গুলশানে স্পা সেন্টারে অভিযান, নারী-পুরুষসহ গ্রেফতার ২৮
jugantor
গুলশানে স্পা সেন্টারে অভিযান, নারী-পুরুষসহ গ্রেফতার ২৮

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:২৯:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

গুলশানে স্পা সেন্টারে অভিযান, নারী-পুরুষসহ গ্রেফতার ২৮

রাজধানীর গুলশানের ২-এর একটি স্পা সেন্টারে অভিযান চালিয়ে অসামাজিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে ১২ পুরুষ ও ১৬ নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার রাতে পুলিশের গুলশান বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

গুলশান থানা পুলিশ জানায়, রাত সাড়ে ৮টায় ওই স্পা সেন্টারে অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে স্পা সেন্টারের আড়ালে ওই সেন্টারে অসামাজিক কাজ করার প্রমাণ পাওয়া যায়। এ সময় ১২ জন নারী ও ১৬ জন পুরুষকে আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা করেছেন গুলশান থানার এসআই ওলিয়ার রহমান।

গুলশান বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সুদীপ কুমার চক্রবর্তী জানান, গুলশান ২-এ ১০৫ নম্বর রোডের অ্যাপেল থাই স্পা সেন্টার নামে বিভিন্ন স্থান থেকে নারীদের একত্রিত করে দেহব্যবসা পরিচালনার কাজ চলে আসছিল।

রাতে অভিযান চালিয়ে এই সেন্টারগুলোতে অসামাজিক কাজের প্রমাণ পাওয়া যায়। এ সময় ১২ নারী ও ১৬ পুরুষকে গ্রেফতার করা হয়।

গুলশানে স্পা সেন্টারে অভিযান, নারী-পুরুষসহ গ্রেফতার ২৮

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:২৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গুলশানে স্পা সেন্টারে অভিযান, নারী-পুরুষসহ গ্রেফতার ২৮
ফাইল ছবি

রাজধানীর গুলশানের ২-এর একটি স্পা সেন্টারে অভিযান চালিয়ে অসামাজিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে ১২ পুরুষ ও ১৬ নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার রাতে পুলিশের গুলশান বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

গুলশান থানা পুলিশ জানায়, রাত সাড়ে ৮টায় ওই স্পা সেন্টারে অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে স্পা সেন্টারের আড়ালে ওই সেন্টারে অসামাজিক কাজ করার প্রমাণ পাওয়া যায়। এ সময় ১২ জন নারী ও ১৬ জন পুরুষকে আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা করেছেন গুলশান থানার এসআই ওলিয়ার রহমান।

গুলশান বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সুদীপ কুমার চক্রবর্তী জানান, গুলশান ২-এ ১০৫ নম্বর রোডের অ্যাপেল থাই স্পা সেন্টার নামে বিভিন্ন স্থান থেকে নারীদের একত্রিত করে দেহব্যবসা পরিচালনার কাজ চলে আসছিল।

রাতে অভিযান চালিয়ে এই সেন্টারগুলোতে অসামাজিক কাজের প্রমাণ পাওয়া যায়। এ সময় ১২ নারী ও ১৬ পুরুষকে গ্রেফতার করা হয়।