রামমন্দির নিয়ে মোদির মন্তব্যে তীব্র আপত্তি মমতার
jugantor
রামমন্দির নিয়ে মোদির মন্তব্যে তীব্র আপত্তি মমতার

  অনলাইন ডেস্ক  

০৬ আগস্ট ২০২০, ১৯:১৬:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

রামমন্দির নিয়ে মোদির মন্তব্যে তীব্র আপত্তি মমতার
ছবি: সংগৃহীত

অযোধ্যায় প্রায় ৫০০ বছর পুরনো বাবরি মসজিদের জায়গায় রামমন্দির নিয়ে উন্মাদনা চলছে বিজেপি শিবিরে। রামমন্দির আন্দোলনকে স্বাধীনতা আন্দোলনের সঙ্গে তুলনা করেছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।  

মোদির এমন মন্তব্যকে সরাসরি প্রত্যাখ্যান করেছেন তৃণমূল নেত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  খবর ইন্ডিয়ান টাইমসের।  

বৃহস্পতিবার মমতা বলেন, স্বাধীনতা দিবস আমাদের কাছে সবচেয়ে বড় দিন।  স্মরণীয়, ঐতিহাসিক ও গণতান্ত্রিক দিন। এই দিনের সঙ্গে অন্য কোনো দিনের তুলনা হয় না।

একইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতাহীনতায় কে বাঁচিতে চায়। এই দিনটাই আমাদের জীবনের সব থেকে স্মরণীয়, বরণীয় দিন। অন্য কোনো দিনই এর সঙ্গে তুলনীয় নয়।’ 

রাম মন্দিরের শিলান্যাস হওয়ায় সরযূ নদীর তীরে স্বর্ণযুগের সূচনা হয়েছে বলে দাবি করছেন রাম ভক্তরা।  তাদের মতে, সেই ‘স্বর্ণযুগের’ সূচনা করেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। 

যদিও ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী হয়ে মোদি কীভাবে একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানের নেতৃত্ব দিলেন, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। তবে, তারচেয়েও বেশি বিতর্ক তৈরি হয়েছে তার স্বাধীনতা মন্তব্যে। 

রাম মন্দিরের ভূমিপূজা সেরেই অনুষ্ঠানটিকে দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের সঙ্গে তুলনা করেছেন মোদি। 

তিনি বলেন, ‘দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে সারা দেশ যেমন যোগ দিয়েছিল, তেমনই রাম মন্দিরের জন্যেও অসংখ্য মানুষ বলিদান দিয়েছেন। আজ সেইসব মানুষদের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান হল।

১৫ আগস্ট যেমন ভারতের স্বাধীনতা দিবস, তেমনই আজকের দিনটি ত্যাগ, সংকল্পের প্রতীক হিসেবে মনে রাখবে গোটা বিশ্ব।’ 
 

রামমন্দির নিয়ে মোদির মন্তব্যে তীব্র আপত্তি মমতার

 অনলাইন ডেস্ক 
০৬ আগস্ট ২০২০, ০৭:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রামমন্দির নিয়ে মোদির মন্তব্যে তীব্র আপত্তি মমতার
ছবি: সংগৃহীত

অযোধ্যায় প্রায় ৫০০ বছর পুরনো বাবরি মসজিদের জায়গায় রামমন্দির নিয়ে উন্মাদনা চলছে বিজেপি শিবিরে। রামমন্দির আন্দোলনকে স্বাধীনতা আন্দোলনের সঙ্গে তুলনা করেছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

মোদির এমন মন্তব্যকে সরাসরি প্রত্যাখ্যান করেছেন তৃণমূল নেত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। খবর ইন্ডিয়ান টাইমসের।

বৃহস্পতিবার মমতা বলেন, স্বাধীনতা দিবস আমাদের কাছে সবচেয়ে বড় দিন। স্মরণীয়, ঐতিহাসিক ও গণতান্ত্রিক দিন। এই দিনের সঙ্গে অন্য কোনো দিনের তুলনা হয় না।

একইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতাহীনতায় কে বাঁচিতে চায়। এই দিনটাই আমাদের জীবনের সব থেকে স্মরণীয়, বরণীয় দিন। অন্য কোনো দিনই এর সঙ্গে তুলনীয় নয়।’

রাম মন্দিরের শিলান্যাস হওয়ায় সরযূ নদীর তীরে স্বর্ণযুগের সূচনা হয়েছে বলে দাবি করছেন রাম ভক্তরা। তাদের মতে, সেই ‘স্বর্ণযুগের’ সূচনা করেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

যদিও ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী হয়ে মোদি কীভাবে একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানের নেতৃত্ব দিলেন, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। তবে, তারচেয়েও বেশি বিতর্ক তৈরি হয়েছে তার স্বাধীনতা মন্তব্যে।

রাম মন্দিরের ভূমিপূজা সেরেই অনুষ্ঠানটিকে দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের সঙ্গে তুলনা করেছেন মোদি।

তিনি বলেন, ‘দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে সারা দেশ যেমন যোগ দিয়েছিল, তেমনই রাম মন্দিরের জন্যেও অসংখ্য মানুষ বলিদান দিয়েছেন। আজ সেইসব মানুষদের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান হল।

১৫ আগস্ট যেমন ভারতের স্বাধীনতা দিবস, তেমনই আজকের দিনটি ত্যাগ, সংকল্পের প্রতীক হিসেবে মনে রাখবে গোটা বিশ্ব।’

 

ঘটনাপ্রবাহ : বাবরি মসজিদ মামলার রায়