তনে এখন বেসরকারি টিভি চ্যানেলগুলোও বাহারি অনুষ্ঠানের পসরা সাজাচ্ছে, তাতে করে দর্শকও আকৃষ্ট হচ্ছে সেসব অনুষ্ঠানের প্রতি। তবে বিটিভি একটা সময় বেসরকারি চ্যানেলগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়লেও সাম্প্রতিক সময়ে আবারও ঘুরে দাঁড়িয়েছে। নিত্য নতুন অনুষ্ঠান, সময়োপযোগী ভাবনার বাস্তবায়ন করছে। বিশেষ করে করোনাকালে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত অনুষ্ঠানসহ জনগুরুত্বপূর্ণ অনেক বিষয় নিয়ে অনুষ্ঠান প্রচার করেছে চ্যানেলটি। প্রযুক্তিগত দিক থেকেও বিটিভির উত্তরণ ঘটেছে। বিদায়ী বছরের শেষ ভাগে এসে এ টিভি চ্যানেলটি এইচডিতে রূপান্তরিত হয়েছে। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও যুক্ত হয়েছে। তৈরি হয়েছে নিজস্ব মোবাইল অ্যাপ। এতে করে শুধু দেশেই নয়, বিশ্বের যে কোনো জায়গা থেকে বিটিভি অ্যাপসের সুবিধা ভোগ করা যাবে বলে জানিয়েছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়া প্রক্রিয়াধীন আছে আরও বেশ কিছু নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের।

বর্তমানে বিটিভির তিনটি চ্যানেল সম্প্রচারে রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম একটি চ্যানেল বিটিভি ওয়ার্ল্ড। দীর্ঘদিন ধরে বিটিভি এবং বিটিভি ওয়ার্ল্ডে একই কনটেন্ট সম্প্রচারিত হয়। সম্প্রতি বিটিভি কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিটিভি ওয়ার্ল্ড চ্যানেলটিকে পূর্ণাঙ্গ বিনোদন চ্যানেলে রূপান্তরিত করার। এ চ্যানেল নাটক, গান, সিনেমা, ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান, রিয়েলিটি শোসহ প্রাসঙ্গিক অনুষ্ঠান সম্প্রচারিত হবে এবং এটি একটি

আলাদা চ্যানেল হিসাবেই পরিচালিত হবে। এ প্রসঙ্গে বিটিভির পরিচালক (অনুষ্ঠান ও পরিকল্পনা) জগদীষ এষ বলেন, ‘বিটিভি এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি সক্রিয়। অনুষ্ঠানেও এসেছে বৈচিত্র্য। দর্শকও বৃদ্ধি পেয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী মহোদয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী বিটিভির উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। সেই নির্দেশনার একটি হলো বিটিভি ওয়ার্ল্ডকে বিনোদন চ্যানেলে রূপান্তর করা। আমরা এ নিয়ে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম শুরু করেছি। নাটক, গান কিংবা অন্যান্য বিষয়ে আমরা যে কিছুটা পিছিয়ে পড়েছিলাম, সেটির উন্নয়ন ঘটাতে নতুন পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি। দেশে এখন কোনো পূর্ণাঙ্গ বিনোদন চ্যানেল নেই। তাই পূর্ণাঙ্গ একটি বিনোদন চ্যানেল হিসাবে বিটিভি ওয়ার্ল্ডকে নতুন করে সাজাতে চাই। আশা করছি যাবতীয় কাজ শেষ করে অল্প সময়ের মধ্যেই চ্যানেলটি নতুন রূপে দর্শকদের সামনে উপস্থাপন করতে পারব।’

পূর্ণাঙ্গ বিনোদন চ্যানেল হচ্ছে বিটিভি ওয়ার্ল্ড

 সোহেল আহসান 
০৩ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশের জন্ম থেকেই রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল হিসাবে দর্শকের কাছে সমাদৃত হয়ে আসছে বিটিভি। স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলের পথচলা শুরু হওয়ার আগে দেশীয় শিল্প সংস্কৃতি তুলে ধরার একমাত্র টিভি চ্যানেল হিসাবে বিটিভির গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায় রয়েছে।

তখন দেশের বিনোদন কিংবা অন্যান্য বিষয়ে বিটিভির অবদান ছিল সময়োপযোগী। কিন্তু একুশ শতকের শুরুর দিকে যখন বেসরকারি টিভি স্টেশন সম্প্রচারে আসে তখন নিত্য নতুন বিষয়কে মানুষের সামনে তুলে ধরতে শুরু করে এসব চ্যানেল। এ ক্ষেত্রে বিটিভি কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও নিজস্ব স্বকীয়তা বজায় রেখে অনুষ্ঠান প্রচার করতে থাকে চ্যানেলটি।

সময়ের বিবর্তনে এখন বেসরকারি টিভি চ্যানেলগুলোও বাহারি অনুষ্ঠানের পসরা সাজাচ্ছে, তাতে করে দর্শকও আকৃষ্ট হচ্ছে সেসব অনুষ্ঠানের প্রতি। তবে বিটিভি একটা সময় বেসরকারি চ্যানেলগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়লেও সাম্প্রতিক সময়ে আবারও ঘুরে দাঁড়িয়েছে। নিত্য নতুন অনুষ্ঠান, সময়োপযোগী ভাবনার বাস্তবায়ন করছে। বিশেষ করে করোনাকালে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত অনুষ্ঠানসহ জনগুরুত্বপূর্ণ অনেক বিষয় নিয়ে অনুষ্ঠান প্রচার করেছে চ্যানেলটি। প্রযুক্তিগত দিক থেকেও বিটিভির উত্তরণ ঘটেছে। বিদায়ী বছরের শেষ ভাগে এসে এ টিভি চ্যানেলটি এইচডিতে রূপান্তরিত হয়েছে। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও যুক্ত হয়েছে। তৈরি হয়েছে নিজস্ব মোবাইল অ্যাপ। এতে করে শুধু দেশেই নয়, বিশ্বের যে কোনো জায়গা থেকে বিটিভি অ্যাপসের সুবিধা ভোগ করা যাবে বলে জানিয়েছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়া প্রক্রিয়াধীন আছে আরও বেশ কিছু নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের।

বর্তমানে বিটিভির তিনটি চ্যানেল সম্প্রচারে রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম একটি চ্যানেল বিটিভি ওয়ার্ল্ড। দীর্ঘদিন ধরে বিটিভি এবং বিটিভি ওয়ার্ল্ডে একই কনটেন্ট সম্প্রচারিত হয়। সম্প্রতি বিটিভি কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিটিভি ওয়ার্ল্ড চ্যানেলটিকে পূর্ণাঙ্গ বিনোদন চ্যানেলে রূপান্তরিত করার। এ চ্যানেল নাটক, গান, সিনেমা, ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান, রিয়েলিটি শোসহ প্রাসঙ্গিক অনুষ্ঠান সম্প্রচারিত হবে এবং এটি একটি

আলাদা চ্যানেল হিসাবেই পরিচালিত হবে। এ প্রসঙ্গে বিটিভির পরিচালক (অনুষ্ঠান ও পরিকল্পনা) জগদীষ এষ বলেন, ‘বিটিভি এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি সক্রিয়। অনুষ্ঠানেও এসেছে বৈচিত্র্য। দর্শকও বৃদ্ধি পেয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী মহোদয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী বিটিভির উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। সেই নির্দেশনার একটি হলো বিটিভি ওয়ার্ল্ডকে বিনোদন চ্যানেলে রূপান্তর করা। আমরা এ নিয়ে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম শুরু করেছি। নাটক, গান কিংবা অন্যান্য বিষয়ে আমরা যে কিছুটা পিছিয়ে পড়েছিলাম, সেটির উন্নয়ন ঘটাতে নতুন পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি। দেশে এখন কোনো পূর্ণাঙ্গ বিনোদন চ্যানেল নেই। তাই পূর্ণাঙ্গ একটি বিনোদন চ্যানেল হিসাবে বিটিভি ওয়ার্ল্ডকে নতুন করে সাজাতে চাই। আশা করছি যাবতীয় কাজ শেষ করে অল্প সময়ের মধ্যেই চ্যানেলটি নতুন রূপে দর্শকদের সামনে উপস্থাপন করতে পারব।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন