গণপূর্তের আরও এক প্রকৌশলীর দুর্নীতির অভিযোগ বাছাই কমিটিতে
jugantor
গণপূর্তের আরও এক প্রকৌশলীর দুর্নীতির অভিযোগ বাছাই কমিটিতে

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নানা অনিয়মের অভিযোগে একসময় সাময়িক বরখাস্ত হওয়া (পরে প্রত্যাহার) গণপূর্ত অধিদফতরের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (ঢাকা মেট্রোপলিটন জোন) প্রদীপ কুমার বসুর বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দুদকের বাছাই কমিটি পর্যালোচনায় নিয়েছে বলে জানা গেছে। এর আগে একটি লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তার বিষয়ে অনুসন্ধান করে তথ্য সংগ্রহ করে দুদক।

প্রদীপ কুমার বসু খুলনা জোন থেকে সম্প্রতি গণপূর্ত অধিদফতরের ঢাকা মেট্রোপলিটন জোনে অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী হিসেবে যোগ দিয়েছেন।

প্রদীপ কুমার বসুর বিরুদ্ধে অভিযোগ, গোপালগঞ্জ গণপূর্ত বিভাগে কর্মরত থাকার সময় শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিব চক্ষু হাসপাতাল ও প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান নির্মাণ প্রকল্পের বাউন্ডারি ওয়াল, মাটি ভরাট, ভবনের ছাদ, ট্রিটমেন্ট প্লান্ট, রিজার্ভ ব্যাংকের কাজ অপূর্ণ রেখেই ঠিকাদারদের বিল প্রদানসহ প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করেননি। এই অভিযোগে মন্ত্রণালয় থেকে ২০১৬ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি তাকে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয়া হয়। এমনকি এসব অভিযোগের কারণে তাকে এক বছরের জন্য সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। পরে বরখাস্ত আদেশ প্রত্যাহার করা হয়। অভিযোগে বলা হয়, তিনি আবার চাকরিতে ফিরে আসার পর বিভিন্ন সিন্ডিকেটের সঙ্গে যোগসাজশ শুরু করেন। খুলনা গণপূর্ত জোনে থাকাকালে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ র্ছিল একটি বড় কোম্পানির সঙ্গে আঁতাত করে তিনি অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন। এসব সম্পদ স্ত্রী-সন্তানের নামে করেছেন বলে অভিযোগে বলা হয়। প্রসঙ্গত, গণপূর্তের অন্তত ২০ জন প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান চলমান রয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ১৪ জনের নাম রয়েছে জিকে শামীম ও ক্যাসিনো সংশ্লিষ্টতায়।

গণপূর্তের আরও এক প্রকৌশলীর দুর্নীতির অভিযোগ বাছাই কমিটিতে

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নানা অনিয়মের অভিযোগে একসময় সাময়িক বরখাস্ত হওয়া (পরে প্রত্যাহার) গণপূর্ত অধিদফতরের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (ঢাকা মেট্রোপলিটন জোন) প্রদীপ কুমার বসুর বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দুদকের বাছাই কমিটি পর্যালোচনায় নিয়েছে বলে জানা গেছে। এর আগে একটি লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তার বিষয়ে অনুসন্ধান করে তথ্য সংগ্রহ করে দুদক।

প্রদীপ কুমার বসু খুলনা জোন থেকে সম্প্রতি গণপূর্ত অধিদফতরের ঢাকা মেট্রোপলিটন জোনে অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী হিসেবে যোগ দিয়েছেন।

প্রদীপ কুমার বসুর বিরুদ্ধে অভিযোগ, গোপালগঞ্জ গণপূর্ত বিভাগে কর্মরত থাকার সময় শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিব চক্ষু হাসপাতাল ও প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান নির্মাণ প্রকল্পের বাউন্ডারি ওয়াল, মাটি ভরাট, ভবনের ছাদ, ট্রিটমেন্ট প্লান্ট, রিজার্ভ ব্যাংকের কাজ অপূর্ণ রেখেই ঠিকাদারদের বিল প্রদানসহ প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করেননি। এই অভিযোগে মন্ত্রণালয় থেকে ২০১৬ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি তাকে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয়া হয়। এমনকি এসব অভিযোগের কারণে তাকে এক বছরের জন্য সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। পরে বরখাস্ত আদেশ প্রত্যাহার করা হয়। অভিযোগে বলা হয়, তিনি আবার চাকরিতে ফিরে আসার পর বিভিন্ন সিন্ডিকেটের সঙ্গে যোগসাজশ শুরু করেন। খুলনা গণপূর্ত জোনে থাকাকালে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ র্ছিল একটি বড় কোম্পানির সঙ্গে আঁতাত করে তিনি অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন। এসব সম্পদ স্ত্রী-সন্তানের নামে করেছেন বলে অভিযোগে বলা হয়। প্রসঙ্গত, গণপূর্তের অন্তত ২০ জন প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান চলমান রয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ১৪ জনের নাম রয়েছে জিকে শামীম ও ক্যাসিনো সংশ্লিষ্টতায়।