ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা
jugantor
ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা

  ময়মনসিংহ ব্যুরো  

০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২১:২৮:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

অনিয়ম-দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, অদক্ষতা, স্বজনপ্রীতি ও সদস্যদের প্রতি অসদাচরণের অভিযোগে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রদান করেছেন পরিষদের সদস্যরা। এতে ২০ সদস্যের মধ্যে ১৭ জন সদস্য সম্মতি জানিয়ে অনাস্থা প্রস্তাবে স্বাক্ষর করেছেন। আর বাকিদেরও সম্মতি রয়েছে বলে জানান উপস্থিত অন্য সদস্যরা।

বুধবার দুপুরে ময়মনসিংহ প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ মমতাজ উদ্দিন মন্তার সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরিষদের প্যানেল মেয়র-২ আবদুল খালেক।

এ সময় সংরক্ষিত নারী সদস্য জোসনারা মুক্তি, আসমাউল হোসনা, সদস্য তাজুল ইসলাম বাবুল, একরাম হোসেন ভূঁইয়া, রুহুল আমীন, আবদুল্লাহ আল মামুন, এইচএম খায়রুল বাসার, মোজাম্মেল হকসহ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এক সদস্য দেশের বাহিরে ও একজন অসুস্থ থাকায় তারা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকতে পারেননি বলেও তারা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা অভিযোগ করেন, বর্তমান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠানের অনিয়ম-দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতায় আমরা এখন অতিষ্ঠ। তিনি বিভিন্ন প্রকল্পে ১২% থেকে ১৭% পর্যন্ত ঘুষ গ্রহণ করে থাকেন। তাছাড়াও তার স্বজনপ্রীতি ও সদস্যদের প্রতি অসদাচরণ নিত্যদিনের ঘটনা। আমরা সঠিক তদন্তের মাধ্যমে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

এদিকে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ সদস্যদের অনাস্থা প্রস্তাব স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা

 ময়মনসিংহ ব্যুরো 
০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অনিয়ম-দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, অদক্ষতা, স্বজনপ্রীতি ও সদস্যদের প্রতি অসদাচরণের অভিযোগে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রদান করেছেন পরিষদের সদস্যরা। এতে ২০ সদস্যের মধ্যে ১৭ জন সদস্য সম্মতি জানিয়ে অনাস্থা প্রস্তাবে স্বাক্ষর করেছেন। আর বাকিদেরও সম্মতি রয়েছে বলে জানান উপস্থিত অন্য সদস্যরা।

বুধবার দুপুরে ময়মনসিংহ প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ মমতাজ উদ্দিন মন্তার সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরিষদের প্যানেল মেয়র-২ আবদুল খালেক।

এ সময় সংরক্ষিত নারী সদস্য জোসনারা মুক্তি, আসমাউল হোসনা, সদস্য তাজুল ইসলাম বাবুল, একরাম হোসেন ভূঁইয়া, রুহুল আমীন, আবদুল্লাহ আল মামুন, এইচএম খায়রুল বাসার, মোজাম্মেল হকসহ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এক সদস্য দেশের বাহিরে ও একজন অসুস্থ থাকায় তারা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকতে পারেননি বলেও তারা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা অভিযোগ করেন, বর্তমান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠানের অনিয়ম-দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতায় আমরা এখন অতিষ্ঠ। তিনি বিভিন্ন প্রকল্পে ১২% থেকে ১৭% পর্যন্ত ঘুষ গ্রহণ করে থাকেন। তাছাড়াও তার স্বজনপ্রীতি ও সদস্যদের প্রতি অসদাচরণ নিত্যদিনের ঘটনা। আমরা সঠিক তদন্তের মাধ্যমে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

এদিকে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ সদস্যদের অনাস্থা প্রস্তাব স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন