গোপনে নজরদারি করে ইনস্টাগ্রাম
jugantor
গোপনে নজরদারি করে ইনস্টাগ্রাম

  আইটি ডেস্ক  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ফটোশেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের ওপর গোপন নজরদারির অভিযোগ এলো অ্যাপটির মালিকানা প্রতিষ্ঠান ফেসবুকের বিরুদ্ধে।

এটি কোনো সাধারণ নজরদারি না, গোপনে ব্যবহারকারী হ্যান্ডসেটের ক্যামেরার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সব কিছুই দেখছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

অনেকের ধারণা- যখন অ্যাপটি ব্যবহার করা হয়, তখনই হয়তো এ অনধিকার চর্চা বা ব্যক্তিগত গোপনীয়তা লঙ্ঘন করা হতো। কিন্তু এখানেই শেষ না। ব্যবহারকারীরা যেই মুহূর্তে অ্যাপ ব্যবহার থেকে বিরত ছিল, তখনও তাদের স্মার্টফোনের ক্যামেরা অ্যাপের নিয়ন্ত্রণে ছিল।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর নড়েচড়ে বসেছে ফেসবুক। নজরদারির ব্যাপারটি অস্বীকার করলেও দায় পুরোপুরি এড়িয়ে যায়নি।

এ ধরনের ঘটনার জন্য তারা বাগ বা কারিগরি ত্রুটিকে দায়ী করেছে। সম্প্র্রতি যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সির বাসিন্দা ব্রিটানি কন্ডিটি সানফ্রান্সিসকোর ফেডারেল কোর্টে অভিযোগ তুলে জানান- তিনি ইনস্টাগ্রাম অ্যাপ ব্যবহারের সময় খেয়াল করেন, তার অজান্তেই হ্যান্ডসেটের ক্যামেরার নিয়ন্ত্রণ ও গুরুত্বপূর্ণ ডেটা অন্য কেউ সংগ্রহ করছে। আর এত কিছু এ অ্যাপ ছাড়া অন্য কারও পক্ষে সম্ভব না।

গোপনে নজরদারি করে ইনস্টাগ্রাম

 আইটি ডেস্ক 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ফটোশেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের ওপর গোপন নজরদারির অভিযোগ এলো অ্যাপটির মালিকানা প্রতিষ্ঠান ফেসবুকের বিরুদ্ধে।

এটি কোনো সাধারণ নজরদারি না, গোপনে ব্যবহারকারী হ্যান্ডসেটের ক্যামেরার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সব কিছুই দেখছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

অনেকের ধারণা- যখন অ্যাপটি ব্যবহার করা হয়, তখনই হয়তো এ অনধিকার চর্চা বা ব্যক্তিগত গোপনীয়তা লঙ্ঘন করা হতো। কিন্তু এখানেই শেষ না। ব্যবহারকারীরা যেই মুহূর্তে অ্যাপ ব্যবহার থেকে বিরত ছিল, তখনও তাদের স্মার্টফোনের ক্যামেরা অ্যাপের নিয়ন্ত্রণে ছিল।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর নড়েচড়ে বসেছে ফেসবুক। নজরদারির ব্যাপারটি অস্বীকার করলেও দায় পুরোপুরি এড়িয়ে যায়নি।

এ ধরনের ঘটনার জন্য তারা বাগ বা কারিগরি ত্রুটিকে দায়ী করেছে। সম্প্র্রতি যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সির বাসিন্দা ব্রিটানি কন্ডিটি সানফ্রান্সিসকোর ফেডারেল কোর্টে অভিযোগ তুলে জানান- তিনি ইনস্টাগ্রাম অ্যাপ ব্যবহারের সময় খেয়াল করেন, তার অজান্তেই হ্যান্ডসেটের ক্যামেরার নিয়ন্ত্রণ ও গুরুত্বপূর্ণ ডেটা অন্য কেউ সংগ্রহ করছে। আর এত কিছু এ অ্যাপ ছাড়া অন্য কারও পক্ষে সম্ভব না।