অসংক্রামক রোগে চার কোটি দশ লাখ মানুষের মৃত্যু
jugantor
অসংক্রামক রোগে চার কোটি দশ লাখ মানুষের মৃত্যু
৩৫ দেশের অংশগ্রহণে কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী সম্মেলন শুরু

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৩ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রতি বছর অসংক্রামক ব্যাধির কারণে বিশ্বব্যাপী প্রায় চার কোটি ১০ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়, যা মোট মৃত্যুর শতকরা ৭১ শতাংশ।

স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে বছরে ৩০ থেকে ৬৯ বছর বয়সী প্রায় দেড় কোটি মানুষের মৃত্যু হয় অসংক্রামক রোগে। যার ৮৫ শতাংশের বেশি হল ‘অকালমৃত্যু’। অসংক্রামক ব্যাধি এসব দেশে দীর্ঘস্থায়ী দারিদ্র্য সৃষ্টি করে আর্থিক উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করে।

বিশ্বের ৩৫টি দেশের অংশগ্রহণে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী ‘দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী সম্মেলন ২০১৯’-এ বক্তারা এ তথ্য জানান।

শুক্রবার সকাল ৯টায় এ সম্মেলন শুরু হয়। এ বছর সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য ‘সর্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা অর্জনে অসংক্রামক ব্যাধির নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীদের সম্ভাবনা’।

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ কমিউনিটি ক্লিনিক হেলথ সাপোর্ট ট্রাস্টের সভাপতি অধ্যাপক ড. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী ‘দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী সম্মেলন ২০১৯’-এর উদ্বোধন করেন।

সম্মেলনে সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে আইসিডিডিআর,বি স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অধিদফতর, ব্র্যাক জেমস পি. গ্র্যান্ট স্কুল অব পাবলিক হেলথ (জেপিজিএসপিএইচ) এবং সেভ দ্য চিলড্রেন।

সম্মেলনের প্রতিপাদ্য বিষয়ের মধ্যে রয়েছে ১. স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীদের কর্মসূচি ২. কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী ও সর্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা ৩. শহরাঞ্চলে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান, দুর্যোগ ও জলবায়ু পরিবর্তন এবং মানবিক পরিস্থিতির মতো বিভিন্ন প্রেক্ষাপটে কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীদের ভূমিকা ৪. কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীদের কর্মসূচি এবং অসংক্রামক ব্যাধির প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ।

আইসিডিডিআর,বি-এর হেলথ সিস্টেমস অ্যান্ড পপুলেশন স্টাডিজ ডিভিশনের সায়েন্টিস্ট ও শেয়ার প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. ইকবাল আনোয়ার অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

ইউনিসেফ, যুক্তরাষ্ট্রের সিনিয়র অ্যাডভাইজর ড. রোরি নেফত ‘প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা ২.০ : অ্যালমা-আটা থেকে অ্যাসটানা’ শিরোনামে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

ঢাকার ধামরাইয়ের সিএইচসিপি সুবেদী গোস্বামী, উগান্ডার হেলথ সিস্টেমস গ্লোবাল থেমাটিক ওয়ার্কিং গ্রুপের সহ-সভাপতি ড. ডেভিড মুসোক, আইসিডিডিআর,বি-এর নির্বাহী পরিচালক ড. জন ডি ক্লেমেন্স, জেপিজিএসপিএইচ’র ডিন ও অধ্যাপক ড. সাবিনা ফায়েজ রশিদ, ডিএফআইডি বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ জুডিথ হার্বার্টসন, বাংলাদেশে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রতিনিধি বর্গের ফার্স্ট সেক্রেটারি হ্যান্স ল্যামব্রেচট এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ড. নাসিমা সুলতানা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলনে বিশ্বের ৩৫টি দেশ থেকে প্রায় ৫০০ নীতি-নির্ধারক, স্বাস্থ্য পেশাজীবী, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, শিক্ষাবিদ, সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এবং গবেষকরা সম্মেলনে নিবন্ধন করেছেন।

ইথিওপিয়ার স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ড. সেহারলা আবদুলাহিও সম্মেলনে অংশ নেন। সম্মেলনে সর্বমোট ২৩২টি গবেষণার সারসংক্ষেপ (অ্যাবস্ট্র্যাক্ট) জমা পড়েছে। যার মধ্য থেকে ১৪১টি মৌখিক ও পোস্টার উপস্থাপনার জন্য নির্বাচিত হয়েছে।

স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশ থেকে ২০ জন নবীন অংশগ্রহণকারী তাদের অ্যাবস্ট্র্যাক্টের গুণগত মানের ভিত্তিতে বৃত্তির জন্য মনোনীত হয়েছেন। ২০১৭ সালে উগান্ডার কাম্পালায় ‘প্রথম আন্তর্জাতিক কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী সম্মেলন’ অনুষ্ঠিত হয়।

