কূটনীতিক মুস্তফা আদিব লেবাননের নতুন প্রধানমন্ত্রী
jugantor
কূটনীতিক মুস্তফা আদিব লেবাননের নতুন প্রধানমন্ত্রী

  অনলাইন ডেস্ক  

০১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:২১:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

জার্মানিতে নিযুক্ত লেবাননের রাষ্ট্রদূত মুস্তফা আদিব দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোর লেবানন সফরের কয়েক ঘণ্টা আগে মুস্তফা আদিবকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করা হয়। খবর সিএনএন ও জেরুজালেম পোস্টের।

দেশটির পার্লামেন্টে অনুষ্ঠিত ভোটাভুটিতে সংখ্যাগরিষ্ঠ আইনপ্রণেতাদের সমর্থন পান ২০১৩ সাল থেকে বার্লিন দূতাবাসে কর্মরত ওই কূটনীতিক।

ইরান সমর্থিত গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ এবং সৌদি আরবের সমর্থন পাওয়া সাবেক প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরির দলসহ ছোট ছোট দলের বেশ কয়েকটি জোটই মুস্তফা আদিবকে সমর্থন দেন।

গত ৪ আগস্ট দেশটির রাজধানী বৈরুত বন্দরে রাসায়নিক গুদামে ভয়াবহ বিস্ফোরণে প্রায় দুই শতাধিক মানুষের মৃত্যুর পর বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে লেবানন। গণবিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন মাত্র এক বছর আগে দায়িত্ব নেয়া প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব সরকার।

সোমবার ভোটদানে সক্ষম ১২০ আইনপ্রণেতার মধ্যে ৯০ জনেরই সমর্থন পেয়েছেন মুস্তফা আদিব। মাত্র ১৭ আইনপ্রণেতা অন্য প্রার্থীদের ভোট দিয়েছেন।

এর মধ্যে ১৪ ভোট পেয়েছেন দেশটির একটি আন্তর্জাতিক আদালতের বিচারক নাওয়াফ সালাম। আর বাকি আইনপ্রণেতারা ভোটদানে বিরত থেকেছেন।

৪৮ বছর বয়সী মুস্তফা আদিব লেবাননের জনগণের মধ্যে খুবই কম পরিচিত। ২০১৩ সাল থেকে বার্লিনে লেবাননের রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে তিনি দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও ধনকুবের নাজিব মিকাতির উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেছেন।

কূটনীতিক মুস্তফা আদিব লেবাননের নতুন প্রধানমন্ত্রী

 অনলাইন ডেস্ক 
০১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:২১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জার্মানিতে নিযুক্ত লেবাননের রাষ্ট্রদূত মুস্তফা আদিব দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোর লেবানন সফরের কয়েক ঘণ্টা আগে মুস্তফা আদিবকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করা হয়। খবর সিএনএন ও জেরুজালেম পোস্টের।

দেশটির পার্লামেন্টে অনুষ্ঠিত ভোটাভুটিতে সংখ্যাগরিষ্ঠ আইনপ্রণেতাদের সমর্থন পান ২০১৩ সাল থেকে বার্লিন দূতাবাসে কর্মরত ওই কূটনীতিক।

ইরান সমর্থিত গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ এবং সৌদি আরবের সমর্থন পাওয়া সাবেক প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরির দলসহ ছোট ছোট দলের বেশ কয়েকটি জোটই মুস্তফা আদিবকে সমর্থন দেন।

গত ৪ আগস্ট দেশটির রাজধানী বৈরুত বন্দরে রাসায়নিক গুদামে ভয়াবহ বিস্ফোরণে প্রায় দুই শতাধিক মানুষের মৃত্যুর পর বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে লেবানন। গণবিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন মাত্র এক বছর আগে দায়িত্ব নেয়া প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব সরকার।

সোমবার ভোটদানে সক্ষম ১২০ আইনপ্রণেতার মধ্যে ৯০ জনেরই সমর্থন পেয়েছেন মুস্তফা আদিব। মাত্র ১৭ আইনপ্রণেতা অন্য প্রার্থীদের ভোট দিয়েছেন।

এর মধ্যে ১৪ ভোট পেয়েছেন দেশটির একটি আন্তর্জাতিক আদালতের বিচারক নাওয়াফ সালাম। আর বাকি আইনপ্রণেতারা ভোটদানে বিরত থেকেছেন।

৪৮ বছর বয়সী মুস্তফা আদিব লেবাননের জনগণের মধ্যে খুবই কম পরিচিত। ২০১৩ সাল থেকে বার্লিনে লেবাননের রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে তিনি দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও ধনকুবের নাজিব মিকাতির উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেছেন।