বানারীপাড়ায় বাসায় আটকে রেখে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা
jugantor
বানারীপাড়ায় বাসায় আটকে রেখে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

  বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি  

১৪ আগস্ট ২০২০, ২২:২১:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশাল

বানারীপাড়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরীকে দীর্ঘ ৯ দিন ধরে বাসায় আটকে রেখে ধর্ষণের ঘটনায় টিউবওয়েল নির্মাণ শ্রমিক মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার গর্ভীর রাতে উপজেলার মাছরং এলাকার মো.ফরিদ হোসেন বাদী হয়ে বানারীপাড়া থানায় এ মামলা দায়ের করেন। থানার অফিসার ইনচার্জ শিশির কুমার পাল এ মামলাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এসআই মো.জোবায়দুল ইসলামকে নির্দেশ দেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জোবায়দুল ইসলাম শুক্রবার সকালে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি মির্জাগঞ্জ এলাকার টিউবওয়েল নির্মাণ শ্রমিক মো.মিজানুর রহমানকে (২০) আটক করে কোর্টহাজতে প্রেরণ করার পাশাপাশি ভিকটিমকে উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করেন।

এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ শিশির কুমার পাল যুগান্তরকে জানান, সম্প্রতি মির্জাগঞ্জ এলাকার টিউবওয়েল নির্মাণ শ্রমিক মিজানুর রহমান বানারীপাড়া এলাকায় তিনটি টিউবওয়েল বসানোর কাজ করেছেন। সে ৪ আগস্ট বানারীপাড়া সদর ইউনিয়নের একটি মেয়েকে (১৭) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে লেবুখালী এলাকায় চলে যায়। সেখানে সে ভিকটিমকে একটি ভাড়াটিয়া বাসায় আটকে রেখে দীর্ঘ ৯ দিন ধরে ধর্ষণ করে। বৃহস্পতিবার রাতে ভিকটিমের পিতা খবর পেয়ে সেখান থেকে সুকৌশলে তাকে উদ্ধার করে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন এবং পুরো ঘটনাটি থানা পুলিশকে অবহিত করেন। খবর পেয়ে তিনি ওই রাতেই সেখানে গিয়ে ধর্ষক মিজানুর রহমানকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

এ ব্যাপারে ওসি (তদন্ত) মো.জাফর আহম্মেদ যুগান্তরকে জানান, ভিকটিমকে উদ্ধারের পর বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করার পাশাপাশি ধর্ষক মিজানুর রহমানকে কোর্টহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া ধর্ষণের আলামত উদ্ধার করার জন্য ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ তদন্তপূর্বক এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

বানারীপাড়ায় বাসায় আটকে রেখে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

 বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি 
১৪ আগস্ট ২০২০, ১০:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বরিশাল
বরিশাল

বানারীপাড়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরীকে দীর্ঘ ৯ দিন ধরে বাসায় আটকে রেখে ধর্ষণের ঘটনায় টিউবওয়েল নির্মাণ শ্রমিক মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার গর্ভীর রাতে উপজেলার মাছরং এলাকার মো.ফরিদ হোসেন বাদী হয়ে বানারীপাড়া থানায় এ মামলা দায়ের করেন। থানার অফিসার ইনচার্জ শিশির কুমার পাল এ মামলাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এসআই মো.জোবায়দুল ইসলামকে নির্দেশ দেন।

 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জোবায়দুল ইসলাম শুক্রবার সকালে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি মির্জাগঞ্জ এলাকার টিউবওয়েল নির্মাণ শ্রমিক মো.মিজানুর রহমানকে (২০) আটক করে কোর্টহাজতে প্রেরণ করার পাশাপাশি ভিকটিমকে উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করেন।

 

এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ শিশির কুমার পাল যুগান্তরকে জানান, সম্প্রতি মির্জাগঞ্জ এলাকার টিউবওয়েল নির্মাণ শ্রমিক মিজানুর রহমান বানারীপাড়া এলাকায় তিনটি টিউবওয়েল বসানোর কাজ করেছেন। সে ৪ আগস্ট বানারীপাড়া সদর ইউনিয়নের একটি মেয়েকে (১৭) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে লেবুখালী এলাকায় চলে যায়। সেখানে সে ভিকটিমকে একটি ভাড়াটিয়া বাসায় আটকে রেখে দীর্ঘ ৯ দিন ধরে ধর্ষণ করে। বৃহস্পতিবার রাতে ভিকটিমের পিতা খবর পেয়ে সেখান থেকে সুকৌশলে তাকে উদ্ধার করে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন এবং পুরো ঘটনাটি থানা পুলিশকে অবহিত করেন। খবর পেয়ে তিনি ওই রাতেই সেখানে গিয়ে ধর্ষক মিজানুর রহমানকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

 

এ ব্যাপারে ওসি (তদন্ত) মো.জাফর আহম্মেদ যুগান্তরকে জানান, ভিকটিমকে উদ্ধারের পর বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করার পাশাপাশি ধর্ষক মিজানুর রহমানকে কোর্টহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া ধর্ষণের আলামত উদ্ধার করার জন্য ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ তদন্তপূর্বক এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন