আজও প্রবহমান তৃতীয় খলিফা হযরত ওসমানের (রা.) কূপ
jugantor
আজও প্রবহমান তৃতীয় খলিফা হযরত ওসমানের (রা.) কূপ

  তোফায়েল গাজালি  

০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:৪৭:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আজও প্রবহমান তৃতীয় খলিফা হযরত ওসমানের (রা.) কূপ

তৃতীয় খলিফা হযরত ওসমানের (রা.) কূপ এখনও বিদ্যমান। কূপের স্বচ্ছ পানিও প্রবহমান।

আরবের একটি বেসরকারি গবেষণা সংস্থার বিশেষজ্ঞ টিম মদিনায় অবস্থিত ওই কূপ পরীক্ষা করে দেখেছে হযরত ওসমানের (রা.) কূপের পানি এখনও প্রবহমান।

মহানবীর (সা.) সময়ে ওসমান (রা.) এক ইহুদির কাছ থেকে ওই কূপটি ক্রয় করে সর্বসাধারণের জন্য ওয়াকফ করে দেন।

সৌদি কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা ওই কূপের চারপাশে গড়ে ওঠা খেজুরবাগানে আজও কূপের পানি দিয়েই সেচকার্য সমাধা করা হয়।

প্রবেশাধিকার সংরক্ষিত থাকা হযরত ওসমানের (রা.) এই কূপের আসল নাম ‘বিরেরুমা’ বা রুমা কূপ। কূপটির মালিক রুমা নামক এক ব্যক্তির নামানুসারে এটাকে রুমা কূপ বলা হতো।

ওসমান (রা.) ৩৫ হাজার দিরহামের বিনিময়ে কূপটি ক্রয় করে রাসূলকে (সা.) বলেন, আমি কূপটি কিনে নিয়েছি এবং আজ থেকে কিয়ামত পর্যন্ত এই কূপের পানি সমস্ত মুসলমানের জন্য উন্মুক্ত করে দিলাম।

আল্লাহও তার এ দানকে চিরদিনের জন্য কবুল করে নিয়েছেন।

লেখক: পরিচালক, আল কুরআন ইন্সটিটিউট

আজও প্রবহমান তৃতীয় খলিফা হযরত ওসমানের (রা.) কূপ

 তোফায়েল গাজালি 
০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আজও প্রবহমান তৃতীয় খলিফা হযরত ওসমানের (রা.) কূপ
ছবি: সংগৃহীত

তৃতীয় খলিফা হযরত ওসমানের (রা.) কূপ এখনও বিদ্যমান। কূপের স্বচ্ছ পানিও প্রবহমান।

আরবের একটি বেসরকারি গবেষণা সংস্থার বিশেষজ্ঞ টিম মদিনায় অবস্থিত ওই কূপ পরীক্ষা করে দেখেছে হযরত ওসমানের (রা.) কূপের পানি এখনও প্রবহমান।

মহানবীর (সা.) সময়ে ওসমান (রা.) এক ইহুদির কাছ থেকে ওই কূপটি ক্রয় করে সর্বসাধারণের জন্য ওয়াকফ করে দেন। 

সৌদি কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা ওই কূপের চারপাশে গড়ে ওঠা খেজুরবাগানে আজও কূপের পানি দিয়েই সেচকার্য সমাধা করা হয়।

প্রবেশাধিকার সংরক্ষিত থাকা হযরত ওসমানের (রা.) এই কূপের আসল নাম ‘বিরেরুমা’ বা রুমা কূপ। কূপটির মালিক রুমা নামক এক ব্যক্তির নামানুসারে এটাকে রুমা কূপ বলা হতো।

ওসমান (রা.) ৩৫ হাজার দিরহামের বিনিময়ে কূপটি ক্রয় করে রাসূলকে (সা.) বলেন, আমি কূপটি কিনে নিয়েছি এবং আজ থেকে কিয়ামত পর্যন্ত এই কূপের পানি সমস্ত মুসলমানের জন্য উন্মুক্ত করে দিলাম। 

আল্লাহও তার এ দানকে চিরদিনের জন্য কবুল করে নিয়েছেন। 

লেখক: পরিচালক, আল কুরআন ইন্সটিটিউট
 

 
আরও খবর