নারী কি মুসাফাহা ও কোলাকুলি করতে পারবেন?
jugantor
ইসলাম বিষয়ক প্রশ্নোত্তর
নারী কি মুসাফাহা ও কোলাকুলি করতে পারবেন?

  উত্তর দিয়েছেন মুফতি ইমরানুল বারী সিরাজী  

০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

খতিব, পীর ইয়ামেনী জামে মসজিদ

গুলিস্তান ঢাকা

রোকসানা জাহান দিবা, কুয়েত

প্রশ্ন : মহিলারা কি পরস্পর মুসাফাহা ও কোলাকুলি করতে পারবেন?

উত্তর : মহানবী (সা.) বলেন, ‘যখন দু’জন মুসলমান পরস্পর সাক্ষাৎ করে এবং মুসাফাহা করে তারা স্থান ত্যাগ করার আগেই তাদের গুনাহ মাফ হয়ে যায়। একজন মুসলমান আরেকজন মুসলমানের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় মুসাফাহা করা সুন্নত।

নবী করিম (সা.) হাদিসে নারী এবং পুরুষের মাঝে কোনো পার্থক্য করেননি। ইসলামিক গবেষকরাও পার্থক্য করেননি। তাই একজন পুরুষ যেমন পুরুষের সঙ্গে মুসাফাহা করতে পারে তেমনি একজন নারীও অপর নারীর সঙ্গে মুসাফাহা ও কোলাকুলি করতে পারবেন।

তথ্যসূত্র : আবু দাউদ শরিফ : হাদিস নং ৫২১২, ফতহুল বারি : খণ্ড-১১, পৃষ্ঠা-৫৭, কিতাবুল ফাতাওয়া : খণ্ড-৪, পৃষ্ঠা-১২৬।

আয়েশা রেজওয়ানা, মনতলা, মাধবপুর, হবিগঞ্জ

প্রশ্ন : আমি একটি ফ্ল্যাট বন্ধক নিয়েছি। আমি এটি ভাড়া দিতে চাই অথবা নিজের জন্য ব্যবহার করতে চাই? শরিয়ত কী বলে?

উত্তর : আপনি যে ফ্ল্যাট বন্ধক নিয়েছেন সেটি নিজে ব্যবহার অথবা অন্যজনের কাছে ভাড়া দেয়া বৈধ হবে না। কারণ এটি সুদের অন্তর্ভুক্ত। আল্লাহপাক সুদকে হারাম করেছেন।

নবী করিম (সা.) যে কোনো ধরনের ঋণ থেকে উপকৃত হতে নিষেধ করেছেন এবং এটিকে সুদ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। ইসলামিক স্কলাররা বলেছেন, বন্ধকদাতা বন্ধক গ্রহীতাকে বন্ধককৃত বস্তু ব্যবহারের অনুমতি দিলেও বন্ধক গ্রহীতার জন্য ব্যবহার করা এবং তা থেকে কোনো ধরনের উপকার গ্রহণ করা হারাম।

তথ্যসূত্র : সূরা বাকারা : আয়াত নং-২৭৫, দায়লামি হাদিস নং-৪৭৭৮, ফতহুল কাদির : খণ্ড-৭, পৃষ্ঠা-২৩৩, ফতোয়ায়ে শামি : খণ্ড-৫, পৃষ্ঠা- ৩১০।

ইসলাম বিষয়ক প্রশ্নোত্তর

নারী কি মুসাফাহা ও কোলাকুলি করতে পারবেন?

 উত্তর দিয়েছেন মুফতি ইমরানুল বারী সিরাজী 
০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

খতিব, পীর ইয়ামেনী জামে মসজিদ

গুলিস্তান ঢাকা

রোকসানা জাহান দিবা, কুয়েত

প্রশ্ন : মহিলারা কি পরস্পর মুসাফাহা ও কোলাকুলি করতে পারবেন?

উত্তর : মহানবী (সা.) বলেন, ‘যখন দু’জন মুসলমান পরস্পর সাক্ষাৎ করে এবং মুসাফাহা করে তারা স্থান ত্যাগ করার আগেই তাদের গুনাহ মাফ হয়ে যায়। একজন মুসলমান আরেকজন মুসলমানের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় মুসাফাহা করা সুন্নত।

নবী করিম (সা.) হাদিসে নারী এবং পুরুষের মাঝে কোনো পার্থক্য করেননি। ইসলামিক গবেষকরাও পার্থক্য করেননি। তাই একজন পুরুষ যেমন পুরুষের সঙ্গে মুসাফাহা করতে পারে তেমনি একজন নারীও অপর নারীর সঙ্গে মুসাফাহা ও কোলাকুলি করতে পারবেন।

তথ্যসূত্র : আবু দাউদ শরিফ : হাদিস নং ৫২১২, ফতহুল বারি : খণ্ড-১১, পৃষ্ঠা-৫৭, কিতাবুল ফাতাওয়া : খণ্ড-৪, পৃষ্ঠা-১২৬।

আয়েশা রেজওয়ানা, মনতলা, মাধবপুর, হবিগঞ্জ

প্রশ্ন : আমি একটি ফ্ল্যাট বন্ধক নিয়েছি। আমি এটি ভাড়া দিতে চাই অথবা নিজের জন্য ব্যবহার করতে চাই? শরিয়ত কী বলে?

উত্তর : আপনি যে ফ্ল্যাট বন্ধক নিয়েছেন সেটি নিজে ব্যবহার অথবা অন্যজনের কাছে ভাড়া দেয়া বৈধ হবে না। কারণ এটি সুদের অন্তর্ভুক্ত। আল্লাহপাক সুদকে হারাম করেছেন।

নবী করিম (সা.) যে কোনো ধরনের ঋণ থেকে উপকৃত হতে নিষেধ করেছেন এবং এটিকে সুদ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। ইসলামিক স্কলাররা বলেছেন, বন্ধকদাতা বন্ধক গ্রহীতাকে বন্ধককৃত বস্তু ব্যবহারের অনুমতি দিলেও বন্ধক গ্রহীতার জন্য ব্যবহার করা এবং তা থেকে কোনো ধরনের উপকার গ্রহণ করা হারাম।

তথ্যসূত্র : সূরা বাকারা : আয়াত নং-২৭৫, দায়লামি হাদিস নং-৪৭৭৮, ফতহুল কাদির : খণ্ড-৭, পৃষ্ঠা-২৩৩, ফতোয়ায়ে শামি : খণ্ড-৫, পৃষ্ঠা- ৩১০।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন