জেলে বডি ম্যাসাজ করাচ্ছেন মন্ত্রী, ভিডিও ফাঁসে তোলপাড় 
jugantor
জেলে বডি ম্যাসাজ করাচ্ছেন মন্ত্রী, ভিডিও ফাঁসে তোলপাড় 

  অনলাইন ডেস্ক  

২৩ নভেম্বর ২০২২, ১১:৫৭:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

জেলে বডি ম্যাসাজ করাচ্ছেন মন্ত্রী, ভিডিও ফাঁসে তোলপাড় 

জেলখানায় আরামছে শুয়ে শরীর ম্যাসাজ করাচ্ছেন এক মন্ত্রী। যাকে দিয়ে বডি ম্যাসাজ করাচ্ছেন তিনি ধর্ষণ মামলার আসামি।

ভারতের দিল্লির তিহার জেলের একটি সেলে এই ঘটনা ঘটেছেন।

মন্ত্রীর বডি ম্যাসাজের ভিডিওটি ফাঁস হয়ে গেছে। এরপর ভারতজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

যিনি বডি ম্যাসাজ করাচ্ছেন তিনি আম আদমি পার্টির নেতা দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন। আর ম্যাসাজ করে দিচ্ছেন তিনি নিজের মেয়েকে ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত রিঙ্কু।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, তিন দিনের ম্যাসাজের ভিডিও রয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ওই ব্যক্তি মন্ত্রী সত্যেন্দ্রর হাত-পা, আঙুল, মাথা ম্যাসাজ করে দিচ্ছেন। সত্যেন্দ্রও আরামে শুয়ে আছেন। ভিডিও ফাঁস হওয়ার পর দিল্লির আম আদমি পার্টির বিরুদ্ধে সোচ্ছার হয়েছে বিজেপি।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে ক্ষমাও চাইতে বলছে বিজেপি। আম আদমি পার্টির দাবি— চিকিৎসকই ফিজিওথেরাপির পরামর্শ দিয়েছেন সত্যেন্দ্র জৈনকে।

বিজেপির মুখপাত্র শাহজাদ পুনাওয়ালা এ প্রসঙ্গে টুইট করেন, যাকে থেরাপিস্ট হিসেবে দেখানো হচ্ছিল, তিনি কোনো থেরাপিস্ট নন! তিনি আসলে একজন ধর্ষক। ওর নাম রিঙ্কু। ওর বিরুদ্ধে পকসো এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ ধারায় মামলা চলছে। কেন একজন রেপিস্টকে থেরাপিস্ট বলে চালানোর চেষ্টা করা হচ্ছে? কেজরিওয়ালকে এর জবাব দিতে হবে। এই দাবির মধ্য দিয়ে উনি থেরাপিস্টদের অপমান করেছেন।

জেলে বডি ম্যাসাজ করাচ্ছেন মন্ত্রী, ভিডিও ফাঁসে তোলপাড় 

 অনলাইন ডেস্ক 
২৩ নভেম্বর ২০২২, ১১:৫৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জেলে বডি ম্যাসাজ করাচ্ছেন মন্ত্রী, ভিডিও ফাঁসে তোলপাড় 
ছবি: সংগৃহীত

জেলখানায় আরামছে শুয়ে শরীর ম্যাসাজ করাচ্ছেন এক মন্ত্রী। যাকে দিয়ে বডি ম্যাসাজ করাচ্ছেন তিনি ধর্ষণ মামলার আসামি।

ভারতের দিল্লির তিহার জেলের একটি সেলে এই ঘটনা ঘটেছেন।

মন্ত্রীর বডি ম্যাসাজের ভিডিওটি ফাঁস হয়ে গেছে। এরপর ভারতজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

যিনি বডি ম্যাসাজ করাচ্ছেন তিনি আম আদমি পার্টির নেতা দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন। আর ম্যাসাজ করে দিচ্ছেন তিনি নিজের মেয়েকে ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত রিঙ্কু। 

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, তিন দিনের ম্যাসাজের ভিডিও রয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ওই ব্যক্তি মন্ত্রী সত্যেন্দ্রর হাত-পা, আঙুল, মাথা ম্যাসাজ করে দিচ্ছেন। সত্যেন্দ্রও আরামে শুয়ে আছেন। ভিডিও ফাঁস হওয়ার পর দিল্লির আম আদমি পার্টির বিরুদ্ধে সোচ্ছার হয়েছে বিজেপি। 

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে ক্ষমাও চাইতে বলছে বিজেপি। আম আদমি পার্টির দাবি— চিকিৎসকই ফিজিওথেরাপির পরামর্শ দিয়েছেন সত্যেন্দ্র জৈনকে।

বিজেপির মুখপাত্র শাহজাদ পুনাওয়ালা এ প্রসঙ্গে টুইট করেন, যাকে থেরাপিস্ট হিসেবে দেখানো হচ্ছিল, তিনি কোনো থেরাপিস্ট নন! তিনি আসলে একজন ধর্ষক। ওর নাম রিঙ্কু। ওর বিরুদ্ধে পকসো এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ ধারায় মামলা চলছে। কেন একজন রেপিস্টকে থেরাপিস্ট বলে চালানোর চেষ্টা করা হচ্ছে? কেজরিওয়ালকে এর জবাব দিতে হবে। এই দাবির মধ্য দিয়ে উনি থেরাপিস্টদের অপমান করেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর