দুই প্রতিষ্ঠানের প্রতারণায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের ব্যাখ্যা

রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে সমঝোতা ঊর্র্ধ্বতনের নির্দেশে

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সংশ্লিষ্ট বিভাগ রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করে। পরিদর্শনকালে দেখা গেছে, রিজেন্টের মিরপুর ও উত্তরা শাখার লাইসেন্স নবায়ন ছিল না। বেসরকারি পর্যায়ে কোভিড রোগীদের চিকিৎসা সুবিধা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে অপরাপর বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে উৎসাহদানে লাইসেন্স নবায়নের শর্ত দিয়ে রিজেন্ট হাসপাতালের সাথে ২১ মার্চ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করা হয়। শনিবার রাতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (সমন্বয়) ডা. মো. জাহাঙ্গীর কবির অধিদফতরের ব্যাখায় এসব কথা জানান।

ব্যাখ্যায় উল্লেখ করা হয়, সম্প্রতি গোয়েন্দা ও অন্যান্য সূত্রে রিজেন্ট হাসপাতালের বিষয়ে কিছু অভিযোগ স্বাস্থ্য অধিদফতরের কাছে আসে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ৬ জুলাই আকস্মিকভাবে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রতিনিধির উপস্থিতিতে র‌্যাব একটি যৌথ অভিযান পরিচালনা করে। সম্প্রতি রিজেন্ট হাসপাতালের প্রতারণার বিষয়ে কিছু আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির স্বত্বাধিকারী মো. সাহেদ করিমের বিভিন্ন প্রতারণার খবরও বেরিয়ে আসছে। স্বাস্থ্য অধিদফতর তার বিষয়ে আগে অবহিত ছিল না। এ বছরের মার্চ মাসে আকস্মিকভাবে দেশে কোভিড-১৯ রোগীদের সংখ্যা বেড়ে যায়। কোনো বেসরকারি হাসপাতাল কোভিড রোগী ভর্তি করতে চাইছিল না। এমন একটি ক্রান্তিকালে রিজেন্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ঢাকার উত্তরা এবং মিরপুরে অবস্থিত দু’টি ক্লিনিককে কোভিড হাসপাতাল হিসেবে ডেডিকেটেড করার আগ্রহ প্রকাশ করে।

রিজেন্ট হাসপাতালের বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সমঝোতা স্মারকের বিষয়ে অধিদফতরের বক্তব্য একটি মহতী উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে অধিদফতর প্রতারিত হয়েছে এবং ৭ জুলাই আইনানুযায়ী প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম বন্ধ করেছে। স্বাভাবিকভাবেই সমঝোতা স্মারকের আর কোনো মূল্য নেই। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতায় এবং নিজস্ব উদ্যোগে স্বাস্থ্য অধিদফতর বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ঝটিকা পরিদর্শন কার্যক্রম বাড়ানো হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জোবেদা খাতুন হেলথ কেয়ার (জেকেজি) নামে অপর একটি প্রতিষ্ঠানের প্রতারণার বিষয়েও স্বাস্থ্য অধিদফতর নিজেদের অবস্থান ব্যাখ্যা করে। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান সমন্বয়ক আরিফুল চৌধুরী ওভাল গ্রুপ লিমিটেড নামে একটি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট গ্রুপের স্বত্বাধিকারী। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় আয়োজিত স্বাস্থ্যসেবা সপ্তাহ ২০১৮-এর ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের দায়িত্ব পালন করে। চিকিৎসা পেশাজীবীদের সংগঠন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনেরও একাধিক ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের দায়িত্ব পালন করে। কোভিড সংকট শুরু হওয়ার পর আরিফুল চৌধুরী স্বাস্থ্য অধিদফতরে আসেন এবং জেকেজি গ্রুপ দক্ষিণ কোরিয়ার মডেলে বাংলাদেশে কিছু বুথ স্থাপন করতে চায়।

এসব বুথের মাধ্যমে পিসিআর পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করে অধিদফতরের পিসিআর ল্যাবরেটরিগুলোকে সরবরাহ করা হবে, এ জন্য সরকারকে কোনো অর্থ দিতে হবে না। ধারণাটি ভালো নমুনা সংগ্রহ বৃদ্ধির প্রয়োজনীয়তা বিবেচনায় জেকেজি গ্রুপকে অনুমতি দেয়া যায় বলে অধিদফতরের মনে হয়। একটি ভালো কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকার মানসে তিতুমীর কলেজ কর্তৃপক্ষও জেকেজি গ্রুপের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়ায়। পরে প্রতারণার অভিযোগে অধিদফতর জেকেজিকে প্রদত্ত বুথ পরিচালনার অনুমতি বাতিল করে।

ঘটনাপ্রবাহ : রিজেন্ট গ্রুপ চেয়ারম্যান সাহেদ কাণ্ড

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত