গৃহবধূর ছবি ফেসবুকে দিয়ে টাকা দাবি করায় মামলা
jugantor
গৃহবধূর ছবি ফেসবুকে দিয়ে টাকা দাবি করায় মামলা

  বাসাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি  

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:১৬:১০  |  অনলাইন সংস্করণ

ফেসবুবে ছবি

টাঙ্গাইলের বাসাইলে গৃহবধূর অন্তরঙ্গ ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে টাকা দাবির অভিযোগ উঠেছে দুই প্রতিবেশী যুবকের বিরুদ্ধে। সৌদি আরব প্রবাসীর স্ত্রী গৃহবধূ (২২) বাদী হয়ে ইতিমধ্যে বাসাইল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযুক্ত হাসান (২৫) উপজেলার কাঞ্চনপুর দক্ষিণ পাড়া গ্রামের খলিল মিয়ার ছেলে ও সম্রাট একই এলাকার মৃত নাসির খানের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ২০১৮ সালের ৮ জুন বাসাইল পৌর এলাকার সৌদি প্রবাসী এক ছেলের সঙ্গে কাঞ্চনপুর ইউপির কলেজ পড়ুয়া তরুণীর বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক মাস পর গৃহবধূর স্বামী পুনরায় সৌদি আরবে চলে যান। প্রতিবেশী চাচাতো ভাই হিসেবে বিভিন্ন সময় পরিবারের প্রয়োজনীয় কাজে সহযোগিতা করতো হাসান।

এর সুবাদে ওই গৃহবধূ তার নষ্ট হওয়া মোবাইল ফোন মেরামতের জন্য হাসানের কাছে দেয়। ওই সময় মোবাইলে থাকা গৃহবধূর একান্ত ব্যক্তিগত এবং স্বামীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবিগুলো মোবাইল থেকে কৌশলে সরিয়ে ফেলে।

১৩ সেপ্টেম্বর হাসান ওই ছবিগুলো নিজের ফেসবুক আইডিতে আপলোড করে। এ সময় হাসান ও সম্রাট ৫০ হাজার টাকা দাবি করে। অন্যথায় ছবিগুলি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার হুঁশিয়ারি দেয়। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ নিজে বাদী হয়ে হাসান এবং সম্রাটকে অভিযুক্ত করে ২০ সেপ্টেম্বর বাসাইল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

বাসাইল থানার ওসি হারুনুর রশিদ বলেন, মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে। ইতিমধ্যে অভিযুক্তরা গাঢাকা দিয়েছে। তাদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। খুব শিগগিরই তাদের গ্রেফতার করা হবে বলেও তিনি জানান।

গৃহবধূর ছবি ফেসবুকে দিয়ে টাকা দাবি করায় মামলা

 বাসাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফেসবুবে ছবি
প্রতীকী ছবি

টাঙ্গাইলের বাসাইলে গৃহবধূর অন্তরঙ্গ ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে টাকা দাবির অভিযোগ উঠেছে দুই প্রতিবেশী যুবকের বিরুদ্ধে। সৌদি আরব প্রবাসীর স্ত্রী গৃহবধূ (২২) বাদী হয়ে ইতিমধ্যে বাসাইল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযুক্ত হাসান (২৫) উপজেলার কাঞ্চনপুর দক্ষিণ পাড়া গ্রামের খলিল মিয়ার ছেলে ও সম্রাট একই এলাকার মৃত নাসির খানের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ২০১৮ সালের ৮ জুন বাসাইল পৌর এলাকার সৌদি প্রবাসী এক ছেলের সঙ্গে কাঞ্চনপুর ইউপির কলেজ পড়ুয়া তরুণীর বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক মাস পর গৃহবধূর স্বামী পুনরায় সৌদি আরবে চলে যান। প্রতিবেশী চাচাতো ভাই হিসেবে বিভিন্ন সময় পরিবারের প্রয়োজনীয় কাজে সহযোগিতা করতো হাসান।

এর সুবাদে ওই গৃহবধূ তার নষ্ট হওয়া মোবাইল ফোন মেরামতের জন্য হাসানের কাছে দেয়। ওই সময় মোবাইলে থাকা গৃহবধূর একান্ত ব্যক্তিগত এবং স্বামীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবিগুলো মোবাইল থেকে কৌশলে সরিয়ে ফেলে।

১৩ সেপ্টেম্বর হাসান ওই ছবিগুলো নিজের ফেসবুক আইডিতে আপলোড করে। এ সময় হাসান ও সম্রাট ৫০ হাজার টাকা দাবি করে। অন্যথায় ছবিগুলি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার হুঁশিয়ারি দেয়। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ নিজে বাদী হয়ে হাসান এবং সম্রাটকে অভিযুক্ত করে ২০ সেপ্টেম্বর বাসাইল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। 

বাসাইল থানার ওসি হারুনুর রশিদ বলেন, মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে। ইতিমধ্যে অভিযুক্তরা গাঢাকা দিয়েছে। তাদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। খুব শিগগিরই তাদের গ্রেফতার করা হবে বলেও তিনি জানান।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন