শিকারিদের তাড়া খেয়ে ভারতের মায়া হরিণ বাংলাদেশে

  যুগান্তর রিপোর্ট, তাহিরপুর ২১ এপ্রিল ২০১৯, ১১:০১ | অনলাইন সংস্করণ

ভারতের মেঘালয় পাহাড়ে শিকারিদের তাড়া খেয়ে একটি মায়া হরিণ বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।
ভারতের মেঘালয় পাহাড়ে শিকারিদের তাড়া খেয়ে একটি মায়া হরিণ বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। ছবি-যুগান্তর

ভারতের মেঘালয় পাহাড়ে শিকারিদের তাড়া খেয়ে একটি মায়া হরিণ বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্তে ঢোকার পর হরিণটি বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) হেফাজতে রাখা হয়েছে।

শনিবার রাত সাড়ে ১১ টায় ২৮-বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন বিজিবির সুনামগঞ্জ হেডকোয়ার্টারে মায়া হরিণটিকে জেলা প্রাণী সম্পদ দফতরের একজন ভেটেরেনারি সার্জনের মাধ্যমে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়েছে।

বিজিবি ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে বারেকটিলা লাগোয়া সীমান্ত নদী জাদুকাঁটার তীর ধরে ভারতের মেঘালয় পাহাড় থেকে শনিবার দুপুরে একটি মায়া হরিণ বালুচরে ঘোরাফেরার সময় নদীতে থাকা একদল শ্রমিক এবং এলাকার লোকজন তাড়া করে মায়া হরিণটিকে আটক করে।

আটককৃত হরিণটিকে জবাই করে ভুরিভোজ করা হতে পারে এমন সংবাদ পেয়ে তাহিরপুরের লাউড়েরগড় বিওপির বিজিবির টহল দল হরিণটি উদ্ধার করে বিজিবির সুনামগঞ্জ ব্যাটালিয়ন হেডকোয়ার্টারে নিয়ে যায়।

বিজিবির ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্নেল মাকসুদুল আলম যুগান্তরকে জানান, ধারণা করা হচ্ছে ভারতীয় শিকারিদের তাড়া খেয়ে সীমান্তের এপারে চলে আসে হরিণটি। হরিণটি কিছুটা অসুস্থ ও শিকারিদের তাড়া খেয়ে অনেকটা ভীত হয়ে পড়েছে। তাই শনিবার রাতেই ব্যাটালিয়নে ভেটেরেনারি সার্জন নিয়ে এসে চিকিৎসাসেবা দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বনবিভাগের লোকজন জানিয়েছেন এটি মায়া হরিণ, সুস্থ হওয়ার পর বিজিবির দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে পরামর্শ করে হরিণটি চিড়িয়াখানা কিংবা সাফারি পার্কে হস্তান্তর করা হবে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×