অসংক্রামক রোগে চার কোটি দশ লাখ মানুষের মৃত্যু

৩৫ দেশের অংশগ্রহণে কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী সম্মেলন শুরু
 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৩ নভেম্বর ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রতি বছর অসংক্রামক ব্যাধির কারণে বিশ্বব্যাপী প্রায় চার কোটি ১০ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়, যা মোট মৃত্যুর শতকরা ৭১ শতাংশ।

স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে বছরে ৩০ থেকে ৬৯ বছর বয়সী প্রায় দেড় কোটি মানুষের মৃত্যু হয় অসংক্রামক রোগে। যার ৮৫ শতাংশের বেশি হল ‘অকালমৃত্যু’। অসংক্রামক ব্যাধি এসব দেশে দীর্ঘস্থায়ী দারিদ্র্য সৃষ্টি করে আর্থিক উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করে।

বিশ্বের ৩৫টি দেশের অংশগ্রহণে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী ‘দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী সম্মেলন ২০১৯’-এ বক্তারা এ তথ্য জানান।

শুক্রবার সকাল ৯টায় এ সম্মেলন শুরু হয়। এ বছর সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য ‘সর্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা অর্জনে অসংক্রামক ব্যাধির নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীদের সম্ভাবনা’।

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ কমিউনিটি ক্লিনিক হেলথ সাপোর্ট ট্রাস্টের সভাপতি অধ্যাপক ড. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী ‘দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী সম্মেলন ২০১৯’-এর উদ্বোধন করেন।

সম্মেলনে সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে আইসিডিডিআর,বি স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অধিদফতর, ব্র্যাক জেমস পি. গ্র্যান্ট স্কুল অব পাবলিক হেলথ (জেপিজিএসপিএইচ) এবং সেভ দ্য চিলড্রেন।

সম্মেলনের প্রতিপাদ্য বিষয়ের মধ্যে রয়েছে ১. স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীদের কর্মসূচি ২. কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী ও সর্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা ৩. শহরাঞ্চলে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান, দুর্যোগ ও জলবায়ু পরিবর্তন এবং মানবিক পরিস্থিতির মতো বিভিন্ন প্রেক্ষাপটে কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীদের ভূমিকা ৪. কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীদের কর্মসূচি এবং অসংক্রামক ব্যাধির প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ।

আইসিডিডিআর,বি-এর হেলথ সিস্টেমস অ্যান্ড পপুলেশন স্টাডিজ ডিভিশনের সায়েন্টিস্ট ও শেয়ার প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. ইকবাল আনোয়ার অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

ইউনিসেফ, যুক্তরাষ্ট্রের সিনিয়র অ্যাডভাইজর ড. রোরি নেফত ‘প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা ২.০ : অ্যালমা-আটা থেকে অ্যাসটানা’ শিরোনামে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

ঢাকার ধামরাইয়ের সিএইচসিপি সুবেদী গোস্বামী, উগান্ডার হেলথ সিস্টেমস গ্লোবাল থেমাটিক ওয়ার্কিং গ্রুপের সহ-সভাপতি ড. ডেভিড মুসোক, আইসিডিডিআর,বি-এর নির্বাহী পরিচালক ড. জন ডি ক্লেমেন্স, জেপিজিএসপিএইচ’র ডিন ও অধ্যাপক ড. সাবিনা ফায়েজ রশিদ, ডিএফআইডি বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ জুডিথ হার্বার্টসন, বাংলাদেশে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রতিনিধি বর্গের ফার্স্ট সেক্রেটারি হ্যান্স ল্যামব্রেচট এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ড. নাসিমা সুলতানা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলনে বিশ্বের ৩৫টি দেশ থেকে প্রায় ৫০০ নীতি-নির্ধারক, স্বাস্থ্য পেশাজীবী, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, শিক্ষাবিদ, সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এবং গবেষকরা সম্মেলনে নিবন্ধন করেছেন।

ইথিওপিয়ার স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ড. সেহারলা আবদুলাহিও সম্মেলনে অংশ নেন। সম্মেলনে সর্বমোট ২৩২টি গবেষণার সারসংক্ষেপ (অ্যাবস্ট্র্যাক্ট) জমা পড়েছে। যার মধ্য থেকে ১৪১টি মৌখিক ও পোস্টার উপস্থাপনার জন্য নির্বাচিত হয়েছে।

স্বল্প ও মধ্যম আয়ের দেশ থেকে ২০ জন নবীন অংশগ্রহণকারী তাদের অ্যাবস্ট্র্যাক্টের গুণগত মানের ভিত্তিতে বৃত্তির জন্য মনোনীত হয়েছেন। ২০১৭ সালে উগান্ডার কাম্পালায় ‘প্রথম আন্তর্জাতিক কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী সম্মেলন’ অনুষ্ঠিত হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন