ভারতে ভারি বর্ষণ

উত্তরাঞ্চলে দ্বিতীয় ধাপের বন্যার আশঙ্কা

বিভিন্ন স্থানে ত্রাণ বিতরণ * পানিতে ডুবে আরও ৪ জনের মৃত্যু

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৩ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

উত্তরাঞ্চলে বন্যার আশঙ্কা
ছবি: যুগান্তর

ভারত থেকে বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলের পানি আসার প্রবণতা গত কয়েকদিন অনেকটাই কমে গিয়েছিল। এতে উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলায় বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছিল।

কিন্তু দু’দিন ধরে পশ্চিমবঙ্গ, সিকিম, আসাম ও মেঘালয়ে বৃষ্টির পরিমাণ বেড়েছে। এতে পানিপ্রবাহ বেড়েছে তিস্তা ও ব্রহ্মপুত্র নদে। ফলে নীলফামারী ও কুড়িগ্রামসহ উত্তরাঞ্চলে দ্বিতীয় ধাপের বন্যা শুরুর উপক্রম হয়েছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর (বিএমডি) এবং ভারতীয় আবহাওয়া অধিদফতরকে (আইএমডি) উদ্ধৃত করে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র (এফএফডব্লিউসি) বলেছে, বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল এবং তৎসংলগ্ন ভারতের আসাম ও পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলে ২৪ ঘণ্টায় ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা আছে।

২৪ ঘণ্টায় জলপাইগুড়িতে ১৭৩ মিলিমিটার এবং চেরাপুঞ্জিতে ১১৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশের ভেতরেও লালখান, ছাতক, সুনামগঞ্জ, সিলেট ও শেওলায় ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড পরিমাণ বৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে ২৪ ঘণ্টায় ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তা ও কুড়িগ্রাম পয়েন্টে ধরলা বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে। সিলেটের সুরমা-কুশিয়ারায়ও পানিপ্রবাহ বাড়তে পারে।

বুয়েটের পানি ও বন্যা ব্যবস্থাপনা ইন্সটিটিউটের অধ্যাপক ড. একেএম সাইফুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, বাংলাদেশের বন্যার কারণ তিন অববাহিকায় আসা অতিরিক্ত পানিপ্রবাহ। অববাহিকাগুলো হচ্ছে- গঙ্গা-পদ্মা, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা ও মেঘনা। এ তিন অববাহিকার মধ্যে মাত্র প্রায় ৮ শতাংশ বাংলাদেশের মধ্যে আছে।

বাকি অংশ চীন, ভারত, নেপাল ও ভুটানে বিস্তৃত। ফলে দেশের বাইরে বৃষ্টি হলে সেটাই আমাদের বেশি আক্রান্ত করে। তিনি আরও বলেন, মঙ্গলবার থেকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গসহ পূর্বাঞ্চলে বৃষ্টিপাত হলে বাংলাদেশ দ্বিতীয় দফায় বন্যায় আক্রান্ত হবে।

এফএফডব্লিউসি বলছে, কয়েকদিন বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় উত্তরাঞ্চল থেকে বানের পানি নেমে আসছিল। এতে উত্তরাঞ্চলে বন্যার ক্রম উন্নতি সোমবারও অব্যাহত ছিল। সুরমা-কুশিয়ারা এবং ঢাকার চারপাশের নদনদী বাদে দেশের অন্যসব নদীর পানির সমতল হ্রাস পাচ্ছে। যমুনা ও গঙ্গা-পদ্মায় পানি হ্রাসের প্রবণতা অব্যাহত থাকবে।

সোমবার পর্যন্ত বন্যায় আক্রান্ত জেলাগুলোর মধ্যে আছে- কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, নীলফামারী, রংপুর, গাইবান্ধা, বগুড়া, জামালপুর, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, নওগাঁ, টাঙ্গাইল, রাজবাড়ী, মানিকগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, চাঁদপুর, নেত্রকোনা, সিলেট, সুনামগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার।

এছাড়া চট্টগ্রাম, বান্দরবান, কক্সবাজার, শেরপুর জেলা বন্যায় আক্রান্ত হয়। এফএফডব্লিউসির মতে, ২৪ ঘণ্টায় বগুড়া, জামালপুর, গাইবান্ধা, টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী, ফরিদপুর ও মুন্সীগঞ্জ জেলায় বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে।

এফএফডব্লিউসি’র দেয়া বুলেটিনে বলা হয়, ১৪ নদনদীর পানি ২১ স্টেশনে বিপদসীমার উপরে প্রবাহিত হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- সুরমা, কুশিয়ারা, তিতাস, মেঘনা, ঘাঘট, ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, আত্রাই, ধলেশ্বরী, পুরনো ব্রহ্মপুত্র ও পদ্মা ২০ পয়েন্টে বিপদসীমার উপরে আছে। তবে তিস্তা ও ধরলার পানিও বিপদসীমার উপরে চলে গেছে।

এদিকে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আবদুর রাজ্জাক এমপি আজ মানিকগঞ্জ যাচ্ছেন। জেলার বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন ও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করবেন তিনি। দেশের বিভিন্ন জেলায় বন্যাকবলিত এলাকায় ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে আওয়ামী লীগ। এরই অংশ হিসেবে কৃষিমন্ত্রী এ ত্রাণ বিতরণ করবেন। মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা গিয়াসউদ্দিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

জামালপুর, ইসলামপুর ও দেওয়ানগঞ্জ : বন্যার পানির তীব্র স্রোতে দেওয়ানগঞ্জে ৫০ ফুট রেললাইনের নিচের মাটি সরে গেছে। এ কারণে ঢাকার সঙ্গে দেওয়ানগঞ্জে সরাসরি আন্তঃনগর তিস্তা, ব?হ্মপুত্রসহ এ পথে চলাচলকারী সব ট্রেন বন্ধ রয়েছে। সোমবার দুপুরে সরেজমিন দেখা গেছে, দেওয়ানগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে ইসলামপুরমুখী রেললাইনের দিঘলকান্দি ৩১নং রেল ব্রিজের পাশ থেকে রেললাইনের মাটি সরে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয় লোকজন জানান, বন্যার পানির চাপে মাটি সরে যায়।

এদিকে জামালপুর পৌরসভার তেঁতুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বন্যাদুর্গতদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে এ ত্রাণসামগ্রী বিতরণের উদ্বোধন করেন সদর আসনের এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোজাফফর হোসেন। এদিন ইসলামপুরে বন্যার পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তারা হল- মুখ শিমলা গ্রামের আবদুস সাত্তারের মেয়ে শারমিন আক্তার (১২) ও সাপধরী ইউনিয়নের আকন্দপাড়া গ্রামের মোফাজ্জল আকন্দের মেয়ে ময়ছন বেগম (৩)।

কুড়িগ্রাম ও চিলমারী : সোমবার দুপুরে চিলমারীতে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক। এ সময় তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনারা সাহস হারাবেন না।

ইনশাআল্লাহ এই পানি নামার পরও যে পরিস্থিতি আসবে, সেই পরিস্থিতিও মোকাবেলার জন্য মাটির কেল্লা তৈরি হবে, বন্যাসহনীয় ঘর তৈরি করে দেয়া হবে, একটি মানুষও গৃহহীন থাকবেন না আপনারা।’ এদিকে জেলার সাড়ে ৯ লাখ বানভাসি মানুষ চরম দুর্ভোগে। নেই বিশুদ্ধ পানি।

অপ্রতুল ত্রাণ। বিধ্বস্ত রাস্তাঘাট, বাঁধ, ঘরবাড়ি। নেই শৌচকর্ম সম্পন্ন করার মতো নিরাপদ ব্যবস্থা। সবমিলিয়ে এ জনপদের কয়েক লাখ মানুষ দুর্বিষহ জীবনযাপন করছেন। শনিবার চিলমারীর পুপিমারী কাজলডাঙ্গা ফকিরেরভিটা এলাকায় পানিতে ডুবে ছমিরন বেওয়া (৭০) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

শেরপুর : পানি কিছুটা কমলেও ব্রহ্মপুত্র বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের পুরনো ভাঙা অংশ দিয়ে চরাঞ্চলে বন্যার পানি প্রবেশ অব্যাহত আছে। শেরপুর-জামালপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের দুটি স্থানের কজওয়ে (ডাইভারশন) পানিতে তলিয়ে থাকায় ওই মহাসড়কে পাঁচদিন ধরে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

শেরপুর সদর উপজেলার ঝাউয়ের চর এলাকায় রোববার বন্যার পানিতে গোসল করতে গিয়ে সুমন নামে ১২ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকালে শেরপুর পৌরসভার উদ্যোগে পৌর এলাকার বন্যাকবলিতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।

শরীয়তপুর : পদ্মা নদীর তীরবর্তী জাজিরা, নড়িয়া ও ভেদরগঞ্জ উপজেলার চরাঞ্চলের নিুাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। সোমবার জোয়ারের সময় সুরেশ্বর পয়েন্টে পদ্মার পানি বিপদসীমার ২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাতি হয়েছে। তলিয়ে গেছে ৩টি উপজেলার নিুাঞ্চলের অনেক ফসলি জমি।

ঢাকা-শরীয়তপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের উত্তর ডুবুলদিয়ায় নির্মাণাধীন ব্রিজের পাশের বিকল্প সড়কটি পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় এই সড়কের জাজিরার কাজীরহাট থেকে মঙ্গলমাঝিরঘাট পর্যন্ত যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।

মাদারীপুর ও শিবচর : বন্দোরখোলা ইউনিয়নের মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি নদীভাঙনে হুমকিতে রয়েছে। তলিয়ে গেছে বিদ্যালয়ের চারপাশসহ পুরো চরাঞ্চল। বন্যা ও ভাঙনে বসতভিটা হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে আশ্রয় নিয়েছে অর্ধশত পরিবার। ত্রাণ তৎপরতা শুরু হলেও তা খুবই সীমিত।

জেলার শিবচরের বন্দরখোলা, কাঁঠালবাড়ী ও চরজানাজাত ইউনিয়নে পদ্মা নদীর ভাঙন ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। কয়েকদিনে ২ শতাধিক ঘরবাড়ি, ১টি মাদ্রাসা ও কালভার্ট বিলীন হয়ে গেছে।

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) : শতাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বন্যার পানি প্রবেশ করায় সেগুলো বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। অনেক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ ও অফিস কক্ষে কোমরসম পানি। পানির কারণে বিদ্যালয়ের আসবাবপত্র ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তাছাড়া পাঠদান বন্ধ থাকায় আসন্ন পিইসি, জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্থীদের পড়াশোনা বিঘ্নিত হচ্ছে। এদিকে ৮টি প্রাথমিক ও ৭টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে খোলা হয়েছে আশ্রয় কেন্দ্র।

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) : উপজেলায় বন্যার পানি কমতে শুরু করলেও এলাকাবাসীর দুর্ভোগ কমেনি। খোলা আকাশের নিচে বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে শত শত বাসিন্দা। নিজেদের খাবারের পাশাপাশি গবাদিপশু গরু-ছাগল নিয়ে বিপাকে পড়েছেন তারা। ১ সপ্তাহ ধরে কৈজুরি ইউনিয়নের জয়পুরা থেকে জগতলা পর্যন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার নতুন বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রিত মানুষ কোনো ত্রাণ পাননি বলে অভিযোগ করেছেন।

বগুড়া : সারিয়াকান্দি, সোনাতলা ও ধুনট উপজেলায় কয়েকদিনের বন্যায় ১২ হাজার ২৩০ হেক্টর জমির ফসল প্লাবিত হয়েছে। এদিকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেছেন, দেশের যে কোনো প্রান্তে চাহিদা অনুযায়ী কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ত্রাণ পৌঁছে দেয়ার জন্য আমরা প্রস্তুত। কোথাও ত্রাণের সংকট থাকবে না। সোমবার দুপুরে ধুনট উপজেলার ভাণ্ডারবাড়ি ইউনিয়নের বানভাসি ১৫০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

গাইবান্ধা : বন্যার কারণে অধিকাংশ ভোট কেন্দ্র তলিয়ে যাওয়ায় গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপনির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপসচিব, নির্বাচন পরিচালনা-২ মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক পত্রে এ নির্দেশনা প্রদান করেন।

চরভদ্রাসন (ফরিদপুর) : এক সপ্তাহ ধরে চরাঞ্চলের বানভাসিরা কর্মহীন অবস্থায় খেয়ে না খেয়ে দিন কাটালেও কেউ কোনো খোঁজখবর নেয়নি বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বন্যার্তরা।

উপজেলার চরঝাউকান্দা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের চর কল্যাণপুর মৌজার বানভাসি আনোয়ার বরকন্তাজ (৭০) কেঁদে বলেন, ‘সাতদিন ধরে জলজ প্রাণীর মতো পানির মধ্যে আটক অবস্থায় বসবাস করছি। কোথায় আমাদের নেতারা! কেউ তো একবার আমাদের দেখতেও এলো না।’ তবে উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা আল-সাঈদ বলেন, সোমবার চরঝাউকান্দা ইউনিয়নে ২০০ বানভাসি পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।

সিলেট : গত দুইদিনের বৃষ্টিতে আবারও বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর পানি। সিলেটে ৪টি পয়েন্টে সুরমা-কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ফের বন্যার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা। বন্যা মোকাবেলায় সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

নাগরপুর (টাঙ্গাইল) : নাগরপুরে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সোমবার দিনভর উপজেলার দপ্তিয়র, সহবতপুর, ভারড়া ও ধুবড়িয়া ইউনিয়নের বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়। দুর্গত এলাকার প্রতিটি পরিবারকে ২০ কেজি করে চাল, শুকনো খাবার, খাবার স্যালাইন ও পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করা হয়।

ডিমলা (নীলফামারী) : সোমবার দুপুরে তিস্তা ব্যারাজের সামনে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০ পরিবারকে আনসার ভিডিবির নিজস্ব অর্থায়নে শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়। বন্যার্তদের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করেন আনসার ও গ্রামপ্রতিরক্ষা বাহিনী রংপুর রেঞ্জের পরিচালক একেএম জিয়াউল আলম।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×