ছোট ভাইয়ের অবৈধ সম্পর্কে প্রাণ গেল বড় ভাইয়ের!
jugantor
ছোট ভাইয়ের অবৈধ সম্পর্কে প্রাণ গেল বড় ভাইয়ের!

  গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২৮ জুলাই ২০২০, ২১:০৭:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে ছোট ভাইয়ের অবৈধ প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে তার বড় ভাই নিজাম উদ্দিন কমল (৪০) নামে কবিরাজকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ।

সোমবার রাতে উপজেলার বোকাইনগর ইউনিয়নের দাড়িয়াপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তিনি দাড়িয়াপুর গ্রামের মৃত জসিম উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় গৌরীপুর থানায় নিহতের স্ত্রী সালেমা খাতুন বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

স্থানীয় ও পরিবার সূত্র জানায়, কবিরাজ কমলের ছোট ভাই এমদাদুল হকের সঙ্গে প্রতিবেশী চার সন্তানের জননী এক নারীর অবৈধ প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সোমবার রাতে এমদাদুল হক ওই নারীর বাড়িতে দেখা করতে গেলে পরিবারের লোকজন টের পেয়ে লাঠি-সোটা নিয়ে তাকে ধাওয়া করে এবং তাদের বাড়িতে হামলা চালায়।

এ সময় এমদাদের ডাক-চিৎকার শুনে বড় ভাই কমল ঘর থেকে বের হলে প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে লাঠি-সোটা দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে পরিবারের লোকজন আহত অবস্থায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিজাম উদ্দিন কমলের ছেলে মেহেদি হাসান বলেন, যে নারীর সঙ্গে আমার চাচার সম্পর্ক ছিল তাদের পরিবারের লোকজন আমার বাবাকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। বাড়িঘর ভাঙচুর করেছে। আমি বাবার হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই।

গৌরীপুর থানার ওসি বোরহান উদ্দিন জানান, পরকীয়া সম্পর্কের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মচিমহার মর্গে প্রেরণ করেছে। পুলিশ অভিযুক্ত নারীকে গ্রেফতার করেছে।
 

ছোট ভাইয়ের অবৈধ সম্পর্কে প্রাণ গেল বড় ভাইয়ের!

 গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২৮ জুলাই ২০২০, ০৯:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে ছোট ভাইয়ের অবৈধ প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে তার বড় ভাই নিজাম উদ্দিন কমল (৪০) নামে কবিরাজকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ।

সোমবার রাতে উপজেলার বোকাইনগর ইউনিয়নের দাড়িয়াপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তিনি দাড়িয়াপুর গ্রামের মৃত জসিম উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় গৌরীপুর থানায় নিহতের স্ত্রী সালেমা খাতুন বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

স্থানীয় ও পরিবার সূত্র জানায়, কবিরাজ কমলের ছোট ভাই এমদাদুল হকের সঙ্গে প্রতিবেশী চার সন্তানের জননী এক নারীর অবৈধ প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সোমবার রাতে এমদাদুল হক ওই নারীর বাড়িতে দেখা করতে গেলে পরিবারের লোকজন টের পেয়ে লাঠি-সোটা নিয়ে তাকে ধাওয়া করে এবং তাদের বাড়িতে হামলা চালায়।

এ সময় এমদাদের ডাক-চিৎকার শুনে বড় ভাই কমল ঘর থেকে বের হলে প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে লাঠি-সোটা দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে পরিবারের লোকজন আহত অবস্থায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিজাম উদ্দিন কমলের ছেলে মেহেদি হাসান বলেন, যে নারীর সঙ্গে আমার চাচার সম্পর্ক ছিল তাদের পরিবারের লোকজন আমার বাবাকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। বাড়িঘর ভাঙচুর করেছে। আমি বাবার হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই।

গৌরীপুর থানার ওসি বোরহান উদ্দিন জানান, পরকীয়া সম্পর্কের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মচিমহার মর্গে প্রেরণ করেছে। পুলিশ অভিযুক্ত নারীকে গ্রেফতার করেছে।