মিয়ানমারকে ভারতের চাপ দিতে হবে : ওবায়দুল কাদের
jugantor
মিয়ানমারকে ভারতের চাপ দিতে হবে : ওবায়দুল কাদের
বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া মিডিয়া ডায়ালগ

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে ভারতের চাপ দিতে হবে। আমরা মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত রোহিঙ্গাদের নিয়ে বেশ সমস্যায় আছি। আপনারা মুক্তিযুদ্ধের সময় সহযোগিতা করেছিলেন, আমরা তা কোনো দিন ভুলব না। এবার এই ক্রাইসিস মুহূর্তেও আপনাদের সহযোগিতা চাই।

বুধবার বিকালে হোটেল র‌্যাডিসনে তিন দিনব্যাপী বাংলাদেশ-ভারত মিডিয়া ডায়ালগ-২০১৮ এর সমাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

ভারত থেকে আসা গণমাধ্যম প্রতিনিধি ও দেশটির সরকারের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, ভারত আমাদের পাশে সব সময় আছে, থাকবে। আমরা জানি, মিয়ানমারের সঙ্গে ভারতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক রয়েছে। আপনারা আমাদের দীর্ঘদিনের বন্ধু। আপনাদের সম্পর্ক অব্যাহত রেখে মিয়ানমারকে চাপ দিন। আমাদের সহযোগিতা করুন। আমাদের অপ্রত্যাশিত এ বোঝা সইবার না।

তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার আমলেই তিস্তা সমাধান হবে। আমি স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, আমাদের সরকারের শেষ সময়ে চলে আসছি, আর হয়তো ৯-১০ মাস সময় আছে। আমাদের জনগণের কাছে যেতে হবে। তাই তিস্তা ইস্যু সমাধান করুন।

তিন দিনব্যাপী এ ডায়ালগে আসা ভারতীয় সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনারা পশ্চিম বঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে বলুন, তিনি যেন দিল্লির সরকারকে তিস্তা ইস্যুর সমাধানে সহযোগিতা করেন। এ বিষয়ে আপনারাও লিখুন।

সমাপন অনুষ্ঠানে ইউজিসির চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ডায়ালগে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, ভারতীয় হাইকমিশনের ডেপুটি হাইকমিশনার ডা. আদ্রেশ সৈকত। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ভোরের কাগজ সম্পাদক, আইসিএলডিএসের অন্যতম পরিচালক এবং বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া মিডিয়া ডায়ালগ-২০১৮-এর আহ্বায়ক শ্যামল দত্ত।

ভারতের সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মিলিনিয়াম পোস্টের সিনিয়র এডিটর এবং দিল্লি প্রেস ক্লাবের সভাপতি গৌতম লাহিড়ি, আউট লুক পত্রিকার ব্যুরো প্রধান বিনীতা পান্ডে, দ্য হিন্দু পত্রিকার সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট এডিটর কল্লোল ভট্টাচার্য, উর্দু পত্রিকার সাংবাদিক নাদিম কাজমী, অনামিত্র চট্টোপাধ্যায়, ইন্ডিয়ান টেলিগ্রাফ পত্রিকার সিনিয়র এডিটর জয়ন্ত রায় চৌধুরী, টাইমস অব ইন্ডিয়ার অ্যাসিস্ট্যান্ট এডিটর মহুয়া চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া ডায়ালগ বাংলাদেশ-ভারতের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রাখবে।

মিয়ানমারকে ভারতের চাপ দিতে হবে : ওবায়দুল কাদের

বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া মিডিয়া ডায়ালগ
 যুগান্তর রিপোর্ট 
২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে ভারতের চাপ দিতে হবে। আমরা মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত রোহিঙ্গাদের নিয়ে বেশ সমস্যায় আছি। আপনারা মুক্তিযুদ্ধের সময় সহযোগিতা করেছিলেন, আমরা তা কোনো দিন ভুলব না। এবার এই ক্রাইসিস মুহূর্তেও আপনাদের সহযোগিতা চাই।

বুধবার বিকালে হোটেল র‌্যাডিসনে তিন দিনব্যাপী বাংলাদেশ-ভারত মিডিয়া ডায়ালগ-২০১৮ এর সমাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

ভারত থেকে আসা গণমাধ্যম প্রতিনিধি ও দেশটির সরকারের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, ভারত আমাদের পাশে সব সময় আছে, থাকবে। আমরা জানি, মিয়ানমারের সঙ্গে ভারতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক রয়েছে। আপনারা আমাদের দীর্ঘদিনের বন্ধু। আপনাদের সম্পর্ক অব্যাহত রেখে মিয়ানমারকে চাপ দিন। আমাদের সহযোগিতা করুন। আমাদের অপ্রত্যাশিত এ বোঝা সইবার না।

তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার আমলেই তিস্তা সমাধান হবে। আমি স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, আমাদের সরকারের শেষ সময়ে চলে আসছি, আর হয়তো ৯-১০ মাস সময় আছে। আমাদের জনগণের কাছে যেতে হবে। তাই তিস্তা ইস্যু সমাধান করুন।

তিন দিনব্যাপী এ ডায়ালগে আসা ভারতীয় সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনারা পশ্চিম বঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে বলুন, তিনি যেন দিল্লির সরকারকে তিস্তা ইস্যুর সমাধানে সহযোগিতা করেন। এ বিষয়ে আপনারাও লিখুন।

সমাপন অনুষ্ঠানে ইউজিসির চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ডায়ালগে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, ভারতীয় হাইকমিশনের ডেপুটি হাইকমিশনার ডা. আদ্রেশ সৈকত। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ভোরের কাগজ সম্পাদক, আইসিএলডিএসের অন্যতম পরিচালক এবং বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া মিডিয়া ডায়ালগ-২০১৮-এর আহ্বায়ক শ্যামল দত্ত।

ভারতের সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মিলিনিয়াম পোস্টের সিনিয়র এডিটর এবং দিল্লি প্রেস ক্লাবের সভাপতি গৌতম লাহিড়ি, আউট লুক পত্রিকার ব্যুরো প্রধান বিনীতা পান্ডে, দ্য হিন্দু পত্রিকার সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট এডিটর কল্লোল ভট্টাচার্য, উর্দু পত্রিকার সাংবাদিক নাদিম কাজমী, অনামিত্র চট্টোপাধ্যায়, ইন্ডিয়ান টেলিগ্রাফ পত্রিকার সিনিয়র এডিটর জয়ন্ত রায় চৌধুরী, টাইমস অব ইন্ডিয়ার অ্যাসিস্ট্যান্ট এডিটর মহুয়া চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া ডায়ালগ বাংলাদেশ-ভারতের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা রাখবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন