দুই ভাই হত্যা: মূর্ছা যাচ্ছেন মা, দুই দিনেও জ্ঞান ফেরেনি বাবার
jugantor
দুই ভাই হত্যা: মূর্ছা যাচ্ছেন মা, দুই দিনেও জ্ঞান ফেরেনি বাবার

  আব্দুল মান্নান, ভাঙ্গা (ফরিদপুর)  

২৬ আগস্ট ২০২০, ২০:০৬:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় দুই ভাইকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনার দুই দিন পর ভাঙ্গা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। এদিকে একসঙ্গে দুই ছেলেকে হারিয়ে বারবার মূর্ছা যাচ্ছেন মা, আর দুই দিনেও জ্ঞান ফেরেনি বাবার।

মঙ্গলবার রাতে নিহতের মেজো ভাই আলিনুর মাতবর বাদী হয়ে ১৬ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ৪-৫ জনকে আসামি করে ভাঙ্গা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। বর্তমানে এলাকাটি পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে।

নিহতের মা রাবেয়া বেগম বিলাপ করে বলেন, আমার দুই ছেলেকে চোখের পলকে আমার কোল থেকে নিয়ে মেরে ফেলল। ওরা আমার ছেলেদেরকে কলাগাছের মত কুপিয়েছে। আমি কি করে সহ্য করব? আমি বাঁচতে চাই না। আমি খুনিদের ফাঁসি চাই।

এভাবেই বিলাপ করে বলতে থাকেন মা রাবেয়া বেগম। মায়ের আহাজারিতে যেন ভারি হয়ে ওঠে এলাকার আকাশ বাতাস।

সোমবার ভোরে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের হাউলি গঙ্গাধরদী গ্রামে কারেন্টজাল পাতা নিয়ে সংঘর্ষে আপন দুই ভাই নিহত হন।

এ ঘটনায় মামলার বাদী নিহতের ভাই আলীনুর মাতবর বলেন, আমি ১৬ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ৪-৫ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছি। আমার বাবা ও মা দুইজনই বেহুঁশ। বড় ভাই মালয়েশিয়ায় খবর শুনে সেও বেহুঁশ, মোবাইল ধরে না। আমি হত্যার ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ফাঁসি চাই।

ভাঙ্গা থানার ওসি মো. শফিকুর রহমান বলেন, বাদীরা সবাই অসুস্থ থাকার কারণে এজাহার দিতে বিলম্ব করেছে। আমরা ছদ্দাক মাতবর (৬৫), আফজাল মাতবর (৪৫) ও সালাম মাতবর (৩৫) নামের তিন আসামিকে গ্রেফতার করেছি। বাকি আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করার চেষ্টা চলছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

দুই ভাই হত্যা: মূর্ছা যাচ্ছেন মা, দুই দিনেও জ্ঞান ফেরেনি বাবার

 আব্দুল মান্নান, ভাঙ্গা (ফরিদপুর) 
২৬ আগস্ট ২০২০, ০৮:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় দুই ভাইকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনার দুই দিন পর ভাঙ্গা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। এদিকে একসঙ্গে দুই ছেলেকে হারিয়ে বারবার মূর্ছা যাচ্ছেন মা, আর দুই দিনেও জ্ঞান ফেরেনি বাবার।

মঙ্গলবার রাতে নিহতের মেজো ভাই আলিনুর মাতবর বাদী হয়ে ১৬ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ৪-৫ জনকে আসামি করে ভাঙ্গা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। বর্তমানে এলাকাটি পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে।

নিহতের মা রাবেয়া বেগম বিলাপ করে বলেন, আমার দুই ছেলেকে চোখের পলকে আমার কোল থেকে নিয়ে মেরে ফেলল। ওরা আমার ছেলেদেরকে কলাগাছের মত কুপিয়েছে। আমি কি করে সহ্য করব? আমি বাঁচতে চাই না। আমি খুনিদের ফাঁসি চাই।

এভাবেই বিলাপ করে বলতে থাকেন মা রাবেয়া বেগম। মায়ের আহাজারিতে যেন ভারি হয়ে ওঠে এলাকার আকাশ বাতাস।

সোমবার ভোরে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের হাউলি গঙ্গাধরদী গ্রামে কারেন্টজাল পাতা নিয়ে সংঘর্ষে আপন দুই ভাই নিহত হন।

এ ঘটনায় মামলার বাদী নিহতের ভাই আলীনুর মাতবর বলেন, আমি ১৬ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ৪-৫ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছি। আমার বাবা ও মা দুইজনই বেহুঁশ। বড় ভাই মালয়েশিয়ায় খবর শুনে সেও বেহুঁশ, মোবাইল ধরে না। আমি হত্যার ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ফাঁসি চাই।

ভাঙ্গা থানার ওসি মো. শফিকুর রহমান বলেন, বাদীরা সবাই অসুস্থ থাকার কারণে এজাহার দিতে বিলম্ব করেছে। আমরা ছদ্দাক মাতবর (৬৫), আফজাল মাতবর (৪৫) ও সালাম মাতবর (৩৫) নামের তিন আসামিকে গ্রেফতার করেছি। বাকি আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করার চেষ্টা চলছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন