ফিলিস্তিনের কারণে আরব লীগের সভাপতির পদ প্রত্যাখ্যান লিবিয়ার
jugantor
ফিলিস্তিনের কারণে আরব লীগের সভাপতির পদ প্রত্যাখ্যান লিবিয়ার

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৭ অক্টোবর ২০২০, ২০:১৮:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিলিস্তিনের কারণে আরব লীগের সভাপতির পদ প্রত্যাখ্যান লিবিয়ার


ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের পর আরব লীগের সভাপতির পদ নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছে।

ফিলিস্তিন, কাতার এবং কুয়েতের পর এবার আরব লীগের পর্যায়ক্রমিক সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে লিবিয়া।

ইরান প্রেসের খবরে বলা হয়, কাতার এবং কুয়েতের পর লিবিয়াকে এই পদ গ্রহণের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু লিবিয়ার জাতিসংঘ সমর্থিত সরকার প্রস্তাবটি ফিরিয়ে দিয়েছে।

সম্প্রতি ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইনের নিন্দা করতে আরব লীগের বৈঠকে একটি প্রস্তাব তোলে ফিলিস্তিন। কিন্তু সে প্রস্তাব গ্রহণ করা হয় নি।

আরব লীগের পর্যায়ক্রমিক সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণের কথা ছিল ফিলিস্তিনের। ইসরাইলের সঙ্গে দুই আরব দেশের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রতিবাদে গত ২২ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনের স্বশাসিত সরকার আরব লীগের সভাপতির পদ গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানায়।

এরপর পর্যায়ক্রমে কাতার, কুয়েত ও লিবিয়াকে এই লীগের সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণের প্রস্তাব দেয়া হয়। কিন্তু ফিলিস্তিনের অস্বীকৃতির জের ধরে কাতার ও কুয়েত আরব লীগের সভাপতির পদ প্রত্যাখ্যান করে।

ফিলিস্তিনের কারণে আরব লীগের সভাপতির পদ প্রত্যাখ্যান লিবিয়ার

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৭ অক্টোবর ২০২০, ০৮:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফিলিস্তিনের কারণে আরব লীগের সভাপতির পদ প্রত্যাখ্যান লিবিয়ার
ছবি: ইরান প্রেস


ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের পর আরব লীগের সভাপতির পদ নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছে। 

ফিলিস্তিন, কাতার এবং কুয়েতের পর এবার আরব লীগের পর্যায়ক্রমিক সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে লিবিয়া। 

ইরান প্রেসের খবরে বলা হয়, কাতার এবং কুয়েতের পর লিবিয়াকে এই পদ গ্রহণের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু লিবিয়ার জাতিসংঘ সমর্থিত সরকার প্রস্তাবটি ফিরিয়ে দিয়েছে। 

সম্প্রতি ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইনের নিন্দা করতে আরব লীগের বৈঠকে একটি প্রস্তাব তোলে ফিলিস্তিন। কিন্তু সে প্রস্তাব গ্রহণ করা হয় নি।

আরব লীগের পর্যায়ক্রমিক সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণের কথা ছিল ফিলিস্তিনের। ইসরাইলের সঙ্গে দুই আরব দেশের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রতিবাদে গত ২২ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনের স্বশাসিত সরকার আরব লীগের সভাপতির পদ গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানায়।

এরপর পর্যায়ক্রমে কাতার, কুয়েত ও লিবিয়াকে এই লীগের সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণের প্রস্তাব দেয়া হয়। কিন্তু ফিলিস্তিনের অস্বীকৃতির জের ধরে কাতার ও কুয়েত আরব লীগের সভাপতির পদ প্রত্যাখ্যান করে।
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : আরব আমিরাত-ইসরাইল সম্পর্ক