মাদারীপুরে সংঘর্ষে নিহত ১, অর্ধশতাধিক ককটেল বিস্ফোরণ
jugantor
মাদারীপুরে সংঘর্ষে নিহত ১, অর্ধশতাধিক ককটেল বিস্ফোরণ

  টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

১৩ আগস্ট ২০২০, ১৯:৫৪:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

নিহত লুৎফর হাওলাদারের স্বজনদের আহাজারি

মাদারীপুর সদর উপজেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের গাছবাড়িয়া এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষে বৃহস্পতিবার সকালে একজন নিহত হয়েছেন। এতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, সংঘর্ষ চলাকালে প্রায় অর্ধশত ককটেল বিস্ফোরণ হয়। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের বেশকিছু বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ইউনুস চৌদিকার ও লালমিয়া মাতবরের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এই বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার সকালে দুপক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। উভয়পক্ষের দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ায় আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

সংঘর্ষ চলাকালে প্রায় অর্ধশত ককটেল বিস্ফোরিত হয়। উভয়পক্ষের বেশকিছু বাড়িঘরে ভাংচুর ও লুটপাট চালানো হয়। সংঘর্ষের সময় প্রতিপক্ষের লোকজন লুৎফর হাওলাদারকে (৪৫) কুপিয়ে জখম করে। এতে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান। নিহত লুৎফর হাওলাদার গাছবাড়িয়া এলাকার ইদ্রিস হাওলাদারের ছেলে।

এ ঘটনায় অন্তত ১০ জন আহত হন। আহতরা গ্রেফতারের ভয়ে হাসপাতালে ভর্তি না হয়ে পালিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে সদর থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষের পর গ্রেফতার আতঙ্কে পুরো এলাকা পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে। এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মাদারীপুর সদর থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিঞা বলেন, লুৎফর হাওলাদার নামে একজনের লাশ উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান সাংবাদিকদের জানান, নিহতের শরীরের পেছনে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এলাকায় অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মাদারীপুরে সংঘর্ষে নিহত ১, অর্ধশতাধিক ককটেল বিস্ফোরণ

 টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
১৩ আগস্ট ২০২০, ০৭:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নিহত লুৎফর হাওলাদারের স্বজনদের আহাজারি
নিহত লুৎফর হাওলাদারের স্বজনদের আহাজারি

মাদারীপুর সদর উপজেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের গাছবাড়িয়া এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষে বৃহস্পতিবার সকালে একজন নিহত হয়েছেন। এতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, সংঘর্ষ চলাকালে প্রায় অর্ধশত ককটেল বিস্ফোরণ হয়। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের বেশকিছু বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ইউনুস চৌদিকার ও লালমিয়া মাতবরের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এই বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার সকালে দুপক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। উভয়পক্ষের দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ায় আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

সংঘর্ষ চলাকালে প্রায় অর্ধশত ককটেল বিস্ফোরিত হয়। উভয়পক্ষের বেশকিছু বাড়িঘরে ভাংচুর ও লুটপাট চালানো হয়। সংঘর্ষের সময় প্রতিপক্ষের লোকজন লুৎফর হাওলাদারকে (৪৫) কুপিয়ে জখম করে। এতে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান। নিহত লুৎফর হাওলাদার গাছবাড়িয়া এলাকার ইদ্রিস হাওলাদারের ছেলে।

এ ঘটনায় অন্তত ১০ জন আহত হন। আহতরা গ্রেফতারের ভয়ে হাসপাতালে ভর্তি না হয়ে পালিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে সদর থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষের পর গ্রেফতার আতঙ্কে পুরো এলাকা পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে। এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মাদারীপুর সদর থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিঞা বলেন, লুৎফর হাওলাদার নামে একজনের লাশ উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান সাংবাদিকদের জানান, নিহতের শরীরের পেছনে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এলাকায় অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন