‘নবীজীর আদর্শেই মানবতার মুক্তি’
jugantor
‘নবীজীর আদর্শেই মানবতার মুক্তি’

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৪ অক্টোবর ২০২২, ২১:১৮:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

‘নবীজীর আদর্শেই মানবতার মুক্তি’

নবীজী হজরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের আদর্শেই মানবতার মুক্তি রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন মাদরাসাতুল বালাগ ঢাকায় আয়োজিত সীরাত মাহফিলের বক্তারা।

শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্দেশে তারা বলেন, মানুষের এমন কোনো বিষয় নেই যে ক্ষেত্রে নবীজী আদর্শ হতে পারেন না। বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের চিন্তা করলেও নবীজীর আদর্শ বাস্তবায়ন জরুরি। কারণ, আজকাল সুদ-ঘুষ ও সামাজিক অনাচার সহজ হয়ে পড়েছে। সামাজিকভাবে একটা জাতিকে সুপথে আনতে চাইলে মহানবীর আদর্শ বাস্তবায়ন জরুরি।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর হাজারীবাগের মাদরাসাতুল বালাগ ঢাকায় আয়োজিত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে সীরাত মাহফিলে এসব কথা বলেন।

সীরাত মাহফিলে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্যে মুফতি হুমায়ুন আইয়ুব বলেন, অভিভাবকদের উচিত নিজেদের সন্তানদের গড়ে তোলার জন্য আকাবিরদের অনুসরণ করা। শিক্ষকদের কখনো কর্মচারী মনে করবেন না। এ মনোভাবে কখনোই আপনার সন্তান মানুষ হবে না। ছাত্র, শিক্ষক ও মনোভাবের ত্যাগ ও দোয়ার মাধ্যমেই একজন সন্তান মানুষ হয়। বড় পীর আবদুল কাদের জিলানী রহ.-এর মতো সত্যবাদী, হযরত হুসাইন আহমদ মাদানী রহ.-এর শিক্ষকপ্রেমী, কুতুবুদ্দীন খাকীর মতো বিনয়ী মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে আমাদের সন্তানদের।

দৈনিক আমার বার্তার সহকারী সম্পাদক মাওলানা মাসউদুল কাদির বলেন, শিশুদের প্রকৃত আদর্শই আমাদের নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। কারণ, শিশু অবস্থায়ও নবীজী ছিলেন বড় মানবিক মানুষ। দুগ্ধভাই শিশু আবদুল্লাহর জন্য দুগ্ধ পানেও তিনি মানবিক আচরণ করেছেন। মায়ের সঙ্গে ভালো আচরণ, বাবার সঙ্গে সত্যকথন, বন্ধুদের সঙ্গে ভালোবাসা আদানপ্রদানে আমাদের আদর্শ নবীজী। সুতরাং সর্বক্ষেত্রে নবীজীর আদর্শ বাস্তবায়নের চেষ্টা করতে হবে।

দারুল হিকমাহ আল ইসলামিয়া যাত্রাবাড়ির মুহতামিম মুফতি শফিক সাদী বলেন, হযরত খাদিজা রা. যেমন নবীজীকে সঙ্গ দিয়েছিলেন তেমনি আমাদেরও দ্বীনের খুঁটিকে অবিচল রাখার জন্য অবদান রাখতে হবে। মাদরাসাতুল বালাগের পাশে দাঁড়াতে হবে।

মাদরাসাতুল বালাগ, ঢাকার মুহতামিম মুফতি আহসান শরিফের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন, জামিয়া বাইতুল আমান মিনার মসজিদ মাদরাসার মুহাদ্দিস মুফতি আবদুল হান্নান হাবীব, দারুল ঊলূম বেয়ারার মুহতামিম মুফতি আজিজুল হক, আয়েশা সিদ্দিকা মহিলা মাদরসার মুহতামিম মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, নূরুল কুরআন মাদরসার মুহতামিম মুফতি হাবীবুর রহমান, নূরে জান্নাত মহিলা মাদরাসা মুহতামিম মুফতি জামালুদ্দীন, মুফতি আজিজুল হক, মাওলানা সাইফ শারাফাত, মাওলানা শরিফুল ইসলাম, মাওলানা আনিসুর রহমান, মোহাম্মদ আবুল হাসানাত ও মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।

‘নবীজীর আদর্শেই মানবতার মুক্তি’

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৪ অক্টোবর ২০২২, ০৯:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
‘নবীজীর আদর্শেই মানবতার মুক্তি’
মাদরাসাতুল বালাগ ঢাকায় আয়োজিত সীরাত মাহফিলের বক্তারা।

নবীজী হজরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের আদর্শেই মানবতার মুক্তি রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন মাদরাসাতুল বালাগ ঢাকায় আয়োজিত সীরাত মাহফিলের বক্তারা। 

শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্দেশে তারা বলেন, মানুষের এমন কোনো বিষয় নেই যে ক্ষেত্রে নবীজী আদর্শ হতে পারেন না। বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের চিন্তা করলেও নবীজীর আদর্শ বাস্তবায়ন জরুরি। কারণ, আজকাল সুদ-ঘুষ ও সামাজিক অনাচার সহজ হয়ে পড়েছে। সামাজিকভাবে একটা জাতিকে সুপথে আনতে চাইলে মহানবীর আদর্শ বাস্তবায়ন জরুরি।
 
সোমবার দুপুরে রাজধানীর হাজারীবাগের মাদরাসাতুল বালাগ ঢাকায় আয়োজিত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে সীরাত মাহফিলে এসব কথা বলেন।

সীরাত মাহফিলে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্যে মুফতি হুমায়ুন আইয়ুব বলেন, অভিভাবকদের উচিত নিজেদের সন্তানদের গড়ে তোলার জন্য আকাবিরদের অনুসরণ করা। শিক্ষকদের কখনো কর্মচারী মনে করবেন না। এ মনোভাবে কখনোই আপনার সন্তান মানুষ হবে না। ছাত্র, শিক্ষক ও মনোভাবের ত্যাগ ও দোয়ার মাধ্যমেই একজন সন্তান মানুষ হয়। বড় পীর আবদুল কাদের জিলানী রহ.-এর মতো সত্যবাদী, হযরত হুসাইন আহমদ মাদানী রহ.-এর শিক্ষকপ্রেমী, কুতুবুদ্দীন খাকীর মতো বিনয়ী মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে আমাদের সন্তানদের।
 
দৈনিক আমার বার্তার সহকারী সম্পাদক মাওলানা মাসউদুল কাদির বলেন, শিশুদের প্রকৃত আদর্শই আমাদের নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। কারণ, শিশু অবস্থায়ও নবীজী ছিলেন বড় মানবিক মানুষ। দুগ্ধভাই শিশু আবদুল্লাহর জন্য দুগ্ধ পানেও তিনি মানবিক আচরণ করেছেন। মায়ের সঙ্গে ভালো আচরণ, বাবার সঙ্গে সত্যকথন, বন্ধুদের সঙ্গে ভালোবাসা আদানপ্রদানে আমাদের আদর্শ নবীজী। সুতরাং সর্বক্ষেত্রে নবীজীর আদর্শ বাস্তবায়নের চেষ্টা করতে হবে। 

দারুল হিকমাহ আল ইসলামিয়া যাত্রাবাড়ির মুহতামিম মুফতি শফিক সাদী বলেন, হযরত খাদিজা রা. যেমন নবীজীকে সঙ্গ দিয়েছিলেন তেমনি আমাদেরও দ্বীনের খুঁটিকে অবিচল রাখার জন্য অবদান রাখতে হবে। মাদরাসাতুল বালাগের পাশে দাঁড়াতে হবে।
 
মাদরাসাতুল বালাগ, ঢাকার মুহতামিম মুফতি আহসান শরিফের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন,  জামিয়া বাইতুল আমান মিনার মসজিদ মাদরাসার মুহাদ্দিস মুফতি আবদুল হান্নান হাবীব, দারুল ঊলূম বেয়ারার মুহতামিম মুফতি আজিজুল হক, আয়েশা সিদ্দিকা মহিলা মাদরসার মুহতামিম মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, নূরুল কুরআন মাদরসার মুহতামিম মুফতি হাবীবুর রহমান, নূরে জান্নাত মহিলা মাদরাসা মুহতামিম মুফতি জামালুদ্দীন, মুফতি আজিজুল হক, মাওলানা সাইফ শারাফাত, মাওলানা শরিফুল ইসলাম, মাওলানা আনিসুর রহমান, মোহাম্মদ আবুল হাসানাত ও মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর