টাকার নোটের জীবাণু থেকে রক্ষা পেতে কী করবেন?

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৮ আগস্ট ২০১৯, ১৯:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

মাছ বাজারে টাকার নোটে জীবাণু।
মাছ বাজারে টাকার নোটে জীবাণু। ছবি সংগৃহীত

টাকার নোট বা কয়েনে থাকে ব্যাকটেরিয়া। আর এই ব্যাকটেরিয়া হাতে লেগে আমাদের পেটে গিয়ে অসুখ হতে পারে।

গবেষকরা বলছেন, যেসব জায়গায় টাকার লেনদেন বেশি হয় বাজারে সেখানে নোট বা কয়েনে ব্যাকটেরিয়া পেয়েছেন তারা। এ নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিবিসি বাংলা।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞানের ছাত্রী নিশাত তাসনিম প্রায় ছয়মাস টাকা ও কয়েনের ব্যাকটেরিয়া নিয়ে গবেষণা করেছেন।

গবেষণার জন্য ওই শিক্ষার্থী খুলনা শহরের বিভিন্ন পর্যায়ের দোকান ও বিভিন্ন পেশার মানুষের কাছ টাকা ও কয়েন সংরক্ষণ করেছেন।এসব টাকা বা কয়েনে তিনি মানুষের মল-মূত্র থেকে আসা ব্যাকটেরিয়া পেয়েছেন।

গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষের মলে থাকা ই-কোলাই জাতীয় ব্যাকটেরিয়া মিলেছে ক্ষতিকর মাত্রায় নমুনা হিসেবে সংগ্রহ করা টাকা ও কয়েনে।

নিশাত তাসনিম জানান, এক হাজার মাত্রা পর্যন্ত ব্যাকটেরিয়াকে সহনশীল হিসেবে ধরা হয়।তবে ১২টি উৎস থেকে নেয়া কাগজের টাকার নোট ও কয়েনের তার চেয়ে অনেক বেশি ব্যাকটেরিয়া পাওয়া গেছে।

তিনি বলেন,বাজারের মাছ, মাংস আর মুরগীর দোকান থেকে সংগ্রহ করা টাকার নোট আর কয়েনে সবচেয়ে বেশি পরিমাণ ই-কোলাই ব্যাকটেরিয়া পাওয়া গেছে।কারণ এসব জায়গায় বিক্রেতারা মাছ, মাংস,মুরগী ধরছেন এবং পরিষ্কার করছেন আবার সেই হাতেই টাকা ধরছেন।

ওই শিক্ষার্থী বলেন, প্রতিদিন আমরা একে অন্যের যে টাকা সঙ্গে শেয়ার করছি তা কতটা নিরাপদ। এ বিষয়টি দেখার জন্য এই গবেষণা করা হয়েছে। গবেষণায় পুরনো সব নোট ও কয়েনেই ক্ষতিকর মাত্রায় ই-কোলাই ও ফেকাল কলিফর্ম ব্যাকটেরিয়ার অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

গবেষকরা বলছেন পুরনো টাকায় বেশি ব্যাকটেরিয়া পাওয়া গেছে।

নিশাত তাসনিমের এই গবেষণার তত্ত্বাবধায়ক ছিলেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আব্দুল্লাহ হারুন চৌধুরী।

তিনি বলেন খুলনা, শহরে ছয় মাস ধরে গবেষণাটি পরিচালনা করা হয়।গবেষণায় পাওয়া গেছে জনস্বাস্থ্যের দৃষ্টিকোণ থেকে ভয়াবহ।পাওয়া গেছে মানুষের মল মূত্র থেকে আসা ব্যাকটেরিয়া, যা মানবদেহের জন্য ক্ষতিকারক।

কীভাবে নিরাপদ থাকবেন?

টাকা বা কয়েন ব্যবহারে ক্ষেত্রে কীভাবে নিরাপদ থাকা যায় এ বিষয়ে জানিয়েছেন, অধ্যাপক আব্দুল্লাহ হারুন চৌধুরী।

নোট বা কয়েন হাতে নেয়ার পর হাত না ধুয়ে খাবার খেলে ব্যাকটেরিয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা থাকে।তাই খাওয়া আগে অবশ্যই হাত ধুয়ে নিন।

যথাযথভাবে হাত না ধুয়ে খাবার খেলে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার কারণে ডায়রিয়াসহ নানা সমস্যা হতে পারে।

এমনকি খুব বেশি মাত্রায় ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার কারণে পরিপাকতন্ত্রের আরো নানা ধরণের রোগ হওয়ার আশংকা থেকে যায়।

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×