পোরশা মাদ্রাসার শাইখুল হাদিসকে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ
jugantor
পোরশা মাদ্রাসার শাইখুল হাদিসকে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

  নওগাঁ প্রতিনিধি  

২৩ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নওগাঁর পোরশা জামিয়া আল-আরাবিয়া দারুল হেদায়া মাদ্রাসার শাইখুল হাদিস মাওলানা আবদুল্লাহ চৌধুরীকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, বিএনপির কিছু নেতাকর্মী লাঞ্ছিত করায় তাদের বিচারের দাবিতে স্থানীয় জনগণ ও বিভিন্ন মাদ্রাসার সহস্রাধিক ছাত্র-শিক্ষক সড়ক অবরোধ করেন। সোমবার সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত তারা শিশা-নিতপুর রাস্তার সুতরইল মোড়ে অবস্থান করে ওই সড়ক অবরোধ করেন।

এতে নেতৃত্ব দেন সংশ্লিষ্ট মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা শরিফুদ্দিন চৌধুরী। অবরোধকারীরা বিনা কারণে সাইখুল হাদিস মাওলানা আবদুল্লাহ চৌধুরীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনার সঙ্গে জড়িত স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কিছু নেতাকর্মী ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক শফিউর রহমান শিমুলকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানান।

এ সময় অবরোধকারীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম ও থানা অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ সময় তিনি ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতারের আশ্বাস দেন। তার আশ্বাসে মাদ্রাসার পরিচালক তাৎক্ষণিক অবরোধ তুলে নেয়ার কথা ঘোষণা করেন।

পোরশা মাদ্রাসার শাইখুল হাদিসকে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

 নওগাঁ প্রতিনিধি 
২৩ অক্টোবর ২০১৮, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নওগাঁর পোরশা জামিয়া আল-আরাবিয়া দারুল হেদায়া মাদ্রাসার শাইখুল হাদিস মাওলানা আবদুল্লাহ চৌধুরীকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, বিএনপির কিছু নেতাকর্মী লাঞ্ছিত করায় তাদের বিচারের দাবিতে স্থানীয় জনগণ ও বিভিন্ন মাদ্রাসার সহস্রাধিক ছাত্র-শিক্ষক সড়ক অবরোধ করেন। সোমবার সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত তারা শিশা-নিতপুর রাস্তার সুতরইল মোড়ে অবস্থান করে ওই সড়ক অবরোধ করেন।

এতে নেতৃত্ব দেন সংশ্লিষ্ট মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা শরিফুদ্দিন চৌধুরী। অবরোধকারীরা বিনা কারণে সাইখুল হাদিস মাওলানা আবদুল্লাহ চৌধুরীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনার সঙ্গে জড়িত স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কিছু নেতাকর্মী ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক শফিউর রহমান শিমুলকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানান।

এ সময় অবরোধকারীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম ও থানা অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ সময় তিনি ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতারের আশ্বাস দেন। তার আশ্বাসে মাদ্রাসার পরিচালক তাৎক্ষণিক অবরোধ তুলে নেয়ার কথা ঘোষণা করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন