করোনাকালে বাজারে আসা স্মার্টফোন

সাধারণের সাধ্যের বিষয়টি আমলে নিচ্ছে ব্র্যান্ডগুলো

  সাইফ আহমাদ ১৩ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

করোনা মহামারীর এ সময়ে প্রযুক্তির প্রতি মানুষের নির্ভরশীলতা বেড়েছে বহুগুণ। সামাজিক দূরত্ব মেনে অনলাইন ক্লাস, ভিডিও কনফারেন্সে অফিসের মিটিং, ই-কমার্স থেকে কেনাকাটা, এমনকি টেলিমেডিসিন সেবাসহ সবই সম্ভব হাতে থাকা স্মার্টফোনটি দিয়ে।

একটি মিডরেঞ্জের স্মার্টফোন হাতে থাকলে সহজেই চালিয়ে নেয়া যায় জীবন। করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের সাধ্যের বিষয়টি মাথায় রেখে জীবনের অন্যতম অনুষঙ্গ স্মার্টফোনের নানা রকম ভ্যারিয়েন্ট বাজারে এনেছে প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলো। আজকের আয়োজনে করোনাকালীন বাজারে আসা স্মার্টফোন নিয়ে লিখেছেন-

বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, করোনাকালে মানুষের ক্রয়ক্ষমতা কমেছে। ভিডিও এবং ফটোগ্রাফির পাশাপাশি ভালো পারফরমেন্সের ফোন চান ক্রেতারা। বেশি দামের ফোনে তা পাওয়া সম্ভব হলেও এখন অনেকের পক্ষে সেগুলো কেনা কঠিন।

তাই মধ্য ক্রয়সীমার ফোন বেচাকেনা বাড়ছে। মিডরেঞ্জ ফোনগুলোর মধ্যে পারফরম্যান্স, দাম ও বৈচিত্র্য বিবেচনায় ভিভোর ওয়াই৫০ এগিয়ে রয়েছে। আর সংখ্যা বিবেচনায় শাওমি সবচেয়ে বেশি মিডরেঞ্জের ফোন বাজারে এনেছে। এক সময়ের ফিচার ফোনের শীর্ষ দুই ব্র্যান্ড নকিয়া এবং এলজি নতুন ফোন বাজারে আনেনি।

করোনাকালীন বাজারে আসা স্মার্টফোনগুলো হল- ভিভো ওয়াই ৫০, হুয়াওয়ে ওয়াই সেভেনপি, অপো এ৩১, রিয়েলমি সিক্স আই এবং রেডমি নোট ৯ প্রো, রেডমি নোট ৯ এস ও রেডমি নোট ৯, প্রিমো এন৪।

অপো এ৩১ : জুনের মাঝামাঝিতে চাইনিজ ব্র্যান্ড অপো বাজারে নিয়ে আসে মিডরেঞ্জের ফোন এ৩১। অপো এ৩১ ফোনে রয়েছে ৭২০ পিক্সেল বাই ১৬০০ পিক্সেলের ৬.৫ ইঞ্চির ওয়াটারড্রপ ডিসপ্লে। তৃতীয় প্রজন্মের গরিলা গ্লাস ডিসপ্লের ৮৯ শতাংশই স্ক্রিন। ফলে ফোনের বাড়তি অংশ খুবই কম এবং এর পুরুত্ব মাত্র ৮.৩ মিলিমিটার। ৪ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি র‌্যামের ৪২৩০ এমএএইচ ব্যাটারিযুক্ত ফোনটির মূল্য ১৬,৯৯০ টাকা।

ভিভো ওয়াই৫০ : ভিভো ওয়াই৫০ ফোনের র‌্যাম ৮ জিবি ও র‌্যাম ১২৮ জিবি। ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারির সঙ্গে ফোনটিতে রয়েছে ৬ দশমিক ৫৩ ইঞ্চির বিশাল আইভিউ ডিসপ্লে। এ বৈশিষ্ট্যের ফোন ও মিডরেঞ্জের ফোনগুলোর মধ্যে ভিভো ওয়াই৫০-এর মূল্য সবচেয়ে কম। ফোনটির মূল্য ২২,৯৯০ টাকা।

রেডমি নোট ৯ প্রো, ৯ এস ও রেডমি নোট ৯ : চলতি মাসে একসঙ্গে নোট সিরিজের তিনটি ফোন উন্মোচন করে শাওমি। এর মধ্যে রেডমি নোট ৯ প্রো এবং রেডমি নোট ৯ এস দুটি আলাদা ভ্যারিয়েন্টে বাজারে এসেছে। ৬ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি র‌্যামের রেডমি নোট ৯ প্রো’র মূল্য ২৬,৯৯৯ টাকা। অন্যদিকে ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি র‌্যাম সংস্করণটির মূল্য ২৮,৯৯৯ টাকা।

রেডমি নোট ৯ এসও দুটি সংস্করণে বাজারে এসেছে একটির র‌্যাম ও র‌্যাম ৪ ও ৬৪ জিবি। এবং অন্যটির র‌্যাম ও র‌্যাম ৬ ও ১২৮ জিবির। দুটি সংস্করণের মূল্য ২২,৯৯৯ ও ২৫,৯৯৯ টাকা। এ সিরিজের আরেকটি ফোন রেডমি নোট ৯। এ ফোনের র‌্যাম ৪ জিবি ও র‌্যাম ১২৮ জিবি। ফোনটির মূল্য ১৯,৯৯৯ টাকা।

রিয়েলমি সিক্স আই : মিডিয়াটেকের হেলিও জি ৮০ চিপসেটসহ রিয়েলমি সিক্স আই ফোনটি বাজারে আনে অপোর সাব-ব্র্যান্ড রিয়েলমি। ফোনটির র‌্যাম ৪ জিবি ও র‌্যাম ১২৮ জিবি। ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারির এ ফোনের ডিসপ্লেটি ৬ দশমিক ৫ ইঞ্চির। ফোনটির দাম ১৬ হাজার ৯৯০ টাকা। ব্যাটারির ক্ষমতার পার্থক্য ছাড়া অপো এ৩১’র সঙ্গে এর তেমন কোনো পার্থক্য নেই।

প্রিমো এন৪ : ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি র‌্যামে বাজারে এসেছে দেশীয় স্মার্টফোন প্রিমো এন৪। দাম ১৩ হাজার ১৯৯ টাকা। ৬.৫ ইঞ্চির ইন-সেল এইচডি প্লাস ১৯:৯ রেশিওর নচ আইপিএস ডিসপ্লের স্মার্টফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম। ২.০ গিগাহার্জ গতির অক্টাকোর এআরএম কোর্টেক্স-এ৫৩ প্রসেসরে ফোনটির পেছনে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ১৬. ৮ এবং ২ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল অটোফোকাস ক্যামেরা। সেলফির জন্য এ ফোনের সামনে আছে পিডিএএফ প্রযুক্তির ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। স্মার্টফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি; যা দেবে দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপ।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